মিয়ানমারের সঙ্গে সীমান্ত বাহিনী প্রধান পর্যায়ের বৈঠক শুরু

দেশ বিদেশ

কূটনৈতিক রিপোর্টার | ১৫ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার
মিয়ানমারের সঙ্গে সীমান্ত বাহিনী প্রধান পর্যায়ের বৈঠক শুরু হয়েছে। দেশটির রাজধানী নেপি’ডতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এবং মিয়ানমারের সীমান্ত দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত পুলিশ ফোর্সের মধ্যকার  চারদিনের বৈঠকটি চলবে আগামী ১৮ই নভেম্বর পর্যন্ত। ঢাকায় বিজিবি সদর দপ্তর জানিয়েছে, মঙ্গলবার নেপি’ডর স্থানীয় সময় দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে বৈঠকের সূচনা হয়। এতে বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন ১৪ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। সেখানে মিয়ানমার পুলিশের চিফ অব পুলিশ জেনারেল স্টাফ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মায়ো সুয়ি উইন দেশটির ১৫ সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্বে রয়েছেন। গত আগস্ট থেকে রোহিঙ্গা অধ্যুষিত মিয়ানমারের উত্তর-পশ্চিমের রাজ্য রাখাইনে উগ্রপন্থিদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান চালাচ্ছে বর্মী বাহিনী।
সেখানে চলমান বর্বরতা থেকে প্রাণে বাঁচতে ৬ লাখের বেশি মিয়ানমার নাগরিক পালিয়ে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। এখনো রোহিঙ্গা স্রোত অব্যাহত রয়েছে। বিশ্বের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ওই জনগোষ্ঠীর বিশাল সংখ্যক নারী, শিশু ও পুরুষের একসঙ্গে বাস্তুচ্যুত হওয়া নিয়ে সীমান্তের দু’পাড়েই চরম মানবিক সংকট বিরাজ করছে। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এই প্রথম বিজিবি এবং মিয়ানমার পুলিশ ফোর্সের (এমপিএফ) প্রধানরা আলোচনায় বসছেন। ঢাকার কর্মকর্তারা বলছেন, চলমান  রোহিঙ্গা সংকটের মধ্যে মিয়ানমার বাহিনীর হেলিকপ্টার বেশ কয়েকবার আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে। বিষয়টি নিয়ে বিজিবি এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তরফে দফায় দফায় প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। এবারের বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে আলোচনা এবং প্রতিবাদ জানানো হবে। তাছাড়া, বৈঠকে মিয়ানমারের  রোহিঙ্গা সমপ্রদায়ের লোকজনের সীমান্ত পাড়ি দেয়ার মতো ঘটনাগুলো অর্থাৎ রাখাইনে সহিংসতা বন্ধের তাগিদ দেবে ঢাকা। এদের সীমান্ত পাড়ি দেয়ার কারণে কি কি সমস্যা হচ্ছে, তাও জানাবে বাংলাদেশ। বিজিবি তার আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, সীমান্ত রক্ষীবাহিনী পর্যায়ের শীর্ষ বৈঠকে সীমান্ত লঙ্ঘন, অনুপ্রবেশ, সীমান্ত এলাকায় নির্বিচারে গুলি চালানো, সীমান্তে সামরিক বাহিনীর চলাচল, মাইন স্থাপন, পুঁতে রাখা মাইন ও বিস্ফোরক অপসারণ নিয়ে কথা হবে। বিজিবি জানায়, শীর্ষ বৈঠকে অংশ নিতে সোমবার দুপুরে বিজিবি মহাপরিচালক  এবং প্রতিনিধি দলের অন্য সদস্যরা মিয়ানমারের উদ্দেশে রওনা দেন। বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলে বিজিবি ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর, কোস্টগার্ডের কর্মকর্তারা রয়েছেন। অন্যদিকে মিয়ানমার প্রতিনিধিদলে মিয়ানমার পুলিশ ফোর্স (এমপিএফ) এবং বর্ডার গার্ড পুলিশের (বিজিপি) ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা, সে দেশের পররাষ্ট্র, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়, মাদক ও কাস্টম বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা রয়েছেন। সম্মেলনের পাশাপাশি মিয়ানমারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এবং চিফ অব মিয়ানমার পুলিশ  ফোর্সের সঙ্গে বিজিবি মহাপরিচালকের সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রবি-সোমবার সব সরকারি কলেজে কর্মবিরতি

‘বিএনপি নির্বাচনে না আসলে অস্তিত্ব সংকটে পড়বে’

আনন্দ শোভাযাত্রার রুট ম্যাপ দেখে চলাচলের অনুরোধ ডিএমপির

‘হাইকোর্টে রুল নিষ্পত্তি না হওয়ায় আমারদেশ প্রকাশে বিলম্ব হচ্ছে’

সমঝোতা স্বাক্ষরের পরও রোহিঙ্গারা প্রবেশ করছে

কাউন্টারে টিকেট নেই, দ্বিগুণ দামে মিলছে ফেসবুকে!

৭ই মার্চের ভাষণের ইউনেস্কো স্বীকৃতি সরকারিভাবে উদযাপন আগামীকাল

‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য প্রমাণ করে তারা গুমের সঙ্গে জড়িত’

শপথ নিলেন মানাঙ্গাগওয়া

বাণিজ্য, জ্বালানী ও যোগাযোগ খাতে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা

‘বিএনপির ভোট পাওয়ার মতো এমন কোনো কাজের নিদর্শন নেই’

তাজরীন ট্র্যাজেডির ৫ বছর, শেষ হয়নি বিচার

দুই দফা জানাজা শেষে নেত্রকোনার পথে বারী সিদ্দিকীর মরদেহ

রোহিঙ্গা ফেরতের চুক্তি ‘স্টান্ট’: এইচআরডব্লিউ

‘আমি হতবাক’

ডাক্তাররা বেশ প্রভাবশালী ও তদবিরে পাকা: স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী