টঙ্গীতে মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, টঙ্গী থেকে | ১৪ নভেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার
 টঙ্গীতে দেলোয়ার হোসেন (৪২) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল দুপুরে নিহতের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে ২ জনকে আটক করেছে পুলিশ। নিহত দেলোয়ার বাড়ি টাঙ্গাইল জেলার দেলদুয়ার থানার পাকুল্লা গ্রামে। তিনি খাঁ পাড়া এলাকার ফজিলত বেগমের বাড়িতে বাসায় ভাড়া নিয়ে একাই থাকতেন। তার স্ত্রী ও সন্তানরা থাকতেন এরশাদনগর এলাকার ১নং ব্লকে।
পুলিশ জানায়, গত রোববার মধ্যরাতের পর দুর্বৃত্তরা দেলোয়ারকে পেটে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাতে খুন করে ঘরে ফেলে রাখে। ছুরিকাঘাতে তার নাড়িভুঁড়ি বেরিয়ে আসে। এছাড়াও নিহতের মাথা ও নাকে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। হত্যাকাণ্ডের পর দুর্বৃত্তরা ঘরের দরজা বাহির থেকে তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায়।
গতকাল বেলা ১২টার দিকে দরজার ফাঁকা দিয়ে পার্শ্ববর্তী ভাড়াটিয়া আয়েলা বেগম তার পাশের কক্ষের ভাড়াটিয়া দেলোয়ারের রক্তাক্ত নিথরদেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেয়। খবর পেয়ে টঙ্গী থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পরে হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে দেলোয়ারের পূর্ব পরিচিত ইজিবাইক চালক আশরাফুল (২৫) ও তার স্ত্রী জেসমিনকে (২১) আটক করে।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে টঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ফিরোজ তালুকদার জানান, নিহত ওই দেলোয়ার পেশায় একজন মাদক ব্যবসায়ী ছিল।
সে তার প্রতিপক্ষের চাপের মুখে এরশাদনগরের বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকতে পারতো না। গত ৫ দিন আগে তার স্ত্রী জয়তুন নেছা খাঁ পাড়ার ওই বাড়িতে বাসা ভাড়া নিয়ে দেয়। সে ওই বাসায় একাই থাকতো। হয়তো মাদক ব্যবসার ভাগ বাটোয়ারা বা আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটতে পারে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন