রাজধানীতে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য র‌্যালি

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:০০
রাজধানীতে বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালি করেছে আওয়ামী লীগ। বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান থেকে শুরু হয়ে ধানমন্ডির ৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু ভবনে গিয়ে শোভাযাত্রা শেষ হয়। এতে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন। জাতীয় পতাকা, বিভিন্ন স্লোগান লেখা ব্যানার ফেস্টুন নিয়ে তারা র‌্যালিতে অংশ নেন। এতে রাজধানীর বিভিন্ন আসনে সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীদের নেতাকর্মীদের বেশি সরব দেখা গেছে। তারা নেতাদের ছবি সংবলিত ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে র‌্যালিতে যোগ দেন।
পুরো র‌্যালিজুড়েই ছিল অনেকটা নির্বাচনী আমেজ। ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি আয়োজিত র‌্যালির উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদের পরিচালনায় বিজয় র‌্যালি পূর্ব সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল, ছাত্রলীগের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান।
উদ্বোধনী সমাবেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে আগামী নির্বাচনেও আওয়ামী লীগ বিজয়ী হবে। তিনি বলেন, ‘আগামী নির্বাচন ডিসেম্বর থেকে আরেক ডিসেম্বর। আগামী নির্বাচনে আমাদের প্রতিপক্ষ কারা? আমাদের প্রতিপক্ষ বিএনপির নেতৃত্বে জয় বাংলা বিরোধী সাম্প্রদায়িক শক্তি।’ জয় বাংলা বিরোধী, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী সাম্প্রদায়িক শক্তি বিএনপির সঙ্গে লড়াইয়ে মুক্তিযুদ্ধের শক্তি, বিজয়ী শক্তি বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আবারো আমরা বিজয়ী হব। জয় বাংলা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি, এই মুক্তিযুদ্ধের রণধ্বনি জয় বাংলাকে যারা অস্বীকার করে, জয় বাংলাকে ধারণ করে না, উচ্চারণ করে না, তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে না।
তিনি বলেন, বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হবে।
মতিয়া চৌধুরী বলেন, মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে রাজধানীতে যেমন গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে তেমনি সারা দেশে গণজাগরণের সৃষ্টি হয়েছে। বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসাত্মক রাজনীতি মোকাবিলা করে দেশে যে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে তা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ছাড়া অন্য কারো পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করতে পারে একমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ।
এদিকে বিজয় র‌্যালিকে ঘিরে দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ছিল উৎসবের আমেজ। বেলা দুইটার আগেই শাহবাগ থেকে মৎস্যভবন পর্যন্ত দীর্ঘ রাস্তায় মানুষের ঢল নামে। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাদ্য-বাজনার তালে তালে নেচে গেয়ে আসা নেতাকর্মীদের স্রোত পুরো এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। ঢাকা মহানগরীর ১৫টি নির্বাচনী এলাকা থেকে দলের সংসদ সদস্যদের নেতৃত্বে বিশাল বিশাল মিছিল সবার দৃষ্টি কাড়ে। শোভাযাত্রায় রং-বেরঙের বেলুন, ব্যানার, প্ল্যাকার্ড, ফেস্টুন, ট্রাক, হাতি, ঘোড়ার গাড়ি, নৌকা, দলীয় ও জাতীয় পতাকা, বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার বিশাল বিশাল প্রতিকৃতিসহ তারা অংশ নেন। বিকালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের যে স্থানে পাক হানাদার বাহিনী আত্মসমর্পণ করেছিল সেই শিখা চিরন্তনে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণের পর বেলুন উড়িয়ে র‌্যালির উদ্বোধন করেন ওবায়দুল কাদের। শাহবাগ থেকে র‌্যালি শুরুর হয়ে বঙ্গবন্ধু ভবন পর্যন্ত পৌঁছলেও র‌্যালির শেষ অংশ তখনও শাহবাগ পেরোতে পারেনি। এদিতে শোভাযাত্রার কারণে দুপুরের পর বিভিন্ন সড়কে যানজট দেখা দেয়। এতে দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ নগরবাসী।
আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা আজ: আজ রোববার বিকাল তিনটায় রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। দলের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সভায় জাতীয় নেতৃবৃন্দ ও দেশের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবীগণ বক্তব্য রাখবেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ব্যাংক কোম্পানি আইন পাস, জাপার ওয়াকআউট

২০ হাজার টাকায় ১ বছর ক্লাস, অতঃপর...

শাম্মী আখতারের মৃত্যুতে শোবিজ অঙ্গনে শোকের ছায়া

ট্রেনে কাটা পড়ে রেলওয়ে কর্মকর্তার মৃত্যু

শাম্মী আখতারের জানাজা কাল বাদ জোহর

আইভী-শামীম সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত অর্ধশত

শাম্মী আখতার আর নেই

স্বামী হত্যায় স্ত্রীসহ ৩ জনের ফাঁসির রায়

‘নির্বাচন সুষ্ঠু হলে বিপুল ভোটে জিতবে তাবিথ’

‘মিথ্যা মামলায় খালেদার কোনো ক্ষতি হবে না, জনপ্রিয়তা বাড়বে’

ডিএনসিসি উপনির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট, আদেশ বুধবার

জেলপলাতক ৩ বাংলাদেশিকে এখনো ধরা যায়নি, সীমান্তে নজরদারি

অনশন ভাঙলেন ইবতেদায়ি মাদ্রাসা শিক্ষকরা

পুতিনই হবেন রাশিয়ার পরবর্তী প্রেসিডেন্ট

শেকলে বাঁধা সন্তান, উদ্ধার ১৩, গ্রেপ্তার পিতামাতা

মার্কিন কূটনীতিকদের তলব করেছে আফ্রিকার ৫ দেশ