মোটা চালের দামে এখনো অস্বস্তি

বাংলারজমিন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | ২২ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৪৯
দুই দফা বন্যায় খাদ্য সংকট এড়াতে সরকার শুল্ক কমিয়ে আনার পর চাল আমদানি বেড়েই চলেছে। সরকারি-বেসরকারি উভয় পর্যায়েই চাল আমদানি বাড়ছে। দেশে বিভিন্ন জেলায় নতুন ধানও কাটা শুরু করেছেন কৃষকরা। এরপরও চালের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয়ক্ষমতার বাইরে। খুচরা বাজারে এখনো মোটা চালের কেজি ৪৫ টাকার উপরে। এ জন্য জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) বাংলাদেশকে সতর্কবার্তার তালিকায় রেখেছে।
এদিকে মাঝে দর বাড়লেও তা কমে চালের বাজার এখন স্বাভাবিক বলে সংসদে দাবি করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। রোববার জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর-পর্বে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, খাদ্যমূল্য বৃদ্ধি করে জনজীবনে হয়রানি সৃষ্টিকারক অসাধু আড়তদার ও ফড়িয়াদের সিন্ডিকেট দমন করতে সরকার সক্ষম হয়েছে। এছাড়া বাজারে অত্যাবশ্যকীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রয়েছে। চালের দাম স্বাভাবিক অবস্থায় রয়েছে। ওদিকে সোমবার টিসিবি ভবনে জাতীয় ভোক্তা সংরক্ষণ পরিষদের ১৬তম সভা শেষে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম খুব বেশি বাড়েনি। বন্যার কারণে পিয়াজের দাম বেড়েছে। তাছাড়া দাম ওঠানামা করবে- এটাই স্বাভাবিক। চালের দাম নিয়ে তিনি বলেন, চালের দাম থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, ভারতেও ৪০ টাকার ওপরে। রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) বাজার দরের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকার বাজারে মোটা চালের কেজি সর্বনিম্ন দর ৪২ টাকা, সরু চালের সর্বনিম্ন দর ৫৬ টাকা। উন্নতমানের সরু চালের কেজি সর্বোচ্চ ৬৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের দৈনিক খাদ্য পরিস্থিতি প্রতিবেদন অনুযায়ী, দেশে এখন মোটা চালের দর প্রতি কেজি ৪২ থেকে ৪৪ টাকা। আর টিসিবি’র হিসাবে, মোটা চালের কেজি ৪২-৪৬ টাকা। গত ৫ মাসে মোটা চালের দাম কেজিতে ৫-৬ টাকা পর্যন্ত কমেছে। খাদ্য মন্ত্রণালয়ের হিসাব অনুযায়ী, বাজারে প্রতি কেজি মোটা চালের পাইকারি মূল্য ৩৯-৪০ টাকা। আর খুচরা বাজারে তা ৪২-৪৪ টাকায় বিক্রি হতে দেখা গেছে।
ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এক কেজি চাল দেশের উত্তরাঞ্চল থেকে রাজধানীতে আসতে এক টাকারও কম খরচ হয়। এর সঙ্গে মুনাফা ও পরিবহন খরচ যোগ করলে পাইকারি ও খুচরার পার্থক্য দাঁড়ায় দুই থেকে আড়াই টাকা। অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক একেএম লায়েক আলী বলেন, পাইকারিতে সব ধরনের চালের দাম ৪-৫ টাকা কমিয়েছি। কিন্তু খুচরায় এর প্রভাব পড়ছে না। টিসিবি’র হিসাবে, বাজারে এখনো মিনিকেট (সাধারণ মানের) চাল গত বছরের নভেম্বরের তুলনায় ২৩ শতাংশ বেশি। আর মিনিকেট (ভালো মানের) চাল ২০.১৯ শতাংশ বেশি। মাঝারি ধরনের চাল গত বছরের নভেম্বরের তুলনায় ২০ শতাংশ বেশি। পাইজাম (সাধারণ মানের) চাল ২২ শতাংশ বেশি। পাইজাম (ভালো মানের) চাল গত বছরের নভেম্বরের তুলনায় ২১.৮৪ শতাংশ বেশি। আর মোটা চাল গত বছরের নভেম্বরের তুলনায় ১৫.৭৯ শতাংশ বেশি। তবে সব ধরনের চালে গত মাসের তুলনায় সর্বোচ্চ ৪.৩৫ শতাংশ কমেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের আমদানি সংক্রান্ত হালনাগাদ তথ্যে দেখা গেছে, চলতি অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে চাল আমদানির জন্য ৯৩ কোটি ৫ লাখ ডলারের ঋণপত্র (এলসি) খোলা হয়েছে। এই অঙ্ক গতবছরের একই সময়ের চেয়ে ১৮৫ গুণ বা ১৮৩৯২ শতাংশ বেশি। গত অর্থবছরের প্রথম তিন মাস জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে চাল আমদানির জন্য মাত্র ৫০ লাখ ৩০ হাজার ডলারের এলসি খোলা হয়েছিল। তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, জুলাই-সেপ্টেম্বর সময়ে চাল আমদানির এলসি নিষ্পত্তি হয়েছে ৩২ কোটি ৯১ লাখ ডলারের, যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ৯০৬৩ শতাংশ বেশি। এছাড়া চলতি ২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম তিন মাসে (জুলাই-সেপ্টেম্বর) বিভিন্ন পণ্য আমদানির জন্য ১ হাজার ৪৭০ কোটি ৩১ লাখ (১৪.৭০ বিলিয়ন) ডলারের এলসি খোলা হয়েছে, যা গত বছরের একই সময়ের চেয়ে ৩৬.৪৯ শতাংশ বেশি। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ এ হিসাবে, গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে বোরো ও আউশ মৌসুমে উৎপাদন কম হওয়ায় মোট চালের উৎপাদন ৯ লাখ ৬ হাজার টন কমেছে। গত অর্থবছরে আউশ, আমন ও বোরো মৌসুমে ৩৩৮ লাখ ২ হাজার টন চাল উৎপাদন হয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এ তিন মৌসুমে ৩৪৭ লাখ ৮ হাজার টন চাল উৎপাদন হয়েছিল। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আউশ মৌসুমে ২১ লাখ ৩৩ হাজার টন চাল উৎপাদন হয়েছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরের আউশ মৌসুম থেকে ২২ লাখ ৮৮ হাজার টন চাল উৎপাদন হয়েছিল। আউশ উৎপাদন কমলেও ২০১৬-১৭ অর্থবছরে আমন উৎপাদন বেড়েছে। এই অর্থবছরে ১৩৬ লাখ ৫৬ হাজার টন আমন উৎপাদন হয়েছে, যা আগের অর্থবছরে ছিল ১৩৪ লাখ ৮৩ হাজার টন।
আগাম বন্যায় এবার বোরো ধানের উৎপাদন সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে বিবিএস তথ্যে উঠে এসেছে। মার্চ থেকে মে- এই তিন মাস বাংলাদেশে বোরোর চাষ হয়। গত অর্থবছর এই মৌসুমে ১৮৯.৩৭ লাখ টন ধান উৎপাদিত হয়েছিল। আর এবার বন্যার কারণে তা কমে হয়েছে ১৮০.১৩ লাখ টন।
এদিকে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) বাংলাদেশকে এখনো ‘অ্যালার্ট’ বা সতর্কবার্তার তালিকায় রেখেছে। ১০ই নভেম্বর এফএও ফুড প্রাইস অ্যান্ড মনিটরিং (এফপিএমএ) শীর্ষক প্রতিবেদনে এই তথ্য দেয়া হয়। খাদ্যের দাম, সহজলভ্যতা ও মান- এই তিন ক্ষেত্রেই বাংলাদেশের পরিস্থিতিকে এখনো খারাপ বলে মনে করছে এফএও। চালের দাম অস্বাভাবিকভাবে বেড়ে যাওয়ায় গত মে মাসে প্রথম এই সতর্কবার্তা দিয়েছিল এফএও। চলতি মাসেও তা বহাল রাখা হয়েছে। বাংলাদেশসহ আটটি দেশকে খাদ্য পরিস্থিতি নিয়ে সতর্কবার্তা দিয়েছিল এফএও।
কাওরান বাজারের মেসার্স বরিশাল রাইস এজেন্সির ম্যানেজার নূরে আলম বলেন, আমদানি করা মোটা চালের সরবরাহ ভালো থাকায় এই চালের দাম কমেছে। মিনিকেট ও নাজিরশাইল চালও কিছুটা কম দামে বিক্রি হচ্ছে। কাওরান বাজারে ৫০ কেজি ওজনের এক বস্তা মিনিকেট চাল ২৭০০-২৯০০ টাকা, নাজিরশাইল ৩০০০-৩৫০০ টাকা, আটাশ ২৩০০-২৪০০ টাকা এবং গুটি ও স্বর্ণা চাল ১৯০০-২০০০ টাকায় বিক্রি হয়। অন্যদিকে পাইকারি বাজারে কয়েকটি দোকানে মিনিকেট ২৭৫০-২৯০০ টাকা, নাজিরশাইল ৩০০০-৩৫০০ টাকা, আটাশ ২৩০০ টাকা এবং গুটি ও স্বর্ণা ১৯০০-২০৫০ টাকায় বিক্রি হতে দেখা যায়। পাইকারি বিক্রেতারা বলেন, ভারত থেকে গুটি ও স্বর্ণা চাল আসায় এসব চালের দাম কমেছে। এই চালের দাম কেজিপ্রতি ৫০ টাকায় উঠে গেলেও এখন তা ৩৮ টাকায় বিক্রি করা যাচ্ছে।
কাওরান বাজারের কুমিল্লা রাইস এজেন্সির মালিক আবুল কাশেম বলেন, খুচরায় গুটি ও স্বর্ণা কেজিপ্রতি ৪৩ টাকা, নাজিরশাইল ৬০-৬২ টাকা, মিনিকেট ৫৭-৬০ টাকা, দেশি আটাশ ৫২ টাকা এবং ভারতীয় আটাশ চাল ৪৮ টাকায় বিক্রি করছেন। বাজারে খুচরা চাল বিক্রিতে কেজিতে এক থেকে দুই টাকা তারতম্য দেখা যায়। একই চাল পাড়া-মহল্লার ছোট ছোট দোকানে বিক্রি হচ্ছে আরেকটু বেশি দামে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ওআইসি’র ঘোষণা নেতানিয়াহু’র প্রত্যাখ্যান

প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরেছেন

ট্রাম্পের কড়া সমালোচনা

গাজীপুরে মসজিদের ভেতর নৈশ প্রহরীকে গলা কেটে হত্যা

‘প্রেম’ করে বিয়ে, চাকরি হারালেন শিক্ষক দম্পতি

চবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির সত্যতা মিলেছে

প্রশ্ন ফাঁস হতো প্রেস থেকে

আবাসিক এলাকায় রাতে হর্ন বাজানোয় নিষেধাজ্ঞা

‘বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনে বাধা নেই’

কুয়ালালামপুরে গ্রেপ্তার ২ ইমিগ্রেশন কর্মকর্তা

জামিনে আপন জুয়েলার্সের তিন মালিক

নারী সহশিল্পীর সঙ্গে যৌন সম্পর্কে বাধ্য করা হয় আমাকে

বিবাহ বহির্ভূত যৌন সম্পর্ক নিষিদ্ধ করার আবেদন প্রত্যাখ্যাত ইন্দোনেশিয়ায়

প্রথম ১ মাসে ৬৭০০ রোহিঙ্গাকে হত্যা

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদকে মিয়ানমার, বাংলাদেশ সফরের আহ্বান

৪ সাংবাদিকের ওপর হামলার ঘটনায় ভূমিমন্ত্রীপুত্র কারাগারে