পাহাড়ে বিক্ষোভের মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৪ অক্টোবর ২০১৭, বুধবার
দার্জিলিং পাহাড়ে ১০৪ দিন বন্ধ চলাকালীন বিজেপির কোনও নেতাকে দেখা যায়নি। এমনকি দার্জিলিং থেকে নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ এস আরওয়ালিয়ও মুখ দেখাননি। এই অবস্থায় এমনিতেই ক্ষুব্ধ ছিলেন পাহাড়ের মানুষ আর তাই বুধবার পাহাড়ে সফরে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বুধবার সকালে দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে কালিম্পঙের ডাম্বারচকে পৌঁছাতেই শুরু হয়েছিল বিক্ষোভ। জন আন্দোলন পার্টির পক্ষ থেকে বিক্ষোভ দেখানো হয়। দিলীপ ঘোষকে ঘিরে বিক্ষোভকারীরা প্রশ্ন তোলেন, গোর্খাল্যান্ড নিয়ে এতদিনে কী করেছে কেন্দ্রীয় সরকার? সাংসদ এস এস আলুওয়ালিয়াই বা কোথায়? তাঁকে দেখা যায়নি কেন? দিলীপ ঘোষের কাছে জবাব দাবি করেন তাঁরা।
বেশ কিছুক্ষণ এই বিক্ষোভে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল। গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে বন্ধ উঠে যাওয়ার পর এই প্রথম বিজেপির কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব পাহাড়ে গিয়েছিলেন। জন আন্দোলন পার্টির (জাপ) সভাপতি হরকাবাহাদুর ছেত্রী বলেছেন, ১০৪ দিন পাহাড়ে বন্ধ চলার সময় দিলীপ ঘোষরা কোথায় ছিলেন। তখন কী শুয়ে ছিলেন। পৃথক গোর্খাল্যান্ড কোনও দাবি নয়। এটা অধিকার। বন্ধ চলাকালীন যারা মারা গিয়েছেন তাদের জন্য কোনও সমবেদনা জানাননি তাঁরা। সেই সময় স্থানীয় সাংসদকেও পাশে পাওয়া যায়নি। গোর্খাল্যান্ড নিয়ে বিজেপির অবস্থান স্পষ্ট নয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেছেন, তারা পৃথক রাজ্য চায় কি না আগে বলুক। পাহাড়ে এলেই আলাদা রাজ্যের সুড়সুড়ি। আর সমতলে গিয়ে উলটো সুর। তা আমরা মানব না। অবশ্য দিলীপ ঘোষ বলেছেন, পাহাড় সমস্যার স্থায়ী সমাধান করতে চাইছে না পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বিজেপির অবস্থান স্পষ্ট আছে। জিটিএতে ১৭টি দাবি রয়েছে। সেখানে সই করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাই রাজ্য সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে সমস্যা সমাধানের জন্য। এখানে ত্রিপাক্ষিক বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান করতে হবে। বিমল গুরুংয়ের ওপর ইউএপিএ কেস রয়েছে। সেটা তুলে নেওয়া হলে তাঁর সঙ্গে বৈঠক হতেই পারে। রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী গৌতম দেব অভিযোগ করেন, পাহাড়ে অশান্তি তৈরি করতে চাইছে বিজেপি। তিনি আরও বলেছেন, বিজেপি এখানের আন্দোলনে উস্কানি দিচ্ছে। এই কেন্দ্র থেকে তাঁদের সাংসদ থাকলেও ১০৪ দিনের বন্ধে তাঁকে দেখা যায়নি। দিলীপ ঘোষরা পিছন থেকে বিমল গুরুংদের মদত দিচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেছেন।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ব্রাজিল ফুটবলের প্রধান ৯০ দিন নিষিদ্ধ

ঝিকরগাছায় ছাত্রলীগ কর্মী খুন, সড়ক অবরোধ

উৎসবের আমেজে সারাদেশ

জনগণের দেয়া রায় মেনে নেবে বিএনপি: ফখরুল

কংগ্রেস সভাপতি পদে রাহুল গান্ধীর আনুষ্ঠানিক অভিষেক

দুই নারীর একজন স্বামী, অন্যজন স্ত্রী

আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১৫

নওগাঁয় যুবককে কুপিয়ে হত্যা

গার্মেন্টে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত করছে এইচ অ্যান্ড এম

নাশকতার অভিযোগে ২০ শিবিরকর্মী আটক

বিএনপির বিজয় র‌্যালিতে যুবলীগ-ছাত্রলীগের হামলা

বিজয় উৎসব পালন করতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ মুক্তিযোদ্ধাসহ আহত ৯

আমৃত্যু এক যোদ্ধার কথা

ছাত্রদলের পুষ্পস্তবক ছিঁড়লো ছাত্রলীগ

বঙ্গবন্ধুর গৃহবন্দি পরিবারকে যেভাবে উদ্ধার করেছিলেন কর্নেল তারা

ভারতে তিন তালাক বিরোধী খসড়া আইনে সরকারের অনুমোদন