কুর্দিদের গণভোট

ইরাকে আগ্রাসনের হুমকি এরদোগানের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার
ইরাকের কুর্দিদের ওপর ভীষণ ক্ষিপ্ত তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়্যিপ এরদোগান। কুর্দিরা স্বাধীনতার জন্য এরই মধ্যে সোমবার গণভোট করেছে। এই ভোটের ফল এখনও জানা যায় নি। এই গণভোটকে স্বীকৃতি দেয় নি বাগদাদও। এর ফলে ইরাকে আগ্রাসী হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছেন এরদোগান। তিনি বলেছেন, ইরাকি কুর্দিদের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে লড়াই করা হবে টিকে থাকার লড়াই।
পাশাপাশি তিনি ইরাক থেকে বাইরে তেল সরবরাহের পাইপলাইন কেটে দেয়ারও হুমকি দিয়েছেন। এর মাধ্যমে তিনি কুর্দি অঞ্চলের শায়ত্তসাননের বিরুদ্ধে চাপ বাড়ানোর চেষ্টা করছেন। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট। এতে বলা হয়, তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে কুর্দি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন লড়াই করছেন এরদোগান। বলা হচ্ছে, ইরাকের তেল রিজার্ভে অধিকতর নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কুর্দিরা ওই গণভোট করেছে। তাই এ নিয়ে তুরস্কের প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বলেছেন, গণভোট করা কুদির্ঃদের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেবে আঙ্কারা। সীমান্ত ও আকাশ সীমা ব্যবহার করে কুর্দিস্তান রিজিওনাল গভর্নমেন্টের বিরুদ্ধে তারা এমন পদক্ষেপ নেবেন। ইরাকি সরকারের তীব্র বিরোধিতা সত্ত্বেও কুর্দিরা সোমবার ওই গণভোট আয়োজন করে। এমন ভোটের বিরোধিতা করেছে পশ্চিমা বেশ কিছু সরকার। তারা আশঙ্কা করছেন, এর ফলে মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা আরো অস্থিতিশীল হয়ে উঠবে। কুর্দিদের এ গণভোটকে এরদোগান ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী’দের ভোট বলে আখ্যায়িত করে বলেছেন, এ গণভোট অগ্রহণযোগ্য। এর বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক ও নিরাপত্তা বিষয়ক পাল্টা পদক্ষেপ নেয়া হবে। বর্তমানে ইরাকের কুর্দি অঞ্চলের সঙ্গে তুরস্কের সীমান্তে সামরিক মহড়া দিচ্ছে তুরস্কের সেনাবাহিনী। এদিকে ইঙ্গিত করে এরদোগান বলেন, আমাদের সেনারা সীমান্তে রয়েছেন। তারা কিছু করবেন না এমনটা নয়। আমরা আকস্মিকভাবে এক রাতের মধ্যেই পৌঁছে যেতে পারি। তিনি ইরাকের উত্তরাঞ্চল দিয়ে বাইরে তেলের সরবরাহ কেটে দেয়ার হুমকি দেন। বলেন, আমরা একবার এই পাইপলাইন কেটে দিলে ইরাকের এই আঞ্চলিক সরকার কোন পথ দিয়ে তেল বিক্রি করে সেটাইই দেখার বিষয়। এই ফাঁদে ফেলার বিষয়টি আমাদের হাতে আছে। আমরা এই ফাঁদটি পাতলেই সব শেষ।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বৃটিশ নারী এমপিদের যৌন নির্যাতনের কাহিনী

প্রাণ-আরএফএল’র মহিলা শ্রমিককে গণধর্ষণ

মাও সেতুংয়ের পর সবচেয়ে শক্তিশালী প্রেসিডেন্ট সি জিনপিং

সাবেকদের সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে নতুন অবরোধ আরোপের কথা ভাবছে যুক্তরাষ্ট্র

শীর্ষ সন্ত্রাসী সাদ্দাম হোসেন গ্রেপ্তার

আশ্রয়শিবিরে রোহিঙ্গা নারীদের যৌন ব্যবসা, খদ্দের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া থেকে স্থানীয় রাজনীতিক

এম কে আনোয়ারের দাফন আগামীকাল

‘আন্দোলনের দাবিগুলো নিয়ে ক্যাবিনেটে সুপারিশ করা হয়েছে’

জঙ্গি অভিযান শেষ, আটক হয়নি কেউই

খালেদা জিয়া কক্সবাজার যাচ্ছেন রোববার

রোনালদোই সেরাা

সেরা একাদশে যারা

রোহিঙ্গা ইস্যু- ফের  আসছেন চীনের বিশেষ দূত

রোহিঙ্গাদের জন্য ৩০০০ কোটি টাকার প্রতিশ্রুতি

রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশকে একই সাথে খুশি করা ভারতের জন্য কি কূটনীতির পরীক্ষা?