চির বসন্তের দেশে, ১০

২৬ নৃ-জাতিগোষ্ঠীর খোঁজে একদিন

চলতে ফিরতে

কাজল ঘোষ, চীন থেকে ফিরে | ১৫ অক্টোবর ২০১৭, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৫৯
চীন একেক সময় শাসন করতো একেক ডায়নেস্টি। বিভিন্ন শাসকগোষ্ঠী চীনের নানা অংশে নেতৃত্ব দিয়েছে। তাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি শোনা যায় মিং ডায়নেস্টি, চিং ডায়নেস্টির কথা। তারপর সং ডায়নেস্টি। মঙ্গোলিয়ানদের কথাও আলোচনায় আছে। চীনের বিশালাকৃতির ভূমির প্রায় ৭০ ভাগ পাহাড়।
আমরা কুনমিং শহর থেকে ত্বালি যাওয়ার পথে ৩০০ কিলোমিটার পাড়ি দিয়েছিলাম। সেই পথ পুরোটাই দেখেছি পাহাড় আর পাহাড়। আর এই পুরো সময়টুকু বেশক’টি টানেলের ভেতর দিয়ে গাড়ি চলেছে। এক পাহাড় থেকে আরেক পাহাড়ে আমাদের গাড়ি ছুটে চলেছে। আর ত্বালি শহরে পৌঁছে যে তিনদিন অবস্থান করেছি, মনে হয়েছে পাহাড় যেন আমাদের মাথার ওপর দাঁড়িয়ে আছে। চাংশান পর্বতমালা হচ্ছে হিমালয়ের শেষপ্রান্ত। আর এই চাংশানের ১৯টি চূড়া এই ত্বালি শহর ঘিরে। এই তিনশ’ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়ে কুনমিং থেকে ত্বালি যেতে ফাঁকে ফাঁকে একটি রেলপথ চোখে পড়েছে। যা চীনের বর্তমানে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া গেজ রেলপথের একটি। এই রেলপথেরও রয়েছে একটি দীর্ঘ ইতিহাস। ১৯০৮ সালে ভিয়েতনাম যখন ফরাসিদের আধিপত্যে তখন ইংরেজ প্রকৌশলীদের দ্বারা এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। ত্বালির চাংশান পর্বতমালার পেছনেই রয়েছে ভিয়েতনামের সীমান্ত। আর কুনমিং থেকে এই রেলপথ চলে গেছে ইউনানের বিভিন্ন উঁচু পাহাড়ি পথ পাড়ি দিয়ে ভিয়েতনামে। এই রেলপথটি বর্তমানে ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের তালিকাভুক্ত। এর পেছনেও রয়েছে নানা পিলে চমকানো তথ্য। পুরো এই রেলপথটিতে প্রায় সাড়ে চারশ’র মতো সেতু আর ১৫৫টি টানেল রয়েছে। আর দুঃখজনক অধ্যায় হচ্ছে এই পথের সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ফক্স নামছি সেতু যা নির্মাণের সময় চীনের প্রায় আটশ’ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এটি চীনের একটি জাতিগোষ্ঠী নাক্সি সম্প্রদায়ের উপত্যকায় অবস্থিত। ইউটিউব আর গুগল সার্চ দিয়ে জানতে পেরেছিÑ এই পথে রয়েছে প্রায় ষাটের ওপর স্টেশন। যার প্রতিটি স্টেশনই কোনো না কোনো নৃ-গোষ্ঠীর বসবাসকারী এলাকায় পড়েছে। আর এই স্টেশনগুলো পর্যটকদের আকর্ষণের অন্যতম কেন্দ্রস্থল। যেখানে সেই সব নৃ-জাতিগোষ্ঠীর পোশাক, তাদের খাবার, তাদের ব্যবহৃত নানা সামগ্রী ক্রয়ের সুযোগ মেলে। তাই পৃথিবীর বহু দেশের পর্যটকরা এই পথ পাড়ি দিতে বেছে নেন চীনের বিলুপ্তপ্রায় নৃ-জাতিগোষ্ঠীর ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচিত হতে। আমাদের এবারের ভ্রমণে সে সুযোগ না মিললেও তাদের নিয়ে গড়া বিশেষায়িত জাদুঘর ন্যাশনালিটিজ ভিলেজে যাওয়ার সুযোগ হয়েছে। এটি কুনমিং শহরের কেন্দ্রস্থল থেকে দশ কিলোমিটার দূরে তিয়েনসি লেকের পাশে অবস্থিত। যেখানে ২৬টি নৃ-জাতিগোষ্ঠীর পরিচয় তুলে ধরা হয়েছে। বলা হয়ে থাকেÑচীনে বসবাসরত ৫৬ জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে ইউনানের কুনমিং-এ রয়েছে ২৬ নৃ-জাতিগোষ্ঠীর বাস। যাদের অনেক গোষ্ঠীর জনসংখ্যা এখন গড়ে পাঁচ হাজারের মতো।
ন্যাশনালিটিজ ভিলেজ বা নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামের শুরু ১৯৯৫ সালে। এই গ্রাম এবং নৃ-গোষ্ঠীর নির্দশন নিয়ে তৈরি জাদুঘরে এক লাখ বিশ হাজারের মতো বিভিন্ন নিদর্শন রয়েছে। ১৬ ক্যাটাগরিতে বিভক্ত নানান উপাদান তথ্য সংবলিত বিবরণীসহ নিদর্শনগুলো সাজানো। শুধু জাতিগোষ্ঠীর ব্যবহৃত সামগ্রী, কাপড় অলঙ্কারাদি নয় তাদের ব্যবহৃত বই, পা-ুলিপি বাদ্যযন্ত্রও রয়েছে ন্যাশনালিটিজ ভিলেজে। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হচ্ছে তাদের জীবনবৈচিত্র্য মিল রেখে একই রকমের বাসস্থান এবং প্রতিটি অঞ্চলের গাছপালাও রাখা হয়েছে। ভেতরে রয়েছে ত্বালির থ্রি প্যাগোডার রেপ্লিকা। নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামে প্রবেশ করেই প্রথম চোখে পড়ে তাই (উধর) ভিলেজ। তাই নৃ-গোষ্ঠীদের গ্রাম। গ্রামটির তিন পাশেই রয়েছে জলাধার। বাঁশে তৈরি এই গ্রামটি প্রবেশমুখেই দৃষ্টি কাড়ে পর্যটকদের। তাই ভিলেজে রয়েছে বার্মিজ ধরনের একটি টেম্পল। ফাঁকে ফাঁকে তাই নৃ-গোষ্ঠীর ঐতিহ্য ময়ূর নৃত্য (পিকক ড্যান্স) প্রদর্শিত হয়ে থাকে। যা পর্যটকদের বাড়তি পাওনা। নাচের সঙ্গে আপনিও তাল মেলাতে পারেন। এর পরপরই ই নৃ-গোষ্ঠীর গ্রাম। ই জাতিগোষ্ঠী বাঘকে তাদের শক্তির প্রতীক মনে করে। তাই এ গ্রামে তিনটি প্রতীকী বাঘ স্থাপন করা আছে। এখানেই একটি সোলার ক্যালেন্ডার রয়েছে। যেখানে পর্যটকরা ছবির জন্য পোজ দেন। এরপরই বাই (ইধর) জাতিগোষ্ঠীর গ্রাম। বাই সম্প্রদায় মূলত হান সম্প্রদায়ের স্থাপত্যকেই অনুসরণ করে থাকে। ধীরে ধীরে চোখে পড়বে মাঞ্চু, মঙ্গোলিয়ান, নু, পুমি, বুই, বাইয়াং, তিব্বতিয়ান, নাক্সী, ইয়ো, লাশু, ওয়া, হুই, লিসু, মিয়াও হানি, জুহাং সম্প্রদায়ের পৃথক জীবনবৈচিত্র্য। চলার পথে ক্লান্তি কাটাতে রয়েছে পানীয়ের ব্যবস্থা। ফাঁকে ফাঁকেই নানান বাদ্যযন্ত্রের হৃদম আপনাকে নিয়ে যাবে রোমাঞ্চকর মধুরতায়। বছরের বিভিন্ন সময় এখানেই হয়ে থাকে এলিফ্যান্ট শো, ওয়াটার স্ক্রিন ফিল্ম, এথনিক ক্যাবারে ড্যান্স। আর সবশেষে প্লাতাও সংগীতের সুর মূর্ছনা সত্যিই ভোলার নয়। চাওফাং-এর তৈরি চটাপিঠা কলাপাতায় চিনি দিয়ে পরিবেশন মনে থাকবে অনেকদিন।
ন্যাশনালিটিজ ভিলেজে একদিন
ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক গ্রাম কুনমিং শহরের দক্ষিণ-পশ্চিম উপ-শহর অঞ্চল থিয়েনসি লেক এলাকায় অবস্থিত। এটা ৮৯ হেক্টর এলাকাজুড়ে বিস্তৃত। এই গ্রামটি ইউনান প্রদেশের ২৬টি নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠীর প্রতিচ্ছবি বা জানালা যেটি তাদের সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক জীবন তুলে ধরে। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামে পর্যটকরা অনেক কিছু দেখতে পারেÑযার মধ্যে আছে নৃ-তাত্ত্বিক গ্রাম, নৃ-তাত্ত্বিক নৃত্য হল, নৃ-তাত্ত্বিক স্কয়ার, ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর, লেজার ফোয়ারা ইত্যাদি। আরো আছে ইউনানের ২৫টি সংখ্যালঘু নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠীর ‘ওয়াটার-স্ক্রিন’ ছবি যার মধ্যে দাই, বাই, ই, নক্সী, ভা, ব্লাং, জিনো, লাহু, ঝাং, জিংপু, হানী, দেয়াং, জুয়াং, সিয়া ও শুই, নু, মঙ্গল, বুয়ি, ডাং, লিসু, পুমি, মানুচ, হুই, ইয়াও, আচং অন্যতম। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক গ্রাম আসলে একটি মডেল গ্রাম যেটি ইউনান প্রদেশের বিভিন্নস্থানে ছড়িয়ে থাকা বিভিন্ন নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠীর জীবন ধারা তুলে ধরে। গ্রামের মধ্য দিয়ে হেঁটে বেড়ালে নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য চোখে পড়বে। তাদের সুন্দর গোছানো জীবনধারা, কটেজ স্থাপত্য, উৎপাদন, ধর্মীয় রীতি-নীতি ইত্যাদি।
ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামের দৃশ্যপট খুবই সুন্দর, প্রকৃতি যেন হাতছানি দিয়ে ডাকছে। আছে দিয়ানছি লেক যেটি এই গ্রামের সৌন্দর্য অন্য মাত্রায় নিয়ে গেছে। এই গ্রামে পর্যটকদের জন্য আছে নৃ-তাত্ত্বিক গান, নৃত্য এবং হাতির পরিবেশনা। তাছাড়া এখানে নৃ-তাত্ত্বিক উৎসবগুলো অনুষ্ঠিত হয় যেমন: বাই সম্প্রদায়ের তৃতীয় মাস মেলা, দায় সম্প্রদায়ের পানি ছিটানোর উৎসব, ই সম্প্রদায়ের টর্চ উৎসব, লিসু সম্প্রদায়ের ছুরি-মই আরোহণ উৎসব, জিংগু সম্প্রদায়ের মুনাও উৎসব, নক্সী সম্প্রদায়ের সান্দুই উৎসব ইত্যাদি। বলতে গেলে এই ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক গ্রামটি চির বসন্তের শহরে একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যটন আকর্ষণ। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর দিয়ানছি লেকের কাছাকাছি জাতীয় পর্যটক ও অবকাশ যাপন কেন্দ্রে অবস্থিত। জাদুঘরটির চমৎকার নির্মাণশৈলী পর্যটকদের মুগ্ধ করে। জাদুঘরের চারপাশে আছে করিডর এবং মাঝখানে ফুলের বাগান। এটি ১৩০,০০০ বর্গমিটার এলাকাজুড়ে অবস্থিত এবং ৩০,০০০ বর্গমিটার শুধু প্রদর্শনী কক্ষের জন্য নির্ধারিত। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর চীনের প্রথম সারির এবং সর্ববৃহৎ নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর। এটি এশিয়ার বিখ্যাত জাদুঘরগুলোর একটি। এই জাদুঘরের কর্মচারীরা ১৮টি নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠী থেকে নির্বাচিত। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর জাতীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে পুরস্কৃত তার কর্মকা-ের জন্য। চীনের প্রায় ৫০টি বিশ্ববিদ্যালয়, অনেক মাধ্যমিক স্কুল ও প্রাইমারি স্কুলের ছাত্ররা শিক্ষা, গবেষণা এবং ইন্টার্নশিপে যুক্ত এই জাদুঘরটির সঙ্গে। তাছাড়া জাদুঘরটি কুনমিংয়ে বসবাসকারী নৃ-তাত্ত্বিক গোষ্ঠীর উৎসব পালনের একটি প্রধান জায়গা। ইউনান নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর নৃ-তাত্ত্বিক সংস্কৃতি সংরক্ষণ করতেও বদ্ধপরিকর। মিউজিয়ামে প্রায় ৪০,০০০ সেট নৃ-তাত্ত্বিক সংগ্রহ আছে যেগুলোর ঐতিহাসিক, বৈজ্ঞানিক এবং শিল্প মূল্য আছে। জাদুঘরটির সূচনা থেকেই, দেশ-বিদেশের লক্ষাধিক পর্যটককে স্বাগত জানায়। একই সঙ্গে জাদুঘরটি দেশ-বিদেশে সাংস্কৃতিক বিনিময় শুরু করে। দেশের মধ্যে বেইজিং, সাংহাই, নানজিং, গোয়াংজু এবং দেশের বাইরে ফ্রান্স, ফিনল্যান্ড, কোরিয়া, ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, সিংগাপুর, আমেরিকা, জাপান, রাশিয়াতে প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করে যেটি বিশ্বব্যাপী সমাদৃত হয়। জাদুঘরটি সফলভাবে প্রায় একাধিক আন্তর্জাতিক সেমিনারের আয়োজন করে এবং বেশ কয়েকটি জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক প্রকল্প বাস্তবায়ন করে। এটি বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গে ভালো সম্পর্ক গড়ে তোলে, যেমনÑ‘ফোর্ড ফাউন্ডেশন’, ‘রক ফেলার ফাউন্ডেশন’, ‘এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক’ ইত্যাদি। তাছাড়া এই জাদুঘরটি দীর্ঘমেয়াদি সহযোগিতা গড়ে তোলে কোরিয়ার জাতীয় লোক জাদুঘর, ভিয়েতনামের নৃ-তাত্ত্বিক জাদুঘর, আমেরিকার স্মিথসোনিয়ান প্রতিষ্ঠান ইত্যাদির সঙ্গে। তার সাংস্কৃতিক বিনিময় কর্মকা-ের মধ্যে। শিল্পী এবং সৃষ্টিশীল প্রদর্শনের জন্য প্রায় ৩০টিরও অধিক কর্মশালার আয়োজন করে এই জাদুঘর।

কাল পড়–ন: এশিয়ার বৃহত্তম ফুলের বাজার


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

২০১৮ সালে প্রবল ভুমিকম্পের আশঙ্কা!

কেয়া চৌধুরী এমপি’র উপর হামলার ঘটনায় মামলা

বাংলাদেশের রাজনীতি, বিকাশমান মধ্যবিত্ত এবং কয়েকটি প্রশ্ন

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতাতে আহত ডিবি পুলিশ

প্রতিবেশীদের মধ্যে সুসম্পর্ক থাকা জরুরীঃ বাংলাদেশকে মিয়ানমার

তারেক রহমানের জন্মদিন পালন করবে বিএনপি

রোহিঙ্গা শিবিরে যেতে চান প্রণব মূখার্জি

তালাকপ্রাপ্ত নারীকে অপহরণের পর গণধর্ষণ

আরো ১০ দিন বন্ধ থাকবে লেকহেড স্কুল

জাতিসংঘকে দিয়ে রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধান হবে নাঃ চীন

ম্যনইউয়ের টানা ৩৮

রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বাংলাদেশ-মিয়ানমার সংলাপে সহায়তা করতে আগ্রহী চীন

জল্পনার অবসান ঘটালেন জ্যোতি

চীনের বেইজিংয়ে অগ্নিকাণ্ড, নিহত ১৯ আহত ৮

সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত এমপি গোলাম মোস্তফা আহমেদ

বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট মানসী চিল্লার-এর