ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:১০
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র পদে উপনির্বাচন আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে অনুষ্ঠিত 
হবে। একই সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে নতুন যুক্ত হওয়া মোট ৩৬টি সাধারণ ওয়ার্ড ও ১২টি সংরক্ষিত ওয়ার্ডেও নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এসব নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে জানুয়ারি মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে। গতকাল নির্বাচন কমিশনের সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। পরে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ গণমাধ্যমকে এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে যুক্ত ১৬টি ইউনিয়নকে ৩৬টি ওয়ার্ডে বিভক্ত করে গত ৩০শে জুলাই গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে।
এর মধ্যে উত্তরে ১৮টি ও দক্ষিণে ১৮টি ওয়ার্ড অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এতে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পুরাতন ৩৬টির সঙ্গে নতুন ১৮টি ওয়ার্ড যোগ হওয়ায় মোট ওয়ার্ডের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫৪টি। আর দক্ষিণ সিটির ওয়ার্ড সংখ্যা ৫৭টি থেকে বেড়ে হয়েছে ৭৫টিতে। নতুন যুক্ত হওয়া ওয়ার্ডগুলোতে যারা নির্বাচিত হবেন তাদের মেয়াদ হবে এই সিটি করপোরেশনে বাকি মেয়াদ পর্যন্ত। সিটি করপোরেশনের উপনির্বাচন ও নতুন ওয়ার্ডের এই নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যে নির্বাচন কমিশন আইনি দিক পর্যালোচনা করেছে। এটি নিয়ে আইনি কোনো জটিলতা নেই বলে দাবি করেন হেলালুদ্দিন আহমদ। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ৩১শে জানুয়ারি নতুন ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে। যারা জানুয়ারিতে ভোটার হবেন তারাও নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন, তবে প্রার্থী হতে পারবেন না। ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দিন বলেন, যেহেতু ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে উপনির্বাচনে কোনো জটিলতা নেই, তাই কমিশন জানুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে তফসিল এবং ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহে ভোট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। স্থানীয় সরকার নির্বাচন আইন অনুযায়ী সিটি করপোরেশনের জনপ্রতিনিধিদের পাঁচ বছরের মেয়াদে শপথ পড়ান। তবে উপনির্বাচনে মেয়র পদে নতুন যিনি আসবেন, তিনি মেয়াদের বাকি অংশটুকু দায়িত্ব পালন করবেন। সেই হিসেবে গত ২০১৫ সালে ভোটের পর ঢাকা উত্তরের প্রথম সভা হয় ১৪ই মে। উপনির্বাচনে নির্বাচিত মেয়র ২০২০ সালের ১৩ই মে পর্যন্ত বহাল থাকবেন।
২০১৫ সালের ২৮শে এপ্রিল ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনে ভোট গ্রহণ হয়। আওয়ামী লীগের সমর্থনে ওই নির্বাচনে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র নির্বাচিত হন আনিসুল হক। প্রায় দুই বছর ধরে ওই পদে দায়িত্ব পালনের মধ্যেই চলতি বছর জুলাইয়ে যুক্তরাজ্যে গিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন সেরিব্রাল ভাস্কুলাইটিসে আক্রান্ত আনিসুল। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩০শে নভেম্বর তার মৃত্যু হয়। এতে শূন্য হয় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদটি। স্থানীয় সরকার বিভাগ ১লা ডিসেম্বর থেকে মেয়র পদটি শূন্য ঘোষণা করায় আইন অনুযায়ী ৯০ দিন বা আগামী ২৮শে ফেব্রুয়ারির মধ্যে এ উপনির্বাচন করতে হবে নির্বাচন কমিশনকে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভিডিও দেখে অস্ত্রধারীদের খোঁজা হচ্ছে

‘অতিষ্ঠ হয়ে প্রেমিককে ছুরিকাঘাত’

ফল প্রকাশের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, অবরোধ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সময় লাগবে ৯ বছর!

মত প্রকাশের স্বাধীনতা সীমিত, আক্রমণের শিকার নাগরিক সমাজ

মেয়র আইভী হাসপাতালে

জিয়াউর রহমানের ৮২ তম জন্মবার্ষিকী আজ

এবার আটকে গেল দক্ষিণের ১৮ ওয়ার্ডের নির্বাচনও

হাথুরুকে দেখিয়ে দেয়ার লড়াই

‘আপনার এত তাড়াহুড়া কিসের?’

সংবাদটি আমাকেও শোকে মুহ্যমান করে ফেলে

‘নেতৃত্ব তৈরির প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতেই ছাত্র সংসদ নির্বাচন বন্ধ রাখা হয়েছিল’

৬ মাসের প্রাণ পেলো যশোর রোডের গাছগুলো

সিলেটে রাজনীতির আড়ালে সক্রিয় ‘চিহ্নিত’ অপরাধীরা

‘নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ৮০ শতাংশ ভোট পাবে বিএনপি’

কাজাখস্তানে বাসে আগুন লেগে ৫২ জনের মৃত্যু