তাকে মিস করবেন মাহমুদুল্লাহ

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার | ২১ নভেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার
বাংলাদেশের ক্রিকেটে এখন ধোঁয়াশার নাম চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। এ দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে সফল বিদেশি কোচ এখন দলের সঙ্গে আছেন নাকি নেই তা স্পষ্ট নয়। প্রবল গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে শেষ পর্যন্ত তিনি দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের। নিজ দেশের দায়িত্ব নিয়ে টাইগারদের বিপক্ষে দেখা যেতে পারে তাকে জানুয়ারিতেই। সদ্য সমাপ্ত দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে হঠাৎ করেই পদত্যাগপত্র জমা দেন বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। তখন থেকেই প্রশ্ন কেন তার হঠাৎ প্রস্থান! অনেক উত্তর ঘুরছে বাতাসে।
তার মধ্যে একটি গুরুতর অভিযোগ জাতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটারদের বিপক্ষে। মাশরাফি বিন মুর্তজা, মুশফিকুর রহীম, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণেই পদত্যাগ করেছেন কোচ। সত্যি কি তাই? এর সঠিক উত্তর নেই কারো মুখে। দায়িত্ব নেয়ার শুরুতে সাকিবের সঙ্গে ঝামেলা দিয়ে শুরু। এরপর সিনিয়র সব ক্রিকেটারদের সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনতি হয়েছে বলে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে। তবে সবই অস্বীকার করেছেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। গতকাল  গুলশানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সাহায্য সংস্থা ইউএসএইডের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে চুক্তি সইয়ের পর সংবাদমাধ্যমের কাছে মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘আমি একেবারেই মানতে পারছি না যে সিনিয়র  প্লেয়ারদের সঙ্গে ওনার (হাথুরুসিংহে) সম্পর্ক ভালো ছিল না। এটা ঠিক না। সম্পর্ক সবসময় ভালো ছিল। কারণ আমরা ফ্যামিলির মতো ছিলাম।’
শুধু তাই নয়, বাতাসে ভেসে বেড়ানো কথায় কাউকে কান না দিতেও অনুরোধ করেন মাহমুদুল্লাহ। জাতীয় দলের এ অলরাউন্ডার বলেন, ‘অনেক সময় অনেক কিছুই শোনা যায়, এগুলোতে কান না দিয়ে ক্রিকেটের জন্য যেটা ভালো সেটা করা উচিত। সবসময় উনি চেষ্টা করে এসেছেন আমাদের জন্য। আমরাও আমাদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করেছি।’ মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ব্যক্তিগতভাবে ভুলতে পারবেন না কোচ হাথুরুসিংহেকে। কারণ এ কোচের সময় বদলে গেছে তার ক্যারিয়ার। এ জন্য তিনি কোচকে বিশেষভাবে মনে রাখবেন।  তাকে অনেক মিসও করবেন বলে জানান। মাহমুদুল্লাহ  বলেন, ‘আমার উন্নতির পেছনে উনার বেশ অবদান ছিল। অবশ্যই ওনাকে মিস করবো।’
কোচ নিয়ে মাহমুদুল্লাহর এমন আবেগ থাকাটা স্বাভাবিক। ২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে অভিষেকের পর ২০১৫ বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত ১১০টি ওয়ানডে খেলেন মাহমুদুল্লাহ। কিন্তু  সেঞ্চুরি ছিল না একটিও। হাথুরুসিংহে বাংলাদেশের কোচ হিসেবে যোগ দেয়ার পরই তার ভাগ্য বদলাতে শুরু করে। অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে মাহমুদুল্লহর ব্যাট থেকে আসে দুটি সেঞ্চুরি। বিশ্বকাপে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে তার ব্যাট থেকেই প্রথম সেঞ্চুরি আসে। তবে সর্বশেষ শ্রীলঙ্কা সফরে সেই মাহমুদুল্লাহকেই শততম টেস্টে দলের বাইরে রাখেন কোচ। এমনকি তার চাওয়াতেই দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছিল ওয়ানডে দলে না রেখে। ২০১৪ সালে দায়িত্ব নেয়ার শুরুতেই কোচের দ্বন্দ্বটা স্পষ্ট ছিল সাকিব আল হাসানের সঙ্গে। এরপর মাহমুদুল্লাহ, মাশরাফি, মুমিনুল সর্বশেষ তামিম ইকবালের সঙ্গেও দ্বন্দ্বের কথা শোনা যায়। যদিও কোনো ক্রিকেটারই আজ পর্যন্ত তাদের সঙ্গে কোচের দূরত্বের কথা সরাসরি স্বীকার করেননি।  
এছাড়াও শুভেচ্ছাদূতের বক্তব্যে মাহমুদুল্লাহ বলেন, ‘এদেশের ভবিষ্যৎ গড়তে ও সমাজকে প্রভাবিত করার ক্ষমতা যে যুব সমাজের রয়েছে, এ বিষয়গুলো তরুণদের বোঝাতে আমাদের অনেক কাজ করতে হবে। এজন্য ইউএসএআইডি’র এই অংশীদারিত্ব করা এবং শুভেচ্ছাদূত হওয়াতে আমি গর্বিত বোধ করছি। আমরা শুধু ক্রিকেট খেলায় নয় অনেক কিছুতেই এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের মেয়েরা এএফসি ফুটবলে খুব ভালো করছে।’

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভারতে তিন তালাক বিরোধী খসড়া আইনে সরকারের অনুমোদন

বিরোধীরা আসলেই কাগুজে বাঘ: মোজাম্মেল হক

গাংনী বিএনপি কার্যালয়ে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ

মহান বিজয় দিবস আজ

চট্টলার সিংহপুরুষের বিদায়

রাজধানীতে বৃদ্ধা ও শিশু খুন

বাংলাদেশ জন্ম নিয়েছিল একটা আদর্শ নিয়ে

সবক্ষেত্রে চাই গুণগত সেবা

বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ হতে পারে স্পেন!

কাদের-মওদুদকে ঘিরেই স্বপ্ন দু’দলের

শেষমুহূর্তে তৎপর বিএনপি

ট্রাম্প প্রশাসনের ধর্মীয় পক্ষপাতিত্ব

ইউপিডিএফ ভাঙার নেপথ্যে

মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে দুইয়ে শেখ জামাল

সারা দেশে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি ১৮ ডিসেম্বর

যেভাবে অপহরণকারীদের হাত থেকে মুক্ত হলেন সিলেটের ব্যবসায়ী মুন্না