সিলেট রেডক্রিসেন্ট সোসাইটিতে দ্বন্দ্ব

আদালতের নির্দেশে পূর্বের কমিটি বহাল

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ২২ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার
 কেন্দ্র ঘোষিত সিলেট রেডক্রিসেন্টের এডহক কমিটি বাতিল করে আগের কমিটি বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। আগামী ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত পূর্বের কমিটিকে দায়িত্ব পালন করতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এদিকে- রেডক্রিসেন্টের বর্তমান দায়িত্বে রয়েছেন এডহক কমিটির নেতারা। হাইকোর্টের আদেশের কপি এখনো সিলেটে এসে না পৌঁছালেও বিষয়টি নিয়ে আইনি লড়াইয়ের উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে বলে জানান বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত এক নেতা। সিলেট রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সাবেক কমিটি ছিল মেয়াদোত্তীর্ণ। সোমবার সিলেট রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির এডহক কমিটি নয় পুরাতন কমিটি বহাল বলে রায় প্রদান করেন উচ্চ আদালত।
আদালতের রায়ে বর্তমান কমিটি ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত বহাল থাকবে। রায়ের নির্দেশনায় তিনটি বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- রেড ক্রিসেন্ট সিলেট ইউনিটের সদ্য ঘোষিত এডহক কমিটি স্থগিত করা হলো। পূর্ব শিডিউল অনুযায়ী নির্বাচন যথারীতি অনুষ্ঠিত হবে। আর বর্তমান কমিটি যথারীতি আগামী ৩১শে ডিসেম্বর পর্যন্ত কার্যক্রম চালিয়ে যাবে। এসব বিষয় নিশ্চিত করেছেন বর্তমান কমিটির নেতৃবৃন্দ। এর আগে গত ১৩ই নভেম্বর মনোনয়ন দাখিলের পর ঢাকা থেকে তিন মাসের জন্য একটি এডহক কমিটি ঘোষণা করা হয়। সেটিতে বর্তমান কমিটি সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করছে না বলে উল্লেখ করা হয়। এই আদেশের বিরুদ্ধে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মনসুজামান বাবুল ও সেক্রেটারি আব্দুর রহমান জামিল আদালতের আশ্রয় নেন। তারা আইনের আশ্রয় নিবেন সেটি এর আগে গত ১৩ই নভেম্বর জানিয়েছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে সোমবার উচ্চ আদালত এই রায় প্রদান করেন। বিচারক নাঈমা হায়দার ও জাফর আহমেদ এক আদেশে রেড ক্রিসেন্ট সিলেট ইউনিটের সদ্য ঘোষিত এডহক কমিটি স্থগিত করার পাশাপাশি পূর্ব শিডিউল অনুযায়ী নির্বাচন যথারীতি ৬ তারিখে অনুষ্ঠিত হওয়ার নির্দেশ দেন। এর আগে কেন্দ্রীয় মহাসচিব বিএমএম মোজহারুল হক এনডিসি ১১ সদস্য বিশিষ্ট নতুন অ্যাডহক কমিটি অনুমোদন দেন। আগামী তিন মাসের জন্য এ কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছিল। অ্যাডহক কমিটিতে পদাধিকার বলে ইউনিটের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্বে বহাল থাকেন সিলেট জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান। ভাইস চেয়ারম্যান মনোনীত করা হয় মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক সিটি কাউন্সিলর ফয়জুল আনোয়ার আলাউরকে। সেক্রেটারি মনোনীত করা হয়েছিল জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিনকে। এ ছাড়া কমিটিতে সদস্য মনোনিত হন- আওয়ামী লীগ নেতা অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শামীম আহমদ, সদস্য মতিউর রহমান মতি, মুজিবুর রহমান মুজিব, ওসমানীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ আবদাল মিয়া, সিটি কর্পোরেশনের ৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোস্তাক আহমদ পলাশ ও জেলা পরিষদের সংরক্ষিত মহিলা সদস্য সুষমা সুলতানা রুহী। এ ব্যাপারে অ্যাডহক কমিটির সদস্য সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলাওর জানিয়েছেন- সিলেট ইউনিটের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমানের সাথে  কেন্দ্রীয় মহাসচিবের কথা হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে কেন্দ্র থেকে আইনী লড়াই চালিয়ে যাওয়া হবে। রেডক্রিসেন্ট ইউনিটের বহাল কমিটির সাধারণ সম্পাদক জামিল আহমদ গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন- খুব শিগগিরই আমরা সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সবাইকে নিয়ে রেড ক্রিসেন্ট সিলেট ইউনিটের কার্যক্রমের সমূহ বিবরণ পেশ করবো।’

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

যেভাবে উগ্রপন্থায় দীক্ষিত হয় আকায়েদ

স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় মেটাতে দারিদ্র্যসীমার নিচে ৫ শতাংশ পরিবার

তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটাকে হাইজ্যাক করে ফেলেছে

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ৬০০ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

আরো বেড়েছে দেশি পিয়াজের দাম

সময় চাইলেন ‘অসুস্থ’ বাচ্চু

ঢাকার আকাশে ঝড়ের ঘনঘটা

বিএনপির প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

বিএনপির বিজয় র‌্যালি

ব্যবহারে বংশের পরিচয়

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’