একজন ফিরোজার জীবন কাহিনী

এক্সক্লুসিভ

তামান্না মোমিন খান | ১৮ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:০১
‘এই পান-সিগারেট। পান- সিগারেট। লন...।’ নারী কণ্ঠের এমন আওয়াজ শুনে থমকে দাঁড়ায় লোকজন। কেউ দেখে এগিয়ে যান। আবার কেউ পান কিংবা সিগারেট কেনেন। এ পথ থেকে ও পথ, এ মোড় থেকে ওই মোড় ঘুরে বেড়ান ফিরোজা বেগম।
ফেরি করে নারীর পান- সিগারেট বিক্রি করা তার পরিবারও মেনে নেয়নি। তাই তাকে ঘরও ছাড়তে হয়েছে। লিকলিকে গায়ের গড়ন। পরনে সালোয়ার কামিজ। ওড়না দিয়ে মাথা ঢাকা থাকে সবসময়। আর গলায় ঝুলানো বাক্সে থাকে পান-সিগারেট থরে থরে সাজানো। মেয়ে হয়ে কেন এই কাজ বেছে নিলেন? জানতে চাইলে ফিরোজা বলেন- পুরুষেরা এই কাজ করতে পারলে মেয়েরা কেন পারবে না। আমি তো কোনো অন্যায় করতাছি না। কষ্ট কইরা আয় করি। ফিরোজার বাড়ি ভোলার চরফ্যাশনে। অভাবের তাড়নায় কয়েক বছর আগে ভাইদের সঙ্গে ঢাকায় আসেন। ভাইদের সঙ্গে মিরপুরে একটা বাসায় ভাড়া থাকতেন। ভাইরা চাইতো সে যেন বাসাবাড়িতে কাজ করে। কিন্তু বন্দি জীবন ভালো লাগে না তার। কিছু টাকা জমিয়ে পান-সিগারেট কিনে ট্রেতে করে বিক্রি করা শুরু করে সে। ভাইদের এ কাজে সম্মতি ছিল না। তারপরও ভাইদের কথা না শুনে এ কাজ করতে থাকে ফিরোজা। এক পর্যায়ে ভাইরা বাড়ি থেকে বের করে দেয় তাকে। এরপর থেকে ফিরোজার ঠিকানা কখনো কাওরান বাজার তরকারির আড়ত আবার কখনো ফুটপাথে। সারাদিন ঘুরে ঘুরে পান-সিগারেট বিক্রি করে আর রাতে কাওরান বাজার আড়তে গিয়ে ঘুমায়। আবার কখনো ফুটপাথেই ঘুমিয়ে পড়ে। ফিরোজা বলেন, আমার পুঁজি বলতে এই পান-সিগারেটের ট্রেটাই। এটাই গলায় ঝুলিয়ে ঘুরি আবার এটা নিয়েই ঘুমাই। দিনে তিন থেইক্যা চারশ’ টাকা বেচতে পারি। তবে প্রতিদিন বেচি না। যেদিন মন চায় সেদিন বেচি। কোনোখানে সমাবেশ, মিছিল-মিটিং হইলে সেইখানে গিয়া বেচি। আমার একখানে বেশিক্ষণ মন টেকে না। ত্রিশ বছর বয়সী ফিরোজা অবিবাহিত। বিয়ে-শাদীতে আগ্রহ নাই তার। ফিরোজা বলেন, বিয়া করণের কোনো ইচ্ছা আমার নাই। আমি একা আছি। ভালো আছি। মজিদ ফিরোজার কাছ থেকে নিয়মিত পান-সিগারেট কেনেন। মজিদ বলেন, ‘আমি সব সময় আপার কাছ থেইক্যা পান- সিগারেট কিনি। টাকা দিবার না পারলে বাকিতে অনেক সময় পান- সিগারেট দেয়।’

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ভারতে তিন তালাক বিরোধী খসড়া আইনে সরকারের অনুমোদন

বিরোধীরা আসলেই কাগুজে বাঘ: মোজাম্মেল হক

গাংনী বিএনপি কার্যালয়ে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ

মহান বিজয় দিবস আজ

চট্টলার সিংহপুরুষের বিদায়

রাজধানীতে বৃদ্ধা ও শিশু খুন

বাংলাদেশ জন্ম নিয়েছিল একটা আদর্শ নিয়ে

সবক্ষেত্রে চাই গুণগত সেবা

বিশ্বকাপে নিষিদ্ধ হতে পারে স্পেন!

কাদের-মওদুদকে ঘিরেই স্বপ্ন দু’দলের

শেষমুহূর্তে তৎপর বিএনপি

ট্রাম্প প্রশাসনের ধর্মীয় পক্ষপাতিত্ব

ইউপিডিএফ ভাঙার নেপথ্যে

মুক্তিযোদ্ধাকে হারিয়ে দুইয়ে শেখ জামাল

সারা দেশে বিএনপির প্রতিবাদ কর্মসূচি ১৮ ডিসেম্বর

যেভাবে অপহরণকারীদের হাত থেকে মুক্ত হলেন সিলেটের ব্যবসায়ী মুন্না