লাউয়াছড়ায় যুক্ত হচ্ছে চিত্রা হরিণ

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ২৩ অক্টোবর ২০১৭, সোমবার
লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানে পরীক্ষামূলকভাবে চিত্রা হরিণ ছাড়ার বিষয়ে পরিকল্পনা ও প্রাথমিক কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। এ বনে অন্যান্য প্রাণীর সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে চিত্রা হরিণ।
বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের মৌলভীবাজার কার্যালয় সূত্র জানায়, সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান লাউয়াছড়ায় চিত্রা হরিণ ছাড়ার বিষয়টি প্রথম চিন্তা-ভাবনা করেন এবং বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মিহির কুমার দো-কে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি সম্মতি দেন। বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান জানান, দেশের শ্রেষ্ঠ রেইন ফরেস্ট লাউয়াছড়া বর্ষারণ্যে চিত্রা হরিণ বসবাসের উপযোগী। এখানে আগে থেকেই মায়া হরিণ বসবাস করছে। তিনি জানান, চিত্রা হরিণ বসবাসের জন্য লাউয়াছড়ায় সব উপাদান বিদ্যমান রয়েছে।
লাউয়াছড়ার আবাসস্থল, খাদ্য, আবহাওয়া ও পরিবেশ চিত্রা হরিণের জন্য খুবই উপযোগী বলে জানালেন বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান। পরিকল্পনা অনুযায়ী লাউয়াছড়ার জানকিছড়ায় রেসকিউ সেন্টার সংলগ্ন ৩০ শতক জায়গা নির্বাচন করা হয়েছে।

এ স্থানটি আপাতত পরীক্ষামূলকভাবে চিত্রা হরিণের আবাসস্থল হিসেবে গড়ে তোলা হবে এবং ২-৩ জোড়া চিত্রা হরিণ অবমুক্ত করা হবে। পরীক্ষামূলক চিত্রা হরিণের বসবাস সফল হলে পরে চিত্রা হরিণ লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যানের অভ্যন্তরে আনুষ্ঠানিক অবমুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছেন সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বলিউড ছবি নিয়ে ভারতে তোলপাড়, নিষেধাজ্ঞা নেই-সুপ্রিম কোর্ট

চকবাজারে ছুরিকাঘাতে যুবক নিহত

ভারতে স্বামীর সামনে স্ত্রীকে ধর্ষণ

দেশীয় অস্ত্রসহ আটক ৯ ডাকাত

রাজধানীতে মা-মেয়ের ‘আত্মহত্যা’

লন্ডনে ফিন্সবারি পার্ক মসজিদে হামলাকারী: 'যত বেশি সম্ভব মুসলিম মারতে চেয়েছি।'

সিএনজি চালক হত্যার ঘটনায় গ্রেপ্তার ২

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের অচলাবস্থার অবসান

নতুন নতুন পথ খুঁজছেন সুচি

দু’বছরের মধ্যে জেরুজালেমে দূতাবাস খুলবে যুক্তরাষ্ট্র

রোহিঙ্গা প্রত্যাবর্তন বিলম্বিত করার কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয় নি মিয়ানমারকে

শিক্ষামন্ত্রণালয়ের দুই কর্মচারী ও লেকহেড স্কুলের মালিকের বিরুদ্ধে মামলা

প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচন ১৯শে ফেব্রুয়ারি

ফেরত পাঠালে রোহিঙ্গারা ঝুঁকিতে পড়বে

একই রাতে মা ও ছেলের মৃত্যু

ধনী ১ শতাংশ মানুষের হাতে বিশ্বের ৮২ শতাংশ সম্পদ