রংপুর সিটি নির্বাচনের ফল

যা ভাবছেন ভোটাররা

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, রংপুর থেকে | ২৪ ডিসেম্বর ২০১৭, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৫৬
রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন পরবর্তী প্রাথমিক মূল্যায়নে গতকাল সুজন আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলা হয় দু’একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া রসিক নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এজন্য নির্বাচন কমিশন, রিটার্নিং অফিসার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান সুজনের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী রাজেশ দে। অন্যদিকে নগরীর সর্বত্রই ছিল নির্বাচন নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা। জাতীয় পার্টির নেতাকর্মী-সমর্থকদের মাঝে বিরাজ করছে আনন্দ উল্লাস। সরকার দলের প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু পরাজয়ের নেপথ্যে কারণ কি তা নিয়েও আলোচনা চলছে। জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ বলেন, নৌকার কোনো পরাজয় হয়নি, হেরেছে ঝন্টু।
সে যা ভোট পেয়েছে তার আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকদের নৌকা প্রতীকের জন্য পেয়েছে। সাবেক কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ নেতা ইদ্রিস আলী বলেন, ঝন্টু মেয়র নির্বাচিত হয়ে কোনোদিন আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আসেনি। দলীয় নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করেনি। স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, সীমাহীন দুর্নীতি, ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্ব্যবহারের কারণেই ঝন্টুর এই ভরাডুবি। এ ব্যাপারে সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু বলেন, আমি অনেক কষ্ট পেয়েছি প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গা আমাকে দুর্নীতিবাজ বলেছে। আমি কোনো অনিয়ম বা দুর্নীতি করিনি। বরং প্রতিমন্ত্রী রাঙ্গা কোন পর্যায় থেকে উঠে এসেছে তা রংপুরবাসী ভালো করে জানেন। ওদিকে জাতীয় পার্টির প্রার্থী মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফার জয়ের মূল কারণ হিসেবে মানুষজন বলছেন- গত রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় সমর্থনের বাইরে মোস্তফা নির্বাচন করে ঝন্টুর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হেরেও পাঁচ বছরে সাধারণ মানুষদের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছিলেন। যা তার জন্য বড় প্লাস পয়েন্ট। ভালোবাসা জন্মেছে। ওদিকে বিএনপি প্রার্থী কাওসার জামান বাবলার বিষয়ে মানুষজন বলছেন- তিনি প্রতিবার নির্বাচনের সময় এসে নির্বাচন করেন। নির্বাচন শেষ হলেই ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েন। সাধারণ মানুষের সঙ্গে তার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। যা পরবর্তীতে তার ভোটের জন্য বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়। এদিকে নির্বাচন পরবর্তী সময় নগরীর কোনো কোনো ওয়ার্ডে বিজয়ী ও পরাজিত প্রার্থীরা ভোটারদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছেন। ওদিকে নবনির্বাচিত মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা ফুল নিয়ে দোয়া নিতে যান তার প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের পরাজিত প্রার্থী সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু ও বিএনপির প্রার্থী কাওসার জামান বাবলার বাসভবনে। সেখানে কুশল বিনিময়ের পর তিনি রংপুর উন্নয়নের জন্য তাদের কাছে পরামর্শ ও সহযোগিতা চান।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

চাঁদাবাজির অভিযোগে দুই পুলিশ বরখাস্ত

এসএসসি পরীক্ষা চলাকালীন বন্ধ থাকবে ফেসবুক

ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকাকে অনেক পিছনে ফেলেছে বাংলাদেশ

মেয়রের বাড়িতে হামলার মামলায় ১০ আসামি কারাগারে

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুই কর্মকর্তা সাময়িক বরখাস্ত

নারায়ণগঞ্জের থানায় আইভীকে হত্যাচেষ্টার অভিযোগ

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা তৈমুর গ্রেপ্তার

বলিউড ছবি নিয়ে ভারতে তোলপাড়, নিষেধাজ্ঞা নেই-সুপ্রিম কোর্ট

‘আমি আমার শহরের লিডার’

চকবাজারে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

ভারতে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণ

দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ৯ ডাকাত

রাজধানীতে মা-মেয়ের ‘আত্মহত্যা’

'যত বেশি সম্ভব মুসলিম মারতে চেয়েছি'

সিএনজি চালক হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

সাকিবের জোড়া আঘাত