পররাষ্ট্র ক্যাডারের কর্মকর্তাদের ক্ষমতা খর্ব হতে যাচ্ছে

এক্সক্লুসিভ

দীন ইসলাম | ২৩ অক্টোবর ২০১৭, সোমবার
পররাষ্ট্র ক্যাডারের কর্মকর্তাদের ক্ষমতা খর্ব হতে যাচ্ছে। শিগগিরই বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনগুলোর পদ সৃষ্টিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতামত নেয়ার বিধান রহিত করা হচ্ছে। এছাড়া শ্রম, প্রেস, ইকোনমিক, কমার্শিয়াল, পাসপোর্টসহ বিভিন্ন উইংয়ের আয় ও ব্যয় ওই সব উইংয়ে কর্মরত কর্মকর্তারাই তদারকি করার নির্দেশনাও যাচ্ছে। একই সঙ্গে প্রবাসী বাংলাদেশিদের সেবা দেয়ার বিনিময়ে পাওয়া আয় উইংভিত্তিক আলাদা একাউন্টে জমা করার নির্দেশনা আসছে। এরই মধ্যে এসব বিষয়ে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়। বিষয়গুলো নিয়ে গত বৃহস্পতিবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খানের সভাপতিত্বে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
সেবা সহজীকরণের লক্ষ্যে বিদেশস্থ বাংলাদেশ মিশনগুলোতে পদায়িত বিসিএস পররাষ্ট্র ক্যাডার এবং অন্যান্য ক্যাডার কর্মকর্তাদের মধ্যে আন্তঃসম্পর্ক ও সম্প্রীতি বাড়ানোর লক্ষ্যে করণীয় নির্ধারণ নিয়ে এ বৈঠক হয়। বৈঠকে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, অর্থ বিভাগ, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ ও জননিরাপত্তা বিভাগের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে উপস্থিত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক মহাপরিচালক বিষয়গুলো নিয়ে তীব্র আপত্তি জানিয়ে বলেন, এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হলে বিদেশে মিশনগুলোতে চেইন অব কমান্ড থাকবে না। মিশন প্রধান তার নেতৃত্ব দেয়ার ক্ষমতা হারাবেন। পৃথিবীর কোনো দেশের মিশনে এমন অবস্থা নেই। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার কার্যবিবরণী সূত্রে জানা গেছে, বিদেশে মিশনগুলোর সেবা সহজ করতে জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিবকে বেশকিছু নির্দেশনা দেন। মন্ত্রীর এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে সভাপতি করে একটি কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটি কিছু সুপারিশ/প্রস্তাবনা দিয়েছে। বৃহস্পতিবারের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন এমন এক কর্মকর্তা সূত্রে জানা গেছে, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে অতিরিক্ত সচিবের নেতৃত্বাধীন কমিটির ১০টি সুপারিশ নিয়ে আলোচনা হয়। কমিটির সুপারিশে বলা হয়েছে, সরকারের সচিব বা অতিরিক্ত সচিব পর্যায়ের কোনো কর্মকর্তা বা কোনো টিম সরকারি কাজে বিদেশ সফরে গেলে মিশন থেকে উপযুক্ত প্রতিনিধি তার বা তাদের সঙ্গে ন্যূনতম যোগাযোগ রাখবেন এবং প্রয়োজনীয় সহযোগিতা দেবেন। মিশনের উইংগুলোর জনবল কাঠামোর পদ সৃষ্টি প্রশাসনিক মন্ত্রণালয় বা বিভাগ সাধারণ নিয়ম অনুসরণ করে ঠিক করবে। পদ সৃষ্টির বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মতামত নেয়ার বিদ্যমান বিধান রহিত করা যেতে পারে। কমিটির প্রস্তাবনায় বলা হয়, বাংলাদেশ মিশনে হেড অফ চ্যান্সেরি হিসেবে পররাষ্ট্র ক্যাডারের জুনিয়র কর্মকর্তাকে পদায়ন করা হয়। তবে বিভিন্ন উইংয়ে সেবা প্রদানে নিয়োজিত অন্যান্য ক্যাডারের কর্মকর্তারা চাকরিতে অপেক্ষাকৃত সিনিয়র। তাই কমিটির সুপারিশে বলা হয়েছে, মিশনে নিয়োজিত কর্মকর্তারা বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিত্ব করেন। তাদের অনুকূলে আর্থিক বরাদ্দসহ বিভিন্ন কাজ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় নির্ধারণ করে দেয়। তাই উইং প্রধান হিসেবে প্রয়োজনীয় দাপ্তরিক নথি সিদ্ধান্তের জন্য সরাসরি মিশন প্রধানের কাছে উপস্থাপন করা যায়। মিশনের উইংগুলো তাদের প্রশাসনিক মন্ত্রণালয় বা বিভাগের বাজেট সংশ্লিষ্ট খাতে ব্যয়ের বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এজন্য উইং প্রধানরা আয়ন-ব্যয়ন কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করবেন ও দায়বদ্ধ থাকবেন। উইং প্রধানরা বাজেট ও আয়-ব্যয় সংক্রান্ত বিষয় নথি অনুমোদনের জন্য সরাসরি মিশন প্রধানের কাছে উপস্থাপন করবেন। এক্ষেত্রে অপারগতা বা ভিন্নমত পোষণ করলে উইং প্রধানরা প্রশাসনিক মন্ত্রণালয় বা বিভাগে সিদ্ধান্তের জন্য পাঠাতে পারবেন। এছাড়া মিশনে নিয়োজিত অন্যান্য ক্যাডারের কর্মকর্তাদের প্রটোকলের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়ার কথা বলা হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এসব সুপারিশ বা প্রস্তাবনা নিয়ে আলোচনা হয়। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জোরালোভাবে এসব প্রস্তাবের বিরোধিতা করে।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ekramul

২০১৭-১০-২৩ ০৬:৪১:১২

আসল কথা মিশনে প্রশাসন ক্যাডারের ক্ষমতা বাড়ানো, সব জায়গায় মাতব্বরি করায় হচ্ছে প্রশাসন ক্যাডারের কাজ। আর্মি রা মিশনে যায় জান মাল রক্ষার জন্য,কিন্তি সেখানেও প্রশাসন ক্যাডার। আমরা সব বুঝি বলতে পারিনা।

আপনার মতামত দিন

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরাম ৮ দিনের রিমান্ডে

টসে জিতে ফিল্ডিংয়ে রংপুর

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

শিক্ষিকা-ছাত্রের যৌন সম্পর্ক, অতঃপর...

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

ঈদে মিলাদুন্নবী নিয়ে চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ঢাকায় চীন-বাংলাদেশ বৈঠক শুরু

প্যারাডাইস পেপারসে শিল্পপতি মিন্টু ও তার পরিবারের নাম