রাজশাহী কিংসের প্রতিশোধ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৮ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:৩৮
সিলেটের মাঠে হারের প্রতিশোধ নিলো রাজশাহী। ৭ই নভেম্বর প্রথম দেখায় সিলেটের কাছে ৩ রানে হেরেছিল রাজশাহী। ওই খেলায় আসরের সর্বোচ্চ ২০৫ রান তুলেছিল সিলেট সিক্সার্স। গতকাল ফিরতি খেলায় রাজশাহী ৭ উইকেটে হারালো সিলেটকে। ১৫ বল হাতে রেখেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় ড্যারেন স্যামির দল।
তরুণ জাকির হাসান আর অভিজ্ঞ মুশফিকুর রহীমের দৃঢ়তার কাছে হার মানলো সিলেট। ৯৭ রানে মুমিনুল হক আউট হলে একটু চাপে পড়ে রাজশাহী।
কিন্তু জাকির আর মুশফিকের ৫০ রানের জুটি দলকে সহজ জয় পাইয়ে দেয়। জাকির ২৬ বলে ৫১ রান করে অপরাজিত থাকেন। চারটি চার আর তিনটি ছক্কা হাঁকান তিনি। একেএস বিপিএলের এ আসরে মুমিনুলের পর জাকিরই বাংলাদেশের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান যিনি ফিফটি পেলেন। ১১ টি-২০ ম্যাচে এই জাকিরের প্রথম ফিফটি। অবশ্য রাতে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ফিফটি পান এনামুল হক বিজয়। মুশফিক অপরাজিত থাকেন ২০ বলে ২৫ রান করে। তিনি মাত্র তিনটি চার মারেন। পাঁচ খেলায় এটি রাজশাহীর দ্বিতীয় জয়। এতে তারা উঠে এলো পাঁচ নম্বরে। আর সিলেটের পয়েন্ট ৭ খেলায় ৭।
‘টেস্ট’ ব্যাটসম্যান মুমিনুল হকের দাপটেই দারুণ শুরু করে রাজশাহী কিংস। সিলেটের ১৪৬ রানের জবাবে ৫ ওভারে বিনা উইকেটে ৩৬ রান তুলে ফেলে তারা। মুমিনুল ও রনি তালুকদার সিলেটের বোলিংকে থোরাই কেয়ার করেন। ফিফটি করার আশা জাগিয়েছিলেন মুমিনুলও। ১০০ রান থেকে তিন রান দূরে থাকতে তৃতীয় উইকেট হারায় রাজশাহী। বল তার ব্যাটে লেগেছিল কিনা তা নিয়ে সংশয় ছিল। ফিল্ডাররাও আবেদন করেননি। কিন্তু আম্পায়ার আঙুল তুলে দিলেন। মুমিনুল আউট ৪২ রান করে। ৩৬ বলে এ রান করেন তিনি পাঁচ চার আর এক ছক্কায়। এটি এ আসরে তার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ। এর আগে ৬৩ রান করে অপরাজিত ছিলেন তিনি।
মুমিনুল যখন খেলছিলেন তখন সিলেটের কোনো আশা দেখাচ্ছিল না। কিন্তু হঠাৎ দুই উইকেট তুলে নিয়ে সিলেট সিক্সার্স ফেরার আশা জাগিয়েছিল। মুমিনুল-রনির ৬৫ রানের উদ্বোধনী জুটির পর এক রানের ব্যবধানে দুই উইকেট হারায় রাজশাহী। প্রথমে রনি ২২ বলে ২৪ রান করে নাসির হোসেনের বলে স্টাম্পড হন। ডাউন দ্য উইকেটে মারতে গিয়ে খেসারত দেন তিনি। এরপর নাবিল সামাদের বলে ফিরে যান অফফর্মে থাকা সামিত প্যাটেল। ১০ ওভার শেষে রাজশাহীর সংগ্রহ ছিল ৭১/২।
বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগে শুক্রবার দিনের প্রথম খেলায় সিলেট সিক্সার্স সংগ্রহ করে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান। ১৩.২ ওভারে ৭১ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর সাব্বির ও ব্রেসনান ৬.২ ওভারে ৬৯ রান যোগ করেন। টসে জিতে রাজশাহী কিংসের অধিনায়ক ড্যারেন স্যামি সিলেটকে ব্যাটিংয়ে পাঠান। দুই ওপেনার আন্দ্রে ফ্লেচার ০ রানে পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ সামির আর উপুল থারাঙ্গা ১০ রান করে মেহেদী মিরাজের শিকার হয়ে ফিরে গেলে চাপে পড়ে সিলেট। পরে গুনাতিলাকা ৪০ রান করেন ৩৭ বলে। এরপরে সাব্বির ৪ ছক্কা আর এক চারে ২৬ বলে ৪১ রান করেন। আগের পাঁচ খেলায় ২১ রান করেছিলেন সাব্বির। আর ইংরেজ ব্যাটসম্যান টিম ব্রেসনান ১৭ বলে ২৯ রান করে অপরাজিত থাকেন। রাজশাহীর কেসরিক উইলিয়ামস দুটি ও সামি, মিরাজ, ফ্রাঙ্কলিন ও প্যাটেল একটি করে উইকেট পান।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

যেভাবে উগ্রপন্থায় দীক্ষিত হয় আকায়েদ

স্বাস্থ্যসেবার ব্যয় মেটাতে দারিদ্র্যসীমার নিচে ৫ শতাংশ পরিবার

তারা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসটাকে হাইজ্যাক করে ফেলেছে

কুয়ালালামপুর বিমানবন্দর থেকে ৬০০ কর্মকর্তা প্রত্যাহার

আরো বেড়েছে দেশি পিয়াজের দাম

সময় চাইলেন ‘অসুস্থ’ বাচ্চু

ঢাকার আকাশে ঝড়ের ঘনঘটা

বিএনপির প্রচারণায় বাধার অভিযোগ

বিএনপির বিজয় র‌্যালি

ব্যবহারে বংশের পরিচয়

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’