নাগরিক সমাবেশে বিপুল জনসমাগমের প্রস্তুতি

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৮ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:০৭
বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণের ঐতিহাসিক স্বীকৃতি উপলক্ষে নাগরিক সমাবেশ আজ। বঙ্গবন্ধুর এ ভাষণ দেয়ার স্মৃতিবিজড়িত স্থান রাজধানীর সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যানে আজ দুপুর আড়াইটায় এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান সমাবেশে সভাপতিত্ব করবেন। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য দেবেন বঙ্গবন্ধু কন্যা, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী 
শেখ হাসিনা। বিভিন্ন দেশের আরো ৭৭টি ঐতিহাসিক নথি ও প্রামাণ্য দলিলের সঙ্গে ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ ঢাকার তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে (বর্তমানে সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যান) বঙ্গবন্ধুর দেয়া ভাষণকে গত মাসের শেষদিকে ‘ডকুমেন্টারি হেরিটেজ’ হিসেবে ‘মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টার’- এ যুক্ত করে জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থা ইউনেস্কো। এ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ ৩রা নভেম্বর থেকে সপ্তাহব্যাপী বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন, বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ প্রচার, শোভাযাত্রাসহ নানা কর্মসূচি পালন করে।
আজ সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যানে এ নাগরিক সভার আয়োজন করা হয়েছে। আজকের সমাবেশকে সফল করতে ইতিমধ্যে প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে। সমাবেশে ব্যাপক লোকসমাগম হবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। সমাবেশে আলোচনা ছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, কবিতা পাঠের আয়োজন থাকছে।
নাগরিক সমাবেশের আয়োজনের প্রস্তুতি দেখতে গতকাল সকালে সোহ্‌রাওয়ার্দী উদ্যানের সমাবেশ মঞ্চে আসেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজকের নাগরিক সমাবেশ কোনো পাল্টাপাল্টি রাজনৈতিক সমাবেশ নয় বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এই সমাবেশ হবে তাদের, যারা বাংলাদেশের স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী, যারা বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসে। যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে, তারাই এ সমাবেশে উপস্থিত হবেন। আমরা আশা করছি এ নাগরিক সমাবেশ হবে স্মরণকালের সবচেয়ে বড় সমাবেশ। চারদিকে অভূতপূর্ব সাড়া পাচ্ছি। ওবায়দুল কাদের বলেন, নাগরিক সমাবেশ বিএনপির সঙ্গে পাল্টাপাল্টি ধরনের কোনো সমাবেশ নয়। আর আওয়ামী লীগ বিএনপির সঙ্গে পাল্টাপাল্টি কোনো ধরনের কর্মসূচি পালন করে না। বিএনপির ১২ই নভেম্বরের সমাবেশের অনেক আগেই এ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপিই নাগরিক সমাবেশকে ফলো করে পাল্টাপাল্টি সমাবেশ করেছে। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, দলের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ কে এম এনামুল হক শামীম, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

golamgopal

২০১৭-১১-১৮ ০৪:১৪:০৮

আওয়ামী শোডাউনে বাসগাড়ি বাড়িয়ে দেওয়ার জন্যে মালিক পক্ষকে ঠিকমতো নির্দেশ দেওয়া হয়েছে?বিএনপির সমাবেশের মতো যান চলাচল বন্ধ থাকবেনাতো?

আপনার মতামত দিন

ভারতে তিন তালাক বিরোধী খসড়া আইনে সরকারের অনুমোদন

বিরোধীরা আসলেই কাগুজে বাঘ: মোজাম্মেল হক

গাংনী বিএনপি কার্যালয়ে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ

মহান বিজয় দিবস আজ

চট্টলার সিংহপুরুষের বিদায়

রাজধানীতে বৃদ্ধা ও শিশু খুন

বাংলাদেশ জন্ম নিয়েছিল একটা আদর্শ নিয়ে

সবক্ষেত্রে চাই গুণগত সেবা

বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ হতে পারে স্পেন!

কাদের-মওদুদকে ঘিরেই স্বপ্ন দু’দলের

শেষমুহূর্তে তৎপর বিএনপি

ট্রাম্প প্রশাসনের ধর্মীয় পক্ষপাতিত্ব

ইউপিডিএফ ভাঙার নেপথ্যে

মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে দুইয়ে শেখ জামাল

সারা দেশে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি ১৮ ডিসেম্বর

যেভাবে অপহরণকারীদের হাত থেকে মুক্ত হলেন সিলেটের ব্যবসায়ী মুন্না