নি র্বা চ নী হা ল চা ল, নওগাঁ- ২

সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ

শেষের পাতা

আব্দুল্লাহ হেল বাকী, ধামইরহাট (নওগাঁ) থেকে | ২৪ নভেম্বর ২০১৭, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫২
আগামী সংসদ নির্বাচন ঘিরে নওগাঁ-২ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থীদের তোড়জোড় শুরু হয়েছে। ধামইরহাট ও পত্নীতলা উপজেলা নিয়ে নওগাঁ-২ আসন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আসনটি পুনরুদ্ধারে বিএনপি মরিয়া। রাজনৈতিক কারণে নওগাঁ জেলার ৬টি আসনের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ এ 
আসনটি। আগামী সংসদ নির্বাচনে এ আসনে বিকল্পধারা ও বাসদ থেকে একক প্রার্থী থাকলেও আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাপার একাধিক প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। স্থানীয় ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বিকল্পধারা থেকে দলের যুগ্ম মহাসচিব আব্দুর রউফ মান্নান এবং বাসদ থেকে ধামইরহাট উপজেলা বাসদের আহ্বায়ক দেব লাল টুডু নির্বাচনে লড়বেন।
এটা নিশ্চিত বলে জানিয়েছে দলীয় সূত্র। অন্যদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় রয়েছেন কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক প্রকৌশলী ড. আখতারুল আলম। তিনি দীর্ঘদিন ধরে ধামইরহাট-পত্নীতলা এলাকাবাসীর পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছেন। দলীয় হাইকমান্ডের সঙ্গে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া সাবেক সচিব কাজিমদার ওয়ালিউল ইসলাম মনোনয়ন প্রত্যাশী। নওগাঁ জেলা আওয়ামী লীগের বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক পত্মীতলা থানা কমিটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজিপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আমিনুল হকও আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বলে জানা গেছে। এছাড়া বর্তমান এমপি জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ শহীদুজ্জামান সরকার বাবলুও আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন চাইবেন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে কাজ করছেন মাহমুদ রেজা মেহেদী। বয়সে তরুণ এ মনোনয়ন প্রত্যাশী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি। তিনি এরই মধ্যে এলাকায় ফেস্টুন-ব্যানার টানিয়েছেন। মাহমুদ রেজা বলেন, আমি মনোনয়ন পেলে সবাই আমার সঙ্গে কাজ করবে। ১৯৯১ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে শহীদুজ্জামান সরকার প্রথম সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর ২০০১ সালের নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী শামসুজ্জোহা খানের কাছে পরাজিত হলেও নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন শহীদুজ্জামান সরকার। এরপর দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় নির্বাচিত হয়ে তিনি জাতীয় সংসদের হুইপ নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি আগামী নির্বাচনে মনোনয়ন প্রত্যাশী। দল মনোনয়ন দিলে আগামীদিনে আবারো আসনটি আওয়ামী লীগের দখলে আনতে সক্ষম হবেন বলে তিনি আশাবাদী। অপরদিকে এ আসনে বিএনপি থেকে কেন্দ্রীয় কমিটির কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও সাবেক এমপি সামসুজ্জোহা খান জোহা, নওগাঁ জেলা বিএনপির সহসভাপতি খাজা নাজিবুল্লাহ চৌধুরীর নাম শোনা যাচ্ছে। মনোনয়ন পাওয়ার আশায় তারা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। গণসংযোগ, দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ, কর্মিসভাসহ পাশাপাশি হাইকমান্ডের সঙ্গে লবিং চালিয়ে যাচ্ছেন। নওগাঁ জেলা বিএনপি সাংগঠনিক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটনও এ আসন থেকে মনোনয়ন চাইবেন বলে তার সমর্থকরা জানান। জাতীয় পার্টি (জাপা) থেকে নওগাঁ জেলা কমিটি সহসভাপতি বিএম হুমায়ন কবির চৌধুরী মনোনয়ন প্রত্যাশী। ইতিপূর্বে তিনি জাতীয় পার্টি থেকে এ আসনের এমপি ছিলেন। এছাড়া জাতীয় পার্টির (জাপা) সদস্য অধ্যাপক আবিদা আক্তার মনোনয়ন প্রত্যাশী।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

যেভাবে উগ্রপন্থায় দীক্ষিত হয় আকায়েদ

স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় মেটাতে দারিদ্র্যসীমার নিচে ৫ শতাংশ পরিবার

তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটাকে হাইজ্যাক করে ফেলেছে

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ৬০০ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

আরো বেড়েছে দেশি পিয়াজের দাম

সময় চাইলেন ‘অসুস্থ’ বাচ্চু

ঢাকার আকাশে ঝড়ের ঘনঘটা

বিএনপির প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

বিএনপির বিজয় র‌্যালি

ব্যবহারে বংশের পরিচয়

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’