কাতালানের শায়ত্তশাসন ও সরকার বাতিল

গ্রেপ্তার হতে পারেন স্বাধীনতা আন্দোলনের আঞ্চলিক প্রেসিডেন্ট

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২২ অক্টোবর ২০১৭, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৬:৪৮
কাতালোনিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা নিয়ে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। সেখানকার শায়ত্তশাসন বাতিল করেছে স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকার। বরখাস্ত করেছে কালোনিয়ার আঞ্চলিক সরকারকে। ওই সরকারের প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুইগডেমন্টকে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। এ জন্য তিনি আশ্রয় নিয়েছেন কাতালোনিয়ার পার্লামেন্টে। পার্লামেন্টের চতুর্দিকে তাকে রক্ষা করতে মানবঢাল রচনা করেছে তার সমর্থকরা।
ওদিকে কাতালোনিয়ায় স্পেনের কেন্দ্রীয় সরকারের সরাসরি শাসন মেনে নেবেন না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছেন কার্লেস পুইগডেমন্ট। এ অবস্থায় সেখানে চরম এক উত্তেজনা বিরাজ করছে। স্পেন সরকারের বাহিনী ও কার্লেস পুইগডেমন্টের স্বাধীনতাকামীদের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষের আশঙ্কা করা হচ্ছে। সমাজ বিজ্ঞানীরা বলছেন, চার দশকের মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ এক রাজনৈতিক সঙ্কটে ডুবতে যাচ্ছে স্পেন। স্পেনের মন্ত্রীপরিষদ শনিবার জরুরি বৈঠকে বসে কাতালোনিয়ার আঞ্চলিক সরকারকে বরখাস্ত করেছে। একই সঙ্গে সেখানে শায়ত্তশাসন বাতিল করে দেয়া হয়েছে। জারি করা হয়েছে কেন্দ্রীয় শাসন। এটা মেনে নেবেন না কাতালান নেতা কার্লেস পুইগডেমন্ট। তিনি বলেছেন, ১৯৩৯ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত কাতালোনিয়ার প্রতিষ্ঠানগুলোকে আক্রান্ত করেছিলেন স্বৈরাচার জেনারেল ফ্রাঁসোয়া। তার সেই আক্রমণের চেয়েও স্পেন সরকারের এই আক্রমণ ভয়াবহ। তিনি আরো বলেছেন, আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে কাতালান জনগণের গণতান্ত্রিক আশা আকাঙ্খার বিরুদ্ধে কাজ করছে স্পেন সরকার। স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় সরকারের এমন পরিকল্পনার জবাবে জরুরি ভিত্তিতে পার্লামেন্ট অধিবেশন ডাকার কথা তার। তিনি ইউরোপকে উদ্দেশ্য করে ইংরেজিতে দেয়া বক্তব্যে বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন যে মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠা করেছে তা ঝুঁকির মুখে রয়েছে কাতালোনিয়ায়। তিনি এ অবস্থায় যদি পার্লামেন্টের ভিতর থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা দিয়ে ফেলেন তাহলে তাকে স্পেনের সংবিধানের অধীনে বিদ্রোহ করার অপরাধে গ্রেপ্তার করা হতে পারে। আর সেক্ষেত্রে তাকে ৩০ বছর পর্যন্ত জেল দেয়া হতে পারে। এর আগেই কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোটকে অবৈধ বলে আখ্যায়িত করেছে স্পেনের সাংবিধানিক আদালত। স্পেন সরকার বলেছে, ১লা অক্টোবরের ওই গণভোট অসাংবিধানিক। নতুন সঙ্কটের সৃষ্টি হয়েছে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় সংবিধানের ১৫৫ নম্বর ধারা সক্রিয় করার পরে। এর অধীনে রোববার ভোর থেকে কাতালোনিয়ার শায়ত্তশাসন বাতিল হয়ে গেছে। ফলে অবৈধ হয়ে পড়েছে আঞ্চলিক সরকারের প্রেসিডেন্ট কার্লেস পুইগডেমন্ট ও তার মন্ত্রীপরিষদ। তারা সাংবিধানিকভাবে বরখাস্ত হয়েছেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে দ্রুত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

শিক্ষিকা-ছাত্রের যৌন সম্পর্ক, অতঃপর...

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

ঈদে মিলাদুন্নবী নিয়ে চাঁদ দেখা কমিটির সভা কাল

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

হারিরির সৌদি আরব ত্যাগ

ঢাকায় চীন-বাংলাদেশ বৈঠক শুরু

প্যারাডাইস পেপারসে শিল্পপতি মিন্টু ও তার পরিবারের নাম

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’