জামায়াতের নিরুত্তাপ হরতাল ৪ ঘণ্টা পর বিএনপির সমর্থন

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ অক্টোবর ২০১৭, শুক্রবার
জামায়াতের কেন্দ্রীয় আমীর মকবুল আহমাদসহ শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার ও রিমান্ডের প্রতিবাদে ডাকা হরতাল রাজধানীসহ সারা দেশে নিরুত্তাপভাবে পালিত হয়েছে। হরতাল শুরুর ৪ ঘণ্টা পর গতকাল সকালে নয়াপল্টনে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ এতে বিএনপির সমর্থনের কথা জানান। হরতালে ঢাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের পোশাকে এবং সাদা পোশাকে কঠোর নজরদারি ছিল। পিকেটার ঠেকাতে রাস্তার মোড়ে মোড়ে সন্দেহভাজনদের দেহ ও ব্যাগ তল্লাশি করা হয়। ঢাকায় একাধিক স্থানে জামায়াত ও তার অঙ্গসংগঠন শিবির কয়েকটি ঝটিকা মিছিল করে। হরতাল উপলক্ষে গতকাল সকাল ৯টা পর্যন্ত বিভিন্ন যানবাহন চলাচল কম করলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এর সংখ্যা বাড়তে থাকে।
এতে ঢাকার প্রায় সড়কে যানজট দেখা যায়। হরতালের সহিংসতা এড়াতে ঢাকার মূল পিকেটিংস্থল মতিঝিল, পল্টন, দৈনিক বাংলা এবং বায়তুল মোকাররম এলাকায় পুলিশ বিশেষ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গড়ে তোলে। ব্যারিকেড দিয়ে যানবাহন তল্লাশি করা হয়। পুলিশের রায়ট কার ও জলকামান প্রস্তুত ছিল। এছাড়াও হরতালের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা মাঠে সরব ছিলেন। কক্সবাজারের এক অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, হরতালকারীরা হরতাল ডেকে ঘরের মধ্যে হিন্দি সিরিয়াল দেখছেন। জনগণ তাদের এই হরতাল প্রতিহত করবে। এছাড়াও প্রেস ক্লাবের সামনে হরতালবিরোধী সমাবেশে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম জামায়াতের হরতালে বিএনপির সমর্থনের বিষয়টি নিয়ে কঠোর সমালোচনা করেন।
এদিকে, হরতালের সমর্থনে জামায়াত ইসলামী এবং শিবিরের নেতাকর্মীরা ঢাকার মোহাম্মদপুর, মগবাজার এবং বাড্ডা এলাকায় ঝটিকা মিছিল বের করে। স্থানীয়দের কাছে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই তারা সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
সকাল ৮টার দিকে ২০ থেকে ২৫ জামায়াতের নেতাকর্মী কাফরুল বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি মিছিল বের করে। মিছিলটিতে নেতৃত্ব দেন ঢাকা মহানগর উত্তরের সহকারী সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুর রহমান। সংক্ষিপ্ত এক সমাবেশে তিনি অভিযোগ করেন সরকার দেশ থেকে ইসলামী মূল্যবোধ ধবংস করতেই জামায়াতকে টার্গেট করেছে। সে ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতায় মকবুল আহমদসহ শীর্ষ নেতাদের আটক করে রিমান্ডের নামে নাজেহাল করছে। তিনি জামায়াত নেতাদের মুক্তি দাবি করেন। এ সময় জামায়াত নেতা অধ্যাপক আনোয়ারুল করীম, আলাউদ্দীন মোল্লা, আব্দুল মতিন, শাহ আলম, ইকবাল হোসেন, শিবির নেতা রফিক উপস্থিত ছিলেন। সকালে মগবাজার এলাকায় রমনা জামায়াতের নেতা আতাউর রহমান সরকারের নেতৃত্বে একটি মিছিল বের হয়। এছাড়াও মিরপুর, তেজগাঁও ও বাড্ডা, বিমানবন্দর, তুরাগ উত্তরা ৬ নম্বর সেক্টর এলাকা ও যাত্রাবাড়ী এলাকায় হরতালের সমর্থনে জামায়াতের মিছিলের খবর পাওয়া গেছে। তবে কোনো আটকের খবর পাওয়া যায়নি।
অন্যদিকে, জামায়াতের ডাকা হরতালের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন মুক্তিযোদ্ধারা। গতকাল দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটি। প্রতিবাদ সমাবেশে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন বিশ্বব্যাপী সমাদ্রিত, আলোচিত ও প্রশংসা অর্জন করেছেন ঠিক তখনই জামায়াত হরতাল ডেকে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চাচ্ছে। আর বিএনপি এতে সমর্থ দিয়ে দেশের বর্তমান পরিবেশকে অস্থিতিশীল করতে চায়। বিএনপি এই রোহিঙ্গাদের দিয়ে বাংলাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়াতে চায় বলে তিনি অভিযোগ করেন। তাদের জঙ্গি বানাতে চায়। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষ তাদের এ অসৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন হতে দেবে না। মানববন্ধনে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, আমি মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাহেবকে ধন্যবাদ জানাই। তিনি সেটা অনুধাবন করেছেন যে আওয়ামী লীগ মেসির মতো খেলছে। মেসি নিঃসন্দেহে ভালো খেলোয়াড়, একদিন আগে মেসি টানা তিনটি গোল করে হ্যাটট্রিক করেছে। আওয়ামী লীগ সরকারও টানা তিন বার ক্ষমতায় গিয়ে হ্যাটট্রিক করবে। এটা যে তিনি অনুধাবন করেছেন এর জন্য মির্জা ফখরুল ইসলাম সাহেবকে আবারো ধন্যবাদ জানাই।
মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির সভাপতি ক্যাপ্টেন (অব.) এবি তাজুল ইসলাম বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্রের ডাকা হরতালে মানুষ সাড়া দেয়নি। কখনো দেবেও না। একটি মুক্তিযোদ্ধা জীবিত থাকা অবস্থায় দেশকে নিয়ে স্বাধীনতা বিরোধীদের ষড়যন্ত্র সফল হবে না।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শীর্ষ সন্ত্রাসী সাদ্দাম হোসেন গ্রেপ্তার

‘আশ্রয়শিবিরে ৫০০ রোহিঙ্গা নারীর যৌন ব্যবসা’

এম কে আনোয়ারের দাফন আগামীকাল

‘আন্দোলনের দাবিগুলো নিয়ে ক্যাবিনেটে সুপারিশ করা হয়েছে’

জঙ্গি অভিযান শেষ, আটক হয়নি কেউই

খালেদা জিয়া কক্সবাজার যাচ্ছেন রোববার

রোনালদোই সেরাা

সেরা একাদশে যারা

রোহিঙ্গা ইস্যু- ফের  আসছেন চীনের বিশেষ দূত

রোহিঙ্গাদের জন্য ৩০০০ কোটি টাকার প্রতিশ্রুতি

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশকে একই সাথে খুশি করা ভারতের জন্য কি কূটনীতির পরীক্ষা?

সুষমার সতর্ক কূটনীতি

সেসিপ প্রকল্পে ১৩২ কোটি টাকা লোপাট

রোহিঙ্গাদের পাশে রানী রানিয়া

‘সব বিষয় ইমানদারির সঙ্গে মিটিয়ে ফেলবো’

‘সবুজ বিপ্লবের’ পথে পোশাক শিল্প