অস্থায়ী নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় খেলাফত মজলিস

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার, ৭:১৭ | সর্বশেষ আপডেট: ৭:১৭
নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পূর্বে সংসদ ভেঙ্গে দিয়ে অস্থায়ী সরকারের অধীনে নির্বাচন চায় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস। পাশাপাশি নির্বাচনের সময় সেনা মোতায়েনের দাবি জানিয়েছে দলটি। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) সঙ্গে সংলাপে খেলাফত মজলিস এসব দাবি তুলে ধরে। রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আজ মঙ্গলবার ইসি সভাকক্ষে বেলা এগারটায় দুই ঘন্টাব্যাপি এ সংলাপ হয়। দলটির মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হকের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল সংলাপে অংশ নেয়। এসময় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা, অন্য চার কমিশনার, ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ উপস্থিত ছিলেন।
সংলাপে দলটির পক্ষ থেকে যেসব দাবি তুলে ধরা হয় সেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে- নির্বাচনী কার্যক্রম শুরুর দিন থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়সহ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রনালয় ইসির অধীনে আনা, নির্বাচনে ৭ দিন আগে থেকে নির্বাচন পরবর্তী ৭২ ঘন্টা পর্যন্ত সেনা মোতায়েন রাখা, কালোটাকা ও পেশিশক্তির ব্যবহার বন্ধে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ, ধর্ম ও স্বাধীনতা বিরোধি দলগুলোর নিবন্ধন বাতিল, অনলাইনে মনোনায়ন জমা, সবার জন্য লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করা, প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা, নির্বাচন সংক্রান্ত মামলা সর্বোচ্চ ছয় মাসের মধ্যে নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নিস্পত্তি করা, একই পোস্টারে সব প্রার্থীর পরিচয় ও প্রতীক এবং একই মঞ্চে সব প্রর্থীর বক্তব্যর ব্যবস্থা করা, জামানতের সঙ্গে এসব খরচের টাকা প্রার্থী বা দল থেকে নেয়া। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে দলটির মহসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেন,  গ্রহণযোগ্য নির্বাচনে আইনের যেসব প্রতিবন্ধকতা রয়েছে তা দূর করার জন্য একজন কমিশনের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা সহ ১৫ দফা দাবি জানিয়েছি। আমাদের দাবি প্রায় ৮০ শতাংশ নির্বাচন কমিশনের মতের সঙ্গে মিলেছে বলে কমিশন আমাদের জানিয়েছে।
সংলাপ শেষে সাংবাদিকদের ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেন, আমরা তাদের দাবিগুলো শুনেছি। রাজনৈতিক যে বিষয়গুলো আছে সেগুলো রাজনৈতিকভাবে সমাধান করতে হবে। তবে এ বিষয়ে নির্বাচন কমিশন উদ্যোগ নিতে পারে। তবে সব সংলাপ শেষে ইসি এক বিঠকে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে। এর পরে আমরা বিস্তারিত জানাতে পারব। তিনি বলেন, সাংবিধানিক কিছু বিষয় আছে যেগুলো সরকারের এখতিয়ার।
এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সংলাপে আসা বিষয়গুলো ইসি সরকারকে অনুরোধপত্রের মাধ্যমে জানাতে পারে। অক্টোবরের মধ্যেই সংলাপ শেষ করা হবে বলে জানান ইসি সচিব। আজ বিকাল তিনটায় ইসলামী ঐক্যজোটের (মিনার প্রতীক) সঙ্গে সংলাপে বসার কথাছিল ইসির। কিন্তু দলটির প্রেসিডেন্ট অসুস্থ থাকায় তারা এখন সংলাপে আসতে পারছে বলে জানিয়েছে। এ জন্য পরবর্তীতে সময় চেয়ে ইসিতে আবেদন করেছে। একাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রোখে আইন সংস্কার, সীমানা পুনঃনির্ধারণসহ ৭ দফা ঘোষিত রোডম্যাপ নিয়ে সংলাপের আয়োজন করে ইসি। গত ৩১ জুলাই সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপের মধ্য দিয়ে সংলাপ শুরু করে নির্বাচন কমিশন। পরে ১৬ ও ১৭ আগস্ট অর্ধশত গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে সংলাপ করে তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন পরামর্শ গ্রহণ করে ইসি। ধারাবাহিক সংলাপের অংশ হিসেবে ২৪শে  আগস্ট থেকে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে বৈঠক শুরু করে ইসি। আজকের দল নিয়ে এ পর্যন্ত ৮ টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করেছে ইসি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘শাসকগোষ্ঠীর নির্মম শিকলে বন্দি মানুষ’

ফেনীতে সাড়ে ১৩ হাজার ইয়াবাসহ আটক ১

ছেলেকে হত্যার পর মায়ের স্বীকারোক্তি

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মচারী নিখোঁজ

নাখালপাড়ায় নিহত এক ‘জঙ্গি’ কাজেম আলী স্কুলের ছাত্র

ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে কলেজছাত্র খুন

অর্থমন্ত্রীর গাড়ি নিয়ন্ত্রন হারিয়ে পথচারীদের ওপর, আহত ৩০

রেকর্ড গড়া জয় বাংলাদেশের

নয়াপল্টনে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ

জিয়াউর রহমানের সমাধিতে খালেদা জিয়ার শ্রদ্ধা

স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াছিন গ্রেপ্তার

আইভীকে হাসপাতালে দেখে আসলেন ওবায়দুল

তিস্তা কূটনীতিতে চোখ ঢাকার

ভারতের পাশাপাশি মুসলিম দেশগুলোর অব্যাহত সমর্থন চেয়েছে বাংলাদেশ

ভারতের সুপ্রিম কোর্টে ফেলানী হত্যার রিট শুনানি ফের পেছালো

যশোরে বিএনপি নেতা অমিতের বক্তব্যে তোলপাড়