ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট আহমাদিনেজাদ গ্রেপ্তার!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৯ জানুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:৫৭
সরকারের বিরুদ্ধে অস্থিরতা সৃষ্টিতে উস্কানি দেয়ার অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ইরানের সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আহমাদিনেজাদকে। বিভিন্ন সংবাদ মিডিয়ায় এ খবর দেয়া হয়েছে। তবে ইরান কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করে নি। এক সপ্তাহ ধরে ইরানে চলমান বিক্ষোভ, প্রতিবাদে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে পড়েছে। এরই মধ্যে নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ২২ জন বিক্ষোভকারী। অভিযোগ করা হচ্ছে, এতে উস্কানি দিচ্ছেন মাহমুদ আহমাদিনেজাদ।
তিনি পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর বুশেহর সফরকালে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে খবর দিয়েছে আল কুদস আল আরাবি। এ ঘটনা ঘটে গত ২৮ শে ডিসেম্বর। কিন্তু বিষয়টি এখন প্রকাশ পেয়েছে। কিন্তু তার মতো একজন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হলে সঙ্গে সঙ্গে তা বিশ্বজুড়ে সংবাদ শিরোনাম হওয়ার কথা। এত পরে কেন এ রিপোর্ট অথবা আদৌও তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে কিনা তা নিশ্চিত করে কেউই বলতে পারছে না। আল কুদস আল আরাবি’কে উদ্ধৃত করে এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ডেইলি মেইল। এতে বলা হয়, আহমাদিনেজাদ বলেছেন, দেশে যে সমস্যা বিদ্যমান ও জনগণের মধ্যে যে উদ্বেগ তা থেকে র্দরে রয়েছেন ইরানের বর্তমান নেতারা। তিনি আরো বলেছেন, এসব নেতা সমাজের বাস্তব অবস্থা সম্পর্কে কিছুই জানেন না। তিনি আরো বলেছেন, মারাত্মক অব্যবস্থাপনার শিকার হচ্ছে ইরান। প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির সরকার মনে করে তারাই দেশের মালিক। তাই তারা সাধারণ মানুষকে অবজ্ঞা করে। উল্লেখ্য, দেশে খাদ্যমূল্য বৃদ্ধি ও বেকারত্বের হার অনৈক বেড়ে যাওয়ায় চলমান বিক্ষোভ চলছে। এতে এরই মধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে শত শত মানুষকে। তবে সর্বশেষ খবরে বলা হয়েছে, ইরান কর্তৃপক্ষ সাবেক প্রেসিডেন্ট আহমাদিনেজাদকে গৃহবন্দি করার পরিকল্পনা করছে। সোমবার উদ্ভুত পরিস্থিতিতে ইরানের পার্লামেন্টে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হয়। এর আগে ডিসেম্বরে মাহমুদ আহমাদিনেজাদের সাবেক ডেপুটি হামিদ বাঘাইকে আর্থিক অনিয়মের অভিযোগে ১৫ বছরের জেল দেয়া হয়েছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

হ্যান্ডকাফসহ পালালো আসামি

‘ডিএনসিসি নির্বাচন স্থগিত সরকারেরই নীল নকশার অংশ’

২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার না করলে আন্দোলন

সাক্ষ্য দেবেন না স্টিভ ব্যানন

‘সবকিছুতে সরকারের যোগসাজশ খোঁজেন কেন?’

রাখাইনে বৌদ্ধদের দাঙ্গা, গুলিতে নিহত ৭

৬ মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের আদেশ হাইকোর্টের

ভয়াবহ বিপদজনক চুক্তি

যুক্তি তর্ক শুনানি চলছে, আদালতে খালেদা

ঢাকা উত্তরের মেয়র উপনির্বাচন স্থগিত

উত্তরা মেডিকেলের ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা নেই

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তির বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের গভীর উদ্বেগ

মিয়ানমার অনুমতি দেয় নি, কাল বাংলাদেশে আসছেন জাতিসংঘের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিউর

‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন অবৈধ’

‘তেমন ভালো কাজ তো এখন হচ্ছে না’

আইভী-শামীম মুখোমুখি, সংঘর্ষ