সিলেটিদের মিলনমেলা হয়ে উঠেছিল কলকাতার সিলেট উৎসব

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৮ জানুয়ারি ২০১৮, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৫১
কলকাতায় সিলেট উৎসবে সিলেটি সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষার অঙ্গীকারের কথা ব্যক্ত করেছেন বিভিন্ন বক্তা। গত শুক্রবার দক্ষিণ কলকাতার যোধপুর পার্ক স্কুল প্রাঙ্গণে দু’দিন ব্যাপী সিলেটি উৎসবের সূচনা করে ভারতের নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলি বলেছেন, সিলেটিদের আত্মাভিমান তাদের বিশ্বজুড়ে প্রতিষ্ঠা দিয়েছে। সিলেট একটি পরিচয়। সিলেটের সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষার উপরও তিনি বিশেষ গুরুত্ব দেন। বিশেষ অতিথির ভাষণে মৌলানা আবুল কালাম আজাদ ইনস্টিটিউট অব এশিয়ান স্টাডিজের চেয়ারম্যান ড. সুজিত কুমার ঘোষ বলেছেন, ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রামে সিলেটিদের অবদানের সঠিক ইতিহাস এখনও লেখা হয় নি। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেছেন, এই ধরণের উৎসবের মাধ্যমে বিশ্বের নানা জায়গায় ছড়িয়ে থাকা সিলেটিদের মধ্যকার সম্প্রীত ও সৌহার্দ্য আরও বৃদ্ধি পাবে।
এবারের সিলেট উৎসবেও বিশ্বের নানা প্রান্তে থাকা সিলেটিরা যোগ দিয়েছিলেন। এসেছিলেন ভারতের নানা প্রান্তে বসবাসকারী সিলেটিরাও। ফলে এক অর্থে সিলেটিদের মিলনমেলা হয়ে উঠেছিল এই উৎসব। সকলেই সিলেটের স্মৃতি রোমন্থনে ব্যস্ত থেকেছেন। আবার নতুন প্রজন্মের মধ্যে সিলেটি সংস্কৃতির প্রতি তেমন আগ্রহ না থাকার আফসোসও শোনা গেছে অনেকের গলায়। উৎসবে যোগ দিতে এসেছিলেন ইউকের জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মুহিবুর রহমান ও সত্যবাণী পত্রিকার সম্পাদক সৈয়দ আনাস পাশা, ঢাকার জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সি এম তোফায়েল শামি, সম্পাদক সৈয়দ জগলুল পাশা, সিলেট চেম্বার এন্ড কমার্সের সভাপতি নাসির আহমেদ চৌধুরি প্রমুখ বিশিষ্ট সিলেটি সন্তানরা। দুদিন ব্যাপী এই উৎসবে সিলেটি সংস্কৃতির নানা দিক নানা সাংস্কৃৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে। বাংলাদেশের অনেক প্রখ্যাত সিলেটি শিল্পীরাও অংশ নিয়েছিলেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন সুবীর নন্দী, রাণা কুমার সিনহা, লাভলি দেব, হিমাংশু গোস্বামী প্রমুখ। মেলায় প্রদর্শনীর পাশাপাশি সিলেটি খাবারেরও আয়োজন ছিল।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

হ্যান্ডকাফসহ পালালো আসামি

‘ডিএনসিসি নির্বাচন স্থগিত সরকারেরই নীল নকশার অংশ’

২৪ ঘণ্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার না করলে আন্দোলন

সাক্ষ্য দেবেন না স্টিভ ব্যানন

‘সবকিছুতে সরকারের যোগসাজশ খোঁজেন কেন?’

রাখাইনে বৌদ্ধদের দাঙ্গা, গুলিতে নিহত ৭

৬ মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের আদেশ হাইকোর্টের

ভয়াবহ বিপদজনক চুক্তি

যুক্তি তর্ক শুনানি চলছে, আদালতে খালেদা

ঢাকা উত্তরের মেয়র উপনির্বাচন স্থগিত

উত্তরা মেডিকেলের ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা নেই

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তির বিষয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের গভীর উদ্বেগ

মিয়ানমার অনুমতি দেয় নি, কাল বাংলাদেশে আসছেন জাতিসংঘের স্পেশাল র‌্যাপোর্টিউর

‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন অবৈধ’

‘তেমন ভালো কাজ তো এখন হচ্ছে না’

আইভী-শামীম মুখোমুখি, সংঘর্ষ