জানিবুলের স্বপ্নভঙ্গ

শেষের পাতা

মহিউদ্দিন অদুল | ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৪৪
একটু সচ্ছলতা। একটি সুন্দর জীবন। একটি স্বপ্নের সংসার। এমন প্রত্যাশা নিয়ে  স্বদেশ ছেড়ে সৌদি আরবে পাড়ি জমিয়েছিলেন জানিবুল হক। দাম্মামের হাফার আল বাতেন শহরে এক সৌদি নাগরিকের গাড়ি চালানোর কাজে যোগ দিয়েছিলেন। এইচএসসির পাঠ চুকিয়ে বিদেশ যান ১০ বছর আগে।
ড্রাইভিং ভিসা নিয়ে গেলেও ওই সৌদি গৃহকর্তা কাজের আগে-পরে তাকে ব্যস্ত রাখতেন অন্য কাজে। কখনো পরিচ্ছন্নতার কাজ। কখনো বা ঝুঁকিপূর্ণ রং করা বা বিদ্যুতের কাজে। গত ৪ঠা নভেম্বরও তাকে গাড়ি চালানোর কাজের পর দেয়া হয় দেয়াল রং করতে। তাও আবার ১১ হাজার ভোল্টেজের ত্রুটিপূর্ণ তারের কাছেই। একপর্যায়ে জানিবুল ওই ছিদ্রযুক্ত তারের সংস্পর্শে আসলে মারাত্মকভাবে বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়ে ছিটকে পড়েন। পরে আর কিছুই মনে নেই তার। এতে তার দু’হাত ও পিঠের বড় অংশ পুড়ে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়। প্রত্যক্ষদর্শীরা উদ্ধার করে সেখানকার এক হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার অবস্থা এতোটাই গুরুতর ছিল যে, সেখানকার চিকিৎসকরা দু’হাত কেটে বাদ দেয়ার পরামর্শ দেন। স্ত্রী সন্তানদের জীবিকার অবলম্বন কর্মঠ হাত দু’টি বাঁচাতে তিনি দেশে এসে চিকিৎসার সিদ্ধান্ত নেন। দু’হাত রক্ষা করতে চিকিৎসার জন্য ঘটনার ৫ দিন পর গত ৯ নভেম্বর ছুটে আসেন নিজ দেশে। ভর্তি হন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হপাসতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে। কিন্তু তার প্রবল অনিচ্ছা ও আকুতি সত্ত্বেও রক্ষা করা গেল না হাত দু’টি। হাত দু’টি পুড়ে ঝলসে একেবারে অকেজো হয়ে যাওয়ায় তা রাখার কোনো সুযোগ ছিল না বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। অবশেষে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত দু’হাত কেটে বাদ দেয়া হয়েছে। গত ২১শে নভেম্বর অস্ত্রোপচার করে বাম হাতটি বাদ দেয়া হয়। চারদিন পর ২৫শে নভেম্বর বাদ দেয়া হয় ডান হাত। এরপর গত ৭ই ডিসেম্বর তার পিঠে অস্ত্রোপচার করা হয়।
ঢামেক হাসপাতালের বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের পঞ্চম তলার ইউনিটের গ্রিন পেয়িং বেড ১১ তে গিয়ে দেখা যায়, এক সেবক তার ক্ষত স্থান ড্রেসিং করছিলেন। কনুইয়ের উপরে দু’হাত কাটা। রক্তাক্ত ক্ষত। পাখা ভাঙা অসহায় পাখির মতো দেখাচ্ছিলো। শুধু হাত নয়। পিঠের একটা বড় অংশের মাংসও উঠে গেছে। দগদগে ক্ষত। তীব্র যন্ত্রণায় তার আর্তচিৎকারে ভারি হয়ে আসে হাসপাতালের পরিবেশ। আশপাশের রোগীদের চোখ তার দিকেই। সবার নিরুপায় নিষ্পলক চোখে নীরব সমবেদনা। দীর্ঘক্ষণ পর শেষ হয় তার ড্রেসিং। সহযোগিতা করে যাচ্ছিলেন, জানিবুলের চার মাসের অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী শারমিনা আক্তার শাম্মী। সঙ্গে তার বড় ভাই মজিবুর রহমান।
ঢামেক হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি বিভাগের গ্রিন ইউনিটের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. গোবিন্দ বিশ্বাস মানবজমিনকে বলেন, বৈদ্যুতিক বার্নে তার দু’হাত ও পিঠের বড় অংশ মারাত্মকভাবে পুড়ে খসে পড়েছিল। পচন ধরেছিল। তা কেটে বাদ দেয়া ছাড়া কোনো উপায় ছিল না। রাখলে ইনফেকশনের সম্ভাবনা ছিল। এজন্য দু’হাতের পাশাপাশি পিঠের ক্ষতিগ্রস্ত চামড়া কেটে বাদ দেয়া হয়েছে। এখন অবস্থা স্থিতিশীল। কিছুদিন পরে দু’হাতে এবং পিঠে আবারো অস্ত্রোপচার করতে হবে।
জানা যায়, জানিবুল হক মৃত খলিলুর রহমান ও রোশনারা বেগমের ৭ ছেলে ২ মেয়ের মধ্যে সবার ছোট। তার বাড়ি চাঁদপুরের উত্তর মতলব থানার বাইশপুর এলাকায়। পরিবারের দুঃখ ঘুচিয়ে বাবা-মার মুখে হাসি ফুটাতে ২০০৮ সালে তিনি সৌদি আরবে যান। সেখানে ওই একই শহরে এক মালিকের কাজ করে যাচ্ছিলেন। সে মালিকের একটি মাদরাসার গাড়ি চালাতেন। গত ২০১৩ সালের ৩১শে মে তিনি পাশের সিপাইকান্দি গ্রামের নজরুল ইসলামের মেয়ে শাম্মীকে বিয়ে করেন। তাদের কোল আলো করে আসা প্রথম সন্তান জুনাইদের বয়স এখন সাড়ে তিন বছর।
এত বড় একটা দুর্ঘটনায় তার মালিক কোনো আর্থিক সহায়তাও দেয়নি। তবে সেই মাদরাসা শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের হাতে তুলে দেয়া অর্থ সহায়তায় লাখ খানেক টাকা নিয়ে এদেশে চলে আসেন। এরই মধ্যে গত এক মাসের বেশি সময়ে তার খরচ হয়ে গেছে দু’লাখের বেশি। এখন হাসপাতালে চিকিৎসা চললেও টুকিটাকি খরচও আর জোগাড় করতে পারছে না।
তার স্ত্রী শারমিন আক্তার শাম্মী বলেন, তার স্বপ্ন ছিল একটি সুখের সংসার। সন্তানকে মানুষ করা। কিন্তু তার স্বপ্ন ছারখার। এখন আমাদের সামনে শুধুই অন্ধকার। তার চিকিৎসার খরচই জোগাড় করতে পারছি না। তার ভালো হতে যে আর কতদিন লাগবে তাও বুঝতে পারছি না। এই দুঃসময়ে আমাদের একটু সহানুভূতি প্রয়োজন। দরকার আর্থিক সহায়তা।
ভাই মজিবুর রহমান বলেন, জানিবুলের ছোট্ট ভিটে টুকুন বিক্রি করেই তার চিকিৎসা চলছে। তাও শেষের পথে। ছোট ভাইয়ের চিকিৎসায় সমাজের হৃদয়বানদের সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ব্যাংক কোম্পানি আইন পাস, জাপার ওয়াকআউট

২০ হাজার টাকায় ১ বছর ক্লাস, অতঃপর...

শাম্মী আখতারের মৃত্যুতে শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

ট্রেনে কাটা পড়ে রেলওয়ে কর্মকর্তার মৃত্যু

শাম্মী আখতারের জানাজা কাল বাদ জোহর

আইভী-শামীম সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত অর্ধশত

শাম্মী আখতার আর নেই

স্বামী হত্যায় স্ত্রীসহ ৩ জনের ফাঁসির রায়

‘নির্বাচন সুষ্ঠু হলে বিপুল ভোটে জিতবে তাবিথ’

‘মিথ্যা মামলায় খালেদার কোনো ক্ষতি হবে না, জনপ্রিয়তা বাড়বে’

ডিএনসিসি উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট, আদেশ বুধবার

জেলপলাতক ৩ বাংলাদেশিকে এখনো ধরা যায়নি, সীমান্তে নজরদারি

অনশন ভাঙলেন ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষকরা

পুতিনই হবেন রাশিয়ার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট

শেকলে বাঁধা সন্তান, উদ্ধার ১৩, গ্রেপ্তার পিতামাতা

মার্কিন কূটনীতিকদের তলব করেছে আফ্রিকার ৫ দেশ