পাহাড়ে বিক্ষোভের মুখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৪ অক্টোবর ২০১৭, বুধবার
দার্জিলিং পাহাড়ে ১০৪ দিন বন্ধ চলাকালীন বিজেপির কোনও নেতাকে দেখা যায়নি। এমনকি দার্জিলিং থেকে নির্বাচিত বিজেপি সাংসদ এস আরওয়ালিয়ও মুখ দেখাননি। এই অবস্থায় এমনিতেই ক্ষুব্ধ ছিলেন পাহাড়ের মানুষ আর তাই বুধবার পাহাড়ে সফরে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বুধবার সকালে দলীয় কর্মসূচিতে যোগ দিতে কালিম্পঙের ডাম্বারচকে পৌঁছাতেই শুরু হয়েছিল বিক্ষোভ। জন আন্দোলন পার্টির পক্ষ থেকে বিক্ষোভ দেখানো হয়। দিলীপ ঘোষকে ঘিরে বিক্ষোভকারীরা প্রশ্ন তোলেন, গোর্খাল্যান্ড নিয়ে এতদিনে কী করেছে কেন্দ্রীয় সরকার? সাংসদ এস এস আলুওয়ালিয়াই বা কোথায়? তাঁকে দেখা যায়নি কেন? দিলীপ ঘোষের কাছে জবাব দাবি করেন তাঁরা।
বেশ কিছুক্ষণ এই বিক্ষোভে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল। গোর্খাল্যান্ড ইস্যুতে বন্ধ উঠে যাওয়ার পর এই প্রথম বিজেপির কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব পাহাড়ে গিয়েছিলেন। জন আন্দোলন পার্টির (জাপ) সভাপতি হরকাবাহাদুর ছেত্রী বলেছেন, ১০৪ দিন পাহাড়ে বন্ধ চলার সময় দিলীপ ঘোষরা কোথায় ছিলেন। তখন কী শুয়ে ছিলেন। পৃথক গোর্খাল্যান্ড কোনও দাবি নয়। এটা অধিকার। বন্ধ চলাকালীন যারা মারা গিয়েছেন তাদের জন্য কোনও সমবেদনা জানাননি তাঁরা। সেই সময় স্থানীয় সাংসদকেও পাশে পাওয়া যায়নি। গোর্খাল্যান্ড নিয়ে বিজেপির অবস্থান স্পষ্ট নয় বলে অভিযোগ করেন তিনি। তিনি বলেছেন, তারা পৃথক রাজ্য চায় কি না আগে বলুক। পাহাড়ে এলেই আলাদা রাজ্যের সুড়সুড়ি। আর সমতলে গিয়ে উলটো সুর। তা আমরা মানব না। অবশ্য দিলীপ ঘোষ বলেছেন, পাহাড় সমস্যার স্থায়ী সমাধান করতে চাইছে না পশ্চিমবঙ্গ সরকার। বিজেপির অবস্থান স্পষ্ট আছে। জিটিএতে ১৭টি দাবি রয়েছে। সেখানে সই করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাই রাজ্য সরকারকে এগিয়ে আসতে হবে সমস্যা সমাধানের জন্য। এখানে ত্রিপাক্ষিক বৈঠকের মাধ্যমে সমাধান করতে হবে। বিমল গুরুংয়ের ওপর ইউএপিএ কেস রয়েছে। সেটা তুলে নেওয়া হলে তাঁর সঙ্গে বৈঠক হতেই পারে। রাজ্যের উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী গৌতম দেব অভিযোগ করেন, পাহাড়ে অশান্তি তৈরি করতে চাইছে বিজেপি। তিনি আরও বলেছেন, বিজেপি এখানের আন্দোলনে উস্কানি দিচ্ছে। এই কেন্দ্র থেকে তাঁদের সাংসদ থাকলেও ১০৪ দিনের বন্ধে তাঁকে দেখা যায়নি। দিলীপ ঘোষরা পিছন থেকে বিমল গুরুংদের মদত দিচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেছেন।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সোনাজয়ী শুটার হায়দার আলী আর নেই

নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত মুক্তামনি

খাল থেকে উদ্ধার হলো হৃদয়ের লাশ

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানকে কঠিন পর্যায়ে নিয়ে গেছে সরকার: খসরু

সঙ্কট সমাধানে প্রয়োজন পরিবর্তন: দুদু

চোখের চিকিৎসা করাতে লন্ডনে গেলেন প্রেসিডেন্ট

সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না

টানা বৃষ্টিতে ভোগান্তিতে রাজধানীবাসী

বৌদ্ধ ভিক্ষু সেজে কয়েক শত কিশোরীর সঙ্গে যৌন সম্পর্ক

৫০ বছরের মধ্যে জাপানে কানাডার প্রথম সাবমেরিন

ছিচকে চোর থেকে মাদক সম্রাট!

বোতলে ভরা চিঠি সমুদ্র ফিরিয়ে দিল ২৯ বছর পর!

কার সমালোচনা করলেন বুশ, ওবামা!

জুমের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেনা বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা

অস্ট্রেলিয়ার গহীন মরুতে ১৮শতাব্দীর বাংলা পুঁথি

হারভে উইন্সটেন যেভাবে হোটেলকক্ষে অভিনেত্রীকে যৌন নির্যাতন করেন