‘শেখ হাসিনা নওয়াজ শরীফ না’

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে | ১৩ আগস্ট ২০১৭, রবিবার
নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের এমপি আওয়ামী লীগ নেতা শামীম ওসমান বলেছেন, দেশে ও নারায়ণগঞ্জে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। বিচার বিভাগ থেকেও ষড়যন্ত্র হচ্ছে। যারা খেলছেন, খেলতে থাকেন। মনে রাখবেন আমরা কিন্তু খেলোয়াড়। সেই খেলা বিএনপি-জামায়াত হোক, খালেদা জিয়া-তারেক হোক, সুপ্রিম কোর্ট হোক, কোনো সমস্যা না। ওই খেলায় আমরাই জিতবো। তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনা, শেখ হাসিনাই। বাংলাদেশ পাকিস্তান না। শেখ হাসিনা নওয়াজ শরীফও না। বাংলাদেশের মানুষ পাকিস্তানে বসবাস করে না। যদি কেউ মনে করে, পাকিস্তানের আদালত দিয়ে পাকিস্তানে যে অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে তা বাংলাদেশেও একই পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হবে- তাহলে তারা বোকার রাজ্যে বসবাস করছেন। গতকাল বিকালে নারায়ণগঞ্জ শহরের চাষাঢ়ায় শোক র‌্যালির আগে নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে শামীম ওসমান এসব কথা বলেন। পরে তার নেতৃত্বে কালো পতাকা হাতে একটি বিশাল শোক র‌্যালি শহরের প্রধান সড়ক বঙ্গবন্ধু সড়ক প্রদক্ষিণ করে। শোক র‌্যালিকে কেন্দ্র করে দুপুরের পর থেকে শহরে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়। এতে দুর্ভোগে পড়ে নগরবাসী।
শামীম ওসমান বলেন, সমস্ত শকুন এক হয়েছে মরণ আঘাত হানার জন্য। আমার নেত্রী শেখ হাসিনার ওপর আল্লাহর রহমত আছে বলে আমি বিশ্বাস করি। সুতরাং ষড়যন্ত্রকারীরাও শেখ হাসিনার কোনো ক্ষতি করতে পারবে না। আমি শুধু স্পষ্ট বলতে চাই, যে শকুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকে নজর দেবে সেই শকুনদের টুটি চেপে ধরবে নারায়ণগঞ্জবাসী।’ শামীম ওসমান আরও বলেন, চারদিকে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। ওদের একটাই উদ্দেশ্য শেখ হাসিনাকে নিঃশেষ করা। গভীর উদ্বেগের বিষয় যে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বাহিনীতেও এখন শিবির ঢুকে গেছে। হয়তো এই ষড়যন্ত্রের অংশ ছিল রূপগঞ্জের বিশাল অস্ত্র ভাণ্ডার। সেখানে বিমান বিধ্বংসী রকেট লাঞ্চারের মতো  অস্ত্রও ছিল। রূপগঞ্জের অস্ত্রগুলো কার জন্য আনা হয়েছে প্রশ্ন করে শামীম ওসমান বলেন, এই স্থান দিয়ে দেশের প্লেন উড়ে। এখান দিয়েই আমার নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমানে উড়ে যান। এই জায়গা দিয়ে অনেক নিচু দিয়ে বিমান উড়ে যায়। ওরা কি করতে চায় প্রশ্ন করে শামীম ওসমান আরো বলেন, ওদের টার্গেট একটাই। আর সেটা হচ্ছে আমার নেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। তিনি বলেন, সমস্ত শক্তি, সমস্ত ষড়যন্ত্রকারী এক হয়েছে। তাদের এখন একটাই উদ্দেশ্য। তারা শেখ হাসিনাকে ধ্বংস করতে চায়। তাদের উদ্দেশ্য একটাই, দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, সামনের দিকে এগোনোটা স্তব্ধ করতে চায়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চন্দন শীল, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক সামিউল্লাহ মিলন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, সোনারগাঁও থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সামসুল ইসলাম ভুঁইয়া, নারায়ণগঞ্জ আদালতের পিপি ওয়াজেদ আলী খোকন, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, মহানগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান মুন্না, যুব মহিলা লীগের সভানেত্রী ইয়াসমিন সুইটি, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সভাপতি মতিউর রহমান মতি, ফতুল্লা থানা যুবলীগের সভাপতি মীর সোহেল আলী প্রমুখ।


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন