সরকার জোর করে প্রধান বিচারপতিকে সরিয়ে দিয়েছে: রিজভী

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম থেকে | ১৫ নভেম্বর ২০১৭, বুধবার
উত্তরাঞ্চলের কয়েকটি জেলা ধ্বংসের প্রান্তে চলে এসেছে। সরকারের নির্লিপ্ততায় এখানকার সংকট আরো বাড়বে। কুড়িগ্রামে এক ধরনের দুর্ভিক্ষপীড়িত বা মঙ্গা অবস্থা বিরাজ করছে। এবারের প্রবল বন্যায় এর মাত্রা আরো বেড়েছে। সরকার এসব মোকাবিলা ও এই অঞ্চলের উন্নয়নে ব্যর্থ হয়েছে। এই এলাকার ক্ষুধাপীড়িত দরিদ্র অসহায় মানুষের কর্মসংস্থান ও আহারের বিষয়টি সরকার দেখবে।
মঙ্গলবার সকালে কুড়িগ্রাম শহরের সরদারপাড়াস্থ নিজস্ব বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এসব কথা বলেন। ষোড়শ সংশোধনী নিয়ে তিনি আরো জানান, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে স্বয়ং নির্বাহী বিভাগ ও তার প্রধান ক্ষুব্ধ হয়েছেন। ক্রুদ্ধ হয়ে তখন থেকেই বিচার বিভাগের উপর গুণ্ডামি শুরু করেছে। দেশের গণতন্ত্রের ন্যূনতম অস্তিত্বটুকু নিশ্চিহ্ন করা হয়েছে। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে প্রথমে জোর করে ছুটি নিতে বাধ্য করেছে এবং গুণ্ডামি করে সরকার প্রধান বিচারপতিকে অবসরে যেতে বাধ্য করে। এই সরকার নির্দয়, নিষ্ঠুর ও ফ্যাসিবাদী সরকার। এখানে একজনের স্বাধীনতা অবাধ। তিনি রাষ্ট্রের প্রত্যেকটি অঙ্গের উপরে সর্বপ্রধান হিসেবে কাজ করতে চান।
আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা নির্বাচনে যাবো, তবে নির্দলীয় সরকারের অধীনে। শেখ হাসিনার অধীনে বিএনপি নির্বাচনে যাবেও না, নির্বাচন করতেও দিবে না। দেশের জনগণকে নিয়ে তা প্রতিহত করা হবে। কেননা বর্তমান সরকার ভোটারবিহীন সরকার। তারা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারবে না। তার আমলে নির্বাচন মানেই শেখ হাসিনা নির্বাচন বা ফেরি মার্কা নির্বাচন। রাত তিনটার সময় ব্যালট বাক্স পূরণ হয়ে যাবে। আর রাজনৈতিক বিরোধী প্রার্থীরা মনোনয়ন জমা দিতে পারবে না। সংবাদ সম্মেলনে এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাইফুর রহমান রানা, সহ-সভাপতি মোস্তাফিজার রহমান ও শফিকুল ইসলাম বেবু, যুগ্ম সম্পাদক সোহেল হোসনাইন কায়কোবাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক নুর ইসলাম নুরু, জেলা মহিলা দলের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট রেহেনা খানম বিউটি, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক নাদিম আহমেদ, পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর বিপ্লব প্রমুখ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘আপাতত ভাত-রুটি থেকে দূরে আছি’

মা ও ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করলো যুবক

দেখা হলো কথা হলো

দল থেকে বহিষ্কার মুগাবে

‘রোহিঙ্গাদের নির্যাতন যুদ্ধাপরাধের শামিল’

আন্ডা-বাচ্চা সব দেশে, বিদেশে কেন টাকা পাচার করবো

জেনেভায় বাংলাদেশের পক্ষে থাকবে জাপান

প্রেমিকের সঙ্গে পালাতে গিয়ে কিশোরী ধর্ষিত

আসামি ‘আতঙ্কে’ সিলেটে আওয়ামী লীগ নেতারা

ত্রাণসামগ্রী বিক্রি করছে রোহিঙ্গারা

ভারতের সঙ্গে সম্প্রীতি নষ্ট করতেই রংপুরে সংখ্যালঘুদের ওপর হামলা

সময় হলে বাধ্য হবে সরকার

কানাডার উন্নয়নমন্ত্রী আসছেন মঙ্গলবার

ব্যক্তির নামে সেনানিবাসের নামকরণ মঙ্গলজনক হবে না: মওদুদ

কায়রোয় আরব নেতাদের জরুরি বৈঠক

পুলিশি জেরার মুখে নেতানিয়াহু