৬৫ বছর পর খুঁজে পেলেন...

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ২০ নভেম্বর ২০১৭, সোমবার
ছোট্টবেলায় বাবা-মায়ের সঙ্গে সময় কাটানোর সেই বাড়ি ৬৫ বছর পর খুঁজে পেলেন একুশে পদকপ্রাপ্ত বরেণ্য অভিনেত্রী দিলারা জামান। সেই বাড়ি খুঁজে পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। কারণ এর আগে বেশ কয়েকবার খোঁজার চেষ্টা করেও পাননি তা। কিন্তু এবার সেই বাড়ি অবশেষে খুঁজে পেয়ে ভীষণ আনন্দিত, আবেগতাড়িত তিনি। সাদাত হোসাইন দিলারা জামানকে নিয়ে একটি তথ্যচিত্র নির্মাণ করছেন।
যাতে এ অভিনেত্রীর ছোটবেলা থেকে এই বেলা পর্যন্ত সামগ্রিক বিষয় তথ্যচিত্রটিতে তুলে ধরা হবে।
তারই অংশ হিসেবে গেল সপ্তাহে যশোরের ষষ্ঠীতলা গিয়েছিলেন ১৯৪৭ সাল থেকে ১৯৫৩ সাল পর্যন্ত দিলারা জামানের স্মৃতিচারণ ধারণ করতে। যশোরে গিয়ে নিজের ছোটবেলার সেই হারানো বাড়ি না খুঁজে পেয়েই চলে আসছিলেন দিলারা জামান। কিন্তু হঠাৎ তুষার নামে একজন তাকে সেই বাড়ি খুঁজে দিলেন। বাবার চাকরির সুবাধে সেই বাড়িতে পরিবারের সঙ্গে ভাড়া থাকতেন দিলারা জামান। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তুষার সাহেবের কাছ থেকে ছোটবেলার হারানো সেই স্মৃতিবিজড়িত বাড়ি খুঁজে পেয়ে মনে হয়েছিল কোনো
দেবদূত এসে আমাকে সেই বাড়ি খুঁজে দিলেন। কারণ ছোট্টবেলার কত স্মৃতি যে জড়িত এই বাড়ি তা ভাষায় প্রকাশ করে বুঝাতে পারবো না। কত কিছু যে মনে পড়েছে আমার। ধন্যবাদ সাদাত হোসাইনকে, কারণ তিনি উদ্যোগ না নিলে আমাকে নিয়ে এমন তথ্যচিত্রও হতো না, ছোটবেলার বাড়িও খুঁজে পাওয়া হতো না। এই মুহূর্তে মনের ভেতর সেই খুঁজে পাওয়া বাড়িটিকে ঘিরে এক অন্যরকম সুখ কাজ করে-এটা আসলে ভাষায় প্রকাশের নয়। দিলারা জামান জানান, যশোরে থাকালীন তিনি ক্লাস ওয়ান এবং টু ‘মোমেন গার্ডেন স্কুল’-এ এবং থ্রি-ফোর পড়েছেন ‘গুরু ট্রেনিং স্কুল’-এ। দুটি প্রতিষ্ঠানেরই নাম পরিবর্তন হয়েছে। ১৯৫৪ সালে রাজধানীর বাংলাবাজার স্কুল এবং পরে ইডেন কলেজ থেকে অনার্স মাস্টার্স সম্পন্ন করেন তিনি। শিগগিরই দিলারা জামান চট্টগ্রামে যাবেন সাদাত হোসাইনের নির্মাণ চলতি তথ্যচিত্রের কাজে। সেখানে তিনি ‘অরিন্দম’ নাট্যদলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। এদিকে দিলারা জামান বর্তমানে কায়সার আহমেদের নির্দেশনায় ‘মহাগুরু’, শামীম জামানের ‘সবজান্তা শমসের’, মিজানুর রহমান আরিয়ানের ‘গল্পগুলো আমাদের’ ধারাবাহিকে নিয়মিত কাজ করছেন। সম্প্রতি প্রচার শেষ হলো তার অভিনীত আবু হায়াত মাহমুদ পরিচালিত ‘বৃষ্টিদের বাড়ি’ ধারাবাহিকটি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

যেভাবে উগ্রপন্থায় দীক্ষিত হয় আকায়েদ

স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় মেটাতে দারিদ্র্যসীমার নিচে ৫ শতাংশ পরিবার

তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটাকে হাইজ্যাক করে ফেলেছে

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ৬০০ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

আরো বেড়েছে দেশি পিয়াজের দাম

সময় চাইলেন ‘অসুস্থ’ বাচ্চু

ঢাকার আকাশে ঝড়ের ঘনঘটা

বিএনপির প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

বিএনপির বিজয় র‌্যালি

ব্যবহারে বংশের পরিচয়

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’