ইতালিতে শোকের ছায়া

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৫ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার
চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের কাঁদিয়ে রাশিয়া বিশ্বকাপের টিকিট নিশ্চিত করেছে সুইডেন। সোমবার রাতে নিজেদের মাঠে সুইডেনের জালে কোনো বল জড়াতে পারেনি আজ্জুরিরা। এতেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে যায় ইতালির। রেফারি আন্তনিও মাতেউ লাহজ শেষ বাঁশি বাজানোর সঙ্গে সঙ্গে ইতালির খেলোয়াড়দের অনেকেই মাঠে শুয়ে পড়েন। বুফন অশ্রু সংবরণ করতে পারছিলেন না। বাছাইপর্বের প্লেঅফের প্রথম খেলায় নিজেদের মাঠে সুইডেন ১-০ গোলে হারিয়েছিল ইতালিকে।
১৯৫৮ সালে পর এই প্রথম ইতালিকে দেখা যাবে না বিশ্বকাপের মূলপর্বে। বিশ্বকাপে চারবার শিরোপা জেতা ছাড়াও দুবার রানার্স আপ আর একবার করে তৃতীয় ও চতুর্থ হয় ইতালি।
ইতালিকে ছাড়া বিশ্বকাপ! এটা বিশ্বের ফুটবল প্রেমিদের জন্যই বিস্ময়কর। তাহলে ভাবুন ইতালিয়ানদের অবস্থাটা কী হবে বিশ্বকাপ চলার সময়। ইতালির শতবর্ষী ক্রীড়া দৈনিক লা গেজেত্তা দেল্লো স্পোর্ট শিরোনাম দিয়েছে- আপোকালিপসে যার অর্থ যন্ত্রণাদায়ক দিনের সূচনা বা ইঙ্গিত। ওই প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে আমরা তোমাদের সঙ্গে থাকছি না। তোমরাও আমাদের সঙ্গে থাকবে না। ভালোবাসাটা অন্য কোনো জিনিসের জন্যই সংরক্ষণ থাকুক। ইতালি এবারের বিশ্বকাপে থাকছে না এটাই এখন বাস্তবতা। তবে জুন মাসে কী করবো আমরা এটা এখনই ভাবতে হবে আমাদের: নাটক, সিনেমা ও গ্রাম্য উৎসব অনেক ধরনের আয়োজন করা যেতে পারে। বিশ্বকাপে সুইডেনের খেলা দেখা যে কোনো কিছুর চেয়ে আমাদের জন্য বেদনার হবে।
ইতালির লক্ষ্য এখন ২০২০ ইউরো কাপের জন্য তৈরি হওয়া। এক ঝাঁক নতুন খেলোয়াড় নিয়ে তাদের নতুনভাবে শুরু করতে হবে।
সান সিরোর এ খেলায় ৭৬ ভাগ সময় বল নিজেদের পায়ে রেখেও সুইডিশদের পরাস্ত করতে পারেনি ইতালিয়ানরা। ২০ বার তারা শট নেয় গোলমুখে। কিন্তু তাতে একটি গোলও হয়নি। একবার সুযোগ এসেছিল। কিন্তু বদলি স্টিফান আল শারাউইর শটটি সুইডিশ গোলরক্ষক রবিন ওলসেন ফিরিয়ে দেন। স্ট্রাইকার সিরো ইম্মোবাইল বেশ কয়েকটি সুযোগ নষ্ট করেন। তার একটি শট গোল লাইন থেকে ফিরিয়ে দেন সেন্টার ডিফেন্ডার আন্দ্রিয়াস গ্রাঙ্কভিস্ত।
সুইডিশরা ড্র করার জন্য মরিয়া হয়ে রক্ষণাত্মক খেলে এবং তাতেই সফলতা পায়। বক্সের মধ্যে তাদের ছয়জন ডিফেন্ডার ব্যস্ত ছিল সবসময়। তারা মোট ৫৬ বার বল বিপদমুক্ত করে। ইতালি যেবার সর্বশেষ বিশ্বকাপ জেতে সেই ২০০৬ সালে সুইডেন সর্বশেষ বিশ্বকাপ খেলেছিল। এরপর জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের মতো স্ট্রাইকার পেলেও সুইডেন বিশ্বকাপ খেলতে পারেনি। আর ৬০ বছর আগে যেবার ইতালি বিশ্বকাপ খেলতে পারেনি সেবার আয়োজক ছিল এই সুইডেন। আর তাতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল পেলের ব্রাজিল।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

saleh ahmed

২০১৭-১১-১৫ ০১:৪১:৪৫

ইতালি ছাড়া world cup. ভাবতে খারাপ লাগে।

আপনার মতামত দিন

‘দোষ প্রমাণ হলে ব্যবস্থা’

দুই পাণ্ডার পরিবেশ বান্ধব বিমানযাত্রা

এমপি তাপসের আশ্বাসে অবরোধ প্রত্যাহার করলেন ব্যবসায়ীরা

‘মামলা প্রত্যাহার না করলে নির্বাচন করতে দেয়া হবে না’

চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে দুই পা হারালেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র

সৌদি আরবে সড়ক দুর্ঘটনায় ৩ বাংলাদেশী সহ নিহত ৯

‘সরকার ব্যর্থ হলে বিএনপিই দাবি পূরণ করবে’

সিরিয়ায় প্রবেশ করেছে তুরস্কের স্থলবাহিনী

‘অভিযোগের ভিত্তিতেই শিক্ষামন্ত্রীর পিওসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার’

চা: একটি শব্দের ইতিবৃত

ছুরিকাঘাতে এক রোহিঙ্গা নিহত

‘পদ্মাবত’ ছবি নিয়ে উত্তেজনা

কাল শুরু রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন, উদ্বেগ-অভিযোগ

স্মৃতি ফেরাতে ৫৫ বছর পর ফের বিয়ে! দেখুন ভিডিওসহ

আগামীকাল আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

রংপুরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১