মহাকাশ গবেষণায় আসছে দানবীয় এক ক্যামেরা

তথ্য প্রযুক্তি

অনলাইন ডেস্ক | ২৪ আগস্ট ২০১৭, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৫:২১
খুব শিগগিরই ৩২০০ মেগাপিক্সেলের একটি ডিজিটাল ক্যামেরা উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে। ক্যামেরাটি ব্যবহৃত হবে মূলত মহাকাশ গবেষণায়। নতুন একটি টেলিস্কোপ বানানোর জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মহাকাশ বিজ্ঞানীরা একত্রিত হয়েছেন। জানা যায়, এই প্রজেক্টে ২৩টি দেশের বিজ্ঞানীরা আছেন। এই ক্যামেরাটি অসীম মহাকাশে ‘ডার্ক এনার্জি’র খোঁজ করবে। এটার নাম দেওয়া হয়েছে লার্জ সিনোপ্টিক সার্ভে টেরিস্কোপ (এলএসএসটি)।
এই ডিজিটাল ক্যামেরাটি বসানো হবে পৃথিবীতে।
এটি লাখ লাখ আলোকবর্ষ দূরের বিভিন্ন গ্যালাক্সির লুকায়িত ছবি তুলতে সক্ষম।
অ্যাটলাস অবস্কিউরকে ব্রুকহ্যাভেন ন্যাশনাল ল্যাবরেটরির এক সিনিয়র গবেষক পল ও’কনর জানান, আসলে ডার্ক এনার্জি আবিষ্কারের আগে যত শক্তিশালী ক্যামেরা বানানো হয়েছিল। আশা করা হচ্ছে নতুন এই ক্যামেরাটি মহাকাশে লুকানো ডার্ক ম্যাটাররগুলো খুঁজে বের করবে।
ও’কনর এই প্রজেক্টটি নিয়ে গত ১০ বছর ধরে কাজ করছেন। বিশ্বব্রহ্মাণ্ড নিয়ে এত দিনের ধ্যান-ধারণার আমূল পরিবর্তন ঘটবে বলে তিনি মনে করেন।
ক্যামেরার সেন্সর দেওয়া হয়েছে ৩২০০ মেগাপিক্সেল। এই ক্যামেরা আকাশের কোন তারাকে ১০০ মিলিয়ন গুন পরিষ্কারভাবে দেখাবে।
৩ মিটার লম্বা, ১.৬৫ মিটার উচ্চতা, ২৮০০ কেজি ওজনের বৃহদাকার এই ক্যামেরার বৃহৎ ক্যামেরা আর বানানো হয়নি যা মহাকাশ গবেষণায় ব্যবহার করা হয়েছে। ২০১৯ সাল থেকে এটি কাজ শুরু করবে বলে জানা গেছে।

সুত্র-  ইন্ডিয়া টাইমস

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

নবীনগরে আওয়ামী লীগ নেত্রী খুন

রোহিঙ্গাদের সঙ্গে দেখা হবে পোপের

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তনে বিশ্বজনমত গঠিত হয়েছে

৬৯ মাসে তদন্ত প্রতিবেদন পেছালো ৫২ বার

মসনদে বসছেন ‘কুমির মানব’

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সমঝোতার কাছাকাছি বাংলাদেশ-মিয়ানমার

তনুর পরিবারের সদস্যদের ঢাকায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ

স্বপ্ন দেখাচ্ছে সৌর বিদ্যুৎ

আসন ধরে রাখতে চায় আওয়ামী লীগ, ফিরে পেতে মরিয়া বিএনপি

মেয়র পদে ১৩ জনের মনোনয়নপত্র জমা

জিদান খুনের রোমহর্ষক বর্ণনা আবু বকরের

অসহনীয় শব্দ দূষণে বেহাল নগরবাসী

সব স্কুলে ছাত্রলীগের কমিটি দেয়ার নির্দেশ

একতরফা নির্বাচন কোন নির্বাচনী প্রক্রিয়া নয়

‘অনুমোদনহীন বারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

কি পেলাম কি পেলাম না সেই হিসাব মেলাতে আসিনি: প্রধানমন্ত্রী