রাশিয়া বিশ্বকাপ নিয়ে উদ্বিগ্ন তোরে

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৩ অক্টোবর ২০১৭, শুক্রবার
ফুটবলে রাশিয়ায় বর্ণবৈষম্যমূলক ঘটনার নজর রয়েছে অনেক। আর ২০১৮’র বিশ্বকাপ বর্ণবৈষম্যমুক্ত রাখতে রাশিয়াকে সাহায্য করতে রাজি আইভরিকোস্টের শীর্ষ ফুটবলার ইয়াইয়া তোরে।  ক্যারিয়ারে রাশিয়ার মাঠে বর্ণবৈষম্যমূলক আচরণের হন তোরেও। ২০১৩তে ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে রাশিয়ায় সিএসকেএ মস্কোর বিপক্ষে খেলায় বর্ণবাদী আচরণের শিকার হন ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটির এ আইভরিয়ান মিডফিল্ডার। আর বৃহস্পতিবার ইয়াইয়া তোরে বলেন, ২০১৮ বিশ্বকাপ জগাখিচুড়ি হয়ে যেতে পারে। সম্প্রতি রাশিয়ায় যুব ফুটবল টুর্নামেন্টে স্পার্টাক মস্কোর মুখোমুখি হয় ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল। আর ওই ম্যাচ শেষে বিশ্ব ফুটবর সংস্থা ফিফার কাছে স্পার্টাক মস্কোর বিরুদ্ধে বর্ণবাদী আচরণের অভিযোগ  তোলে ইংলিশ ক্লাবটি।
৩৪ বছর বয়সী ইয়াইয়া তোরে বলেন, আমরা পরিবর্তন দেখতে চাই। তবে এ নিয়ে ানেক আলোচনা হলেও বাস্তবে তেমন ফল দেখতে পাই না। এর আগে রুশ ক্লাব স্ন্টে জেনিত পিটার্সবার্গের ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার হাল্ক অভিযোগ করেন, রুশ লীগে প্রায় প্রত্যেক ম্যাচেই তিনি বর্নবাদী আচরণের শিকার হন। ইতিমধ্যে ফবর্ণবৈষম্য বিরোধী এক ভিডিও প্রচারণায় অংশ নেন ইয়াইয়া তোরে। রুশ সংবাদমাধ্যম রাশিয়ানকে ইয়াইয়া তোরে বলেন, সবাই রাশিয়াকে নিয়ে কথা বলছে। তবে অমি বিশ্বাস করি আসরে তারা বিষয়টি সুন্দরভাবে সামলে সবাইকে অবাক করে দেবে। আর আমি ফিফা ও রাশিয়া সরকারকে বলছি, এ বিষয়ে আমাকে চাইলে আমি সাহায্য করতে রাজি। আমি এ নিয়ে কেবল আলোচনা চাই না। আমি এর প্রয়োগ দেখতে চাই। ফুটবলের ভবিষ্যতের জন্য এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘এখন ভালো কথা ও সুরের চেয়ে মিউজিকটাকেই বেশি গুরুত্ব দেয়া হয়’

ডেমরায় অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ আটজন

‘অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন প্রত্যাশা করে ভারত’

আরো একটি লজ্জা

শাসন যেখানে বাছবিচারহীন

উচ্চ ব্যয়ের ঢাকায় নিম্নমানের জীবন

সৌদি আরবে অনাহারে-অর্ধাহারে তাদের দিন

জলাবদ্ধতার কী দেখেছেন কলকাতা-মুম্বই যান

চট্টগ্রামে যুবলীগ নেতার পায়ে আওয়ামী লীগ নেতার গুলি

গ্রাহক টানতে পারছে না ‘দোয়েল’

সিলেটে যে ছবিটি এখন ভাইরাল

পর্যবেক্ষকদের সতর্ক করলেন সিইসি

লড়াই হবে ত্রিমুখী

পাহাড়ে হঠাৎ বেপরোয়া সশস্ত্র সংগঠনগুলো

পাঁচ বিভাগীয় শহরে বিটিভি’র স্টেশন হচ্ছে

প্রধানমন্ত্রীকে লেখা এক প্রধান শিক্ষকের খোলা চিঠি