অস্থায়ী নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় খেলাফত মজলিস

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার, ৭:১৭ | সর্বশেষ আপডেট: ৭:১৭
নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পূর্বে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে অস্থায়ী সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস। পাশাপাশি নির্বাচনের সময় সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে দলটি। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে সংলাপে খেলাফত মজলিস এসব দাবি তুলে ধরে। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আজ মঙ্গলবার ইসি সভাকক্ষে বেলা এগারটায় দুই ঘন্টাব্যাপি এ সংলাপ হয়। দলটির মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হকের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নেয়। এসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, অন্য চার কমিশনার, ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।
সংলাপে দলটির পক্ষ থেকে যেসব দাবি তুলে ধরা হয় সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- নির্বাচনী কার্যক্রম শুরুর দিন থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়সহ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রনালয় ইসির অধীনে আনা, নির্বাচনে ৭ দিন আগে থেকে নির্বাচন পরবর্তী ৭২ ঘন্টা পর্যন্ত সেনা মোতায়েন রাখা, কালোটাকা ও পেশিশক্তির ব্যবহার বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ, ধর্ম ও স্বাধীনতা বিরোধি দলগুলোর নিবন্ধন বাতিল, অনলাইনে মনোনায়ন জমা, সবার জন্য লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করা, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা, নির্বাচন সংক্রান্ত মামলা সর্বোচ্চ ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নিস্পত্তি করা, একই পোস্টারে সব প্রার্থীর পরিচয় ও প্রতীক এবং একই মঞ্চে সব প্রর্থীর বক্তব্যর ব্যবস্থা করা, জামানতের সঙ্গে এসব খরচের টাকা প্রার্থী বা দল থেকে নেয়া। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দলটির মহসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন,  গ্রহণযোগ্য নির্বাচনে আইনের যেসব প্রতিবন্ধকতা রয়েছে তা দূর করার জন্য একজন কমিশনের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা সহ ১৫ দফা দাবি জানিয়েছি। আমাদের দাবি প্রায় ৮০ শতাংশ নির্বাচন কমিশনের মতের সঙ্গে মিলেছে বলে কমিশন আমাদের জানিয়েছে।
সংলাপ শেষে সাংবাদিকদের ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আমরা তাদের দাবিগুলো শুনেছি। রাজনৈতিক যে বিষয়গুলো আছে সেগুলো রাজনৈতিকভাবে সমাধান করতে হবে। তবে এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন উদ্যোগ নিতে পারে। তবে সব সংলাপ শেষে ইসি এক বিঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। এর পরে আমরা বিস্তারিত জানাতে পারব। তিনি বলেন, সাংবিধানিক কিছু বিষয় আছে যেগুলো সরকারের এখতিয়ার।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সংলাপে আসা বিষয়গুলো ইসি সরকারকে অনুরোধপত্রের মাধ্যমে জানাতে পারে। অক্টোবরের মধ্যেই সংলাপ শেষ করা হবে বলে জানান ইসি সচিব। আজ বিকাল তিনটায় ইসলামী ঐক্যজোটের (মিনার প্রতীক) সঙ্গে সংলাপে বসার কথাছিল ইসির। কিন্তু দলটির প্রেসিডেন্ট অসুস্থ থাকায় তারা এখন সংলাপে আসতে পারছে বলে জানিয়েছে। এ জন্য পরবর্তীতে সময় চেয়ে ইসিতে আবেদন করেছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রোখে আইন সংস্কার, সীমানা পুনঃনির্ধারণসহ ৭ দফা ঘোষিত রোডম্যাপ নিয়ে সংলাপের আয়োজন করে ইসি। গত ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপের মধ্য দিয়ে সংলাপ শুরু করে নির্বাচন কমিশন। পরে ১৬ ও ১৭ আগস্ট অর্ধশত গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে সংলাপ করে তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন পরামর্শ গ্রহণ করে ইসি। ধারাবাহিক সংলাপের অংশ হিসেবে ২৪শে  আগস্ট থেকে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক শুরু করে ইসি। আজকের দল নিয়ে এ পর্যন্ত ৮ টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করেছে ইসি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সশস্ত্র বাহিনী জাতির এক গর্বিত প্রতিষ্ঠান: খালেদা জিয়া

কেরানীগঞ্জে বিএনপি অফিসে পুলিশের তালা

সিলেটের টার্গেট ১৭০

‘প্রধানমন্ত্রীর সামনে এখন বিদায়ের দুটি পথ খোলা’

আহত ২০, বিএনপির ৬১ জন আটক

১৩ বছরের প্রতিবন্ধীকে ৬৫ বছরের বৃদ্ধের ধর্ষণ

সাংসদের গাড়ি উল্টোপথে, ট্রাফিক পুলিশের বাধা(ভিডিওসহ)

পঙ্কজ রায়ের জামিন মঞ্জুর

মাছ পরিবহনের কাভার্ডভ্যানে এক লাখ ২০ হাজার ইয়াবা

আম্পায়ারের সঙ্গে সাকিবের এ কেমন আচরণ!

‘ফাঁকা মাঠে গোল দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চাই না’

পৌরসভা থেকে সিটি করপোরেশন হচ্ছে ময়মনসিংহ

রাজধানীর নতুন থানা হাতিরঝিল

জঙ্গি হামলায় আরেক অর্থ সরবরাহকারী গ্রেপ্তার

সৌদি আরবে ২৪ হাজার অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার

রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় তারেক রহমানসহ চারজনের বিচার শুরু