মানিকগঞ্জে স্বর্ণের দোকান লুট

২ কোটি টাকা চাঁদা দাবি নিয়ে তোলপাড়

এক্সক্লুসিভ

রিপন আনসারী, মানিকগঞ্জ থেকে | ২০ নভেম্বর ২০১৭, সোমবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:২০
মানিকগঞ্জে নাগ জুয়েলার্সে ফিল্মি স্টাইলে ককটেল ফাটিয়ে এবং পিস্তল উঁচিয়ে ৭শ’ ভরি স্বর্ণ ডাকাতির ঘটনাকে কেন্দ্র করে সর্বত্র চলছে ব্যাপক  আলোচনা-সমালোচনা। পুলিশ ও ডিবি পুলিশের দুই কোটি টাকার চাঁদা দাবির বিষয়টি এখন ওপেন সিক্রেট। এদের মধ্যে একজন দেশে থাকলেও আরেকজন  রয়েছেন ১০ দিনের ছুটিতে দেশের বাইরে। ডাকাতির ঘটনা আর আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দুই কর্মকর্তার দুই কোটি টাকা চাঁদা দাবি এখন ‘টক অব দ্য মানিকগঞ্জ’।
মানিকগঞ্জ জেলা স্বর্ণশিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক রঘুনাথ রায় বলেন, গেল মাসের ৮ই নভেম্বর মানিকগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আব্দুল আউয়াল আমাকে এবং সভাপতিকে তার কার্যালয়ে ডেকে নেন। সেখানে স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়।
আমরা নাকি অবৈধ স্বর্ণের ব্যবসা করছি, চোরাই স্বর্ণ কিনছি, এসিড ব্যবসা করছি এবং ভারতীয় নাগরিক দিয়ে কাজ করাচ্ছি। এসব নানা অভিযোগ আমাদের ওপর চাপিয়ে দেয়ার চেষ্টা চালান তারা। এসব অভিযোগ থেকে  রেহাই পেতে হলে ওই দুই কর্মকর্তাকে ২ কোটি টাকা দিতে হবে। নইলে বিভিন্ন মামলায় ফাঁসানো হবে।
স্বর্ণশিল্পী সমিতির সভাপতি আতাউর রহমান তোতা বলেন, ৯ই নভেম্বর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আব্দুল আউয়াল আবারো আমাদের দুই জনকে তার অফিসে ডেকে নেন। এসময় ছিলেন এনএসআই-এর সহকারী পরিচালক চৌধুরী আসিফ মনোয়ার। তারা দুজন মিলে আমাদের নানা ধরনের ভয়ভীতি দেখাতে থাকেন আর দুই কোটি টাকা দাবি করেন। তারা আমাদের দুই জনের কাছে থাকা মোবাইল ফোনটিও কেড়ে নেন।  
এক পর্যায়ে আমরা ৫০ হাজার টাকা দিতে চাইলে চৌধুরী আসিফ আমাদের বলে উঠেন, আমরা কি ফকিরের ভিক্ষা চাচ্ছি? এ কথা শোনার পর আমরা সেখান থেকে বের হয়ে আসার চেষ্টা করি। পরে ওই দুই কর্মকর্তা মিনিট কয়েক পর আবারো আমাদের ডেকে নিয়ে  টাকার পরিমাণ কমিয়ে সর্বশেষ ৭০ লাখ টাকা ধার্য করে দেন। আমরা বিষয়টি নিয়ে আমাদের স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে জানাবো বলে সেখান থেকে বের হয়ে আসি। বিষয়টি আমরা আওয়ামী লীগের এক নেতাকে জানাই। পরে দোকান ভেদে চাঁদা তোলার কাজও চলছিল। তার আগেই নাগ জুয়েলার্সে দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়ে গেল।
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আব্দুল আউয়াল তার বিরুদ্ধে স্বর্ণ ব্যবসায়ী নেতাদের আনা অভিযোগের বিষয়ে বলেন, গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে স্বর্ণশিল্পী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে তার অফিসে ডেকে আনা হয়েছিল ঠিকই। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ছিল তারা অবৈধ স্বর্ণের ব্যবসা, অনুমতি ছাড়া এসিড ব্যবহার এবং চোরাই স্বর্ণ কেনেন। শুধুমাত্র এসব বিষয় জিজ্ঞাসা করা হয়। আমার সঙ্গে ছিল জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার (এনএসআই) সহকারী পরিচালক চৌধুরী আসিফ মনোয়ার। তাদের কাছে কোনো টাকা পয়সা চাওয়া হয়নি। তবে পরে এনএসআই কর্মকর্তা আসিফ কোনো টাকা চেয়েছিল কিনা সেটা আমার জানা নেই।
ঘটনা সম্পর্কে মানিকগঞ্জ পুলিশ সুপার মাহফুজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, আমি কাউকে ছাড় দেই না। যদি এই ঘটনার সঙ্গে পুলিশ কিংবা রাজনৈতিকসহ যে কেউ জড়িত থাকে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। তাদের অবশ্যই কোর্টে পাঠাবো। দুই পুলিশ কর্মকর্তার বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবগত করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, ডাকাতির সঙ্গে জড়িত আরো দুজনকে গ্রেপ্তার এবং লুট হয়ে যাওয়া আরো কিছু স্বর্ণালংকার উদ্ধার হয়েছে। তবে  তদন্তের স্বার্থে গ্রেপ্তারকৃত ডাকাতদের নাম প্রকাশ করা যাচ্ছে না। বাকিদেরও খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ধরা হবে।
ওদিকে এনএসআই-এর সহকারী পরিচালক চৌধুরী আসিফ মনোয়ার এখন স্ত্রী নিয়ে দেশের বাইরে অবস্থান করছেন। স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের কাছে দুই কোটি টাকা চাঁদা দাবির সময় হাতে লেখা বিশেষ টোকেন দিয়েছিলেন চৌধুরী আসিফ মনোয়ার। টোকেনে তার নাম, পদবি ও মোবাইল নম্বর ছিল। টোকেনের এক পাশে স্বর্ণ ব্যবসায়ী দুই নেতার স্বাক্ষরও রয়েছে। ওই টোকেনকে কেন্দ্র করে এখন রহস্য আরো জোরালো হয়ে উঠেছে।
 টোকেন সম্পর্কে স্বর্ণশিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক  রঘুনাথ বলেন, আমাদের কাছে ওই টোকেন দেয়া হয়েছিল যাতে চাঁদার টাকা জোগাড় হলে আমরা তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারি। টোকেনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের স্বাক্ষর কিভাবে এলো এ প্রসঙ্গে রঘুনাথ রায় বলেন, আমরা যখন পুলিশ সুপার মহোদয়কে বিষয়টি জানাই তখন পুলিশ সুপার আমাদের কাছে জানতে চান কে টাকা চেয়েছে। তখন তাকে টোকেনটি দেখালে তিনি সেটাতে আমাদের স্বাক্ষর নেন।
ওদিকে গত বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মানিকগঞ্জ শহরের স্বর্ণকারপট্টির নাগ জুয়েলার্সে সশস্ত্র ডাকাতি হয়। লুট হয়ে যায় প্রায় ৭০০ ভরি স্বর্ণালংকার। ওই দিন রাতে ব্যারিকেড দিয়ে ডাকাতদের একটি মাইক্রোবাস থামানো হলে ডাকাতদের সঙ্গে পুলিশের গুলিবিনিময় হয়। এসময় দুজন এসআইসহ চার পুলিশ সদস্য আহত হন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

যেভাবে উগ্রপন্থায় দীক্ষিত হয় আকায়েদ

স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় মেটাতে দারিদ্র্যসীমার নিচে ৫ শতাংশ পরিবার

তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটাকে হাইজ্যাক করে ফেলেছে

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ৬০০ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

আরো বেড়েছে দেশি পিয়াজের দাম

সময় চাইলেন ‘অসুস্থ’ বাচ্চু

ঢাকার আকাশে ঝড়ের ঘনঘটা

বিএনপির প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

বিএনপির বিজয় র‌্যালি

ব্যবহারে বংশের পরিচয়

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’