অবস্থার উন্নতি হয়নি সিদ্দিকুরের

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ আগস্ট ২০১৭, রবিবার
 চেন্নাই থেকে আসার পর চোখের অবস্থা অপরিবর্তিতই রয়েছে সরকারি তিতুমীর কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের শিক্ষার্থী সিদ্দিকুর রহমানের। তবে শারীরিকভাবে বেশ দুর্বল হয়ে পড়েছেন তিনি। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে গতকাল সারাদিনে পানিশূন্যতাজনিত সমস্যায় ভুগেছেন তিনি। একই সঙ্গে একাধিকবার পাতলা পায়খানাও হয়েছে বলে জানিয়েছেন জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে সিদ্দিকুরের সঙ্গে থাকা বন্ধু ও সহপাঠী শাহ আলী। তিনি বলেন, শুক্রবার ভারত থেকে সোজা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় সিদ্দিকুরকে। এরপর থেকে টানা বেশ কয়েকবার পাতলা পায়খানা হয়েছে।
যে কারণে শারীরিকভাবে অনেকটা দুর্বল হয়ে পড়েছে সিদ্দিক। এদিকে চোখের অবস্থা প্রসঙ্গে শাহ আলী আরো বলেন, গতকাল হাসপাতালের কয়েকজন ডাক্তার এসে দেখে গেছেন। তবে তেমন কিছুই বলেননি। চেন্নাইয়ের চিকিৎসকের নির্দেশনা অনুযায়ী আরো চার সপ্তাহ পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে সিদ্দিকুরকে। এরপর বোঝা যাবে তার চোখে আলো ফিরবে কিনা। এর আগে গত শুক্রবার বিকালে চেন্নাইয়ের শংকর নেত্রালয়ে চিকিৎসা শেষে দেশের মাটিতে পা রেখে বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সিদ্দিকুর বলেন, আমার চোখের আলোর বিনিময়ে এ দেশের শিক্ষার্থীদের জন্য লেখাপড়ার পরিবেশ স্বাভাবিক হোক। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার আবেদন, অন্ধ বলে যেন সমাজে আমাকে কোনোদিন হেয় হতে না হয়। আমি নিয়মিত লেখাপড়া করতে ও সম্মানজনক অবস্থান চাই। কারো প্রতি আমার কোনো ব্যক্তিগত আক্রোশ কিংবা ক্ষোভ নেই। তবে তদন্তে যদি কিছু বেরিয়ে আসে তাহলে সেটা রাষ্ট্রীয় ব্যাপার। প্রসঙ্গত, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত রাজধানীর সাত সরকারি কলেজের পরীক্ষার তারিখ ও সময়সূচি ঘোষণার দাবিতে গত ২০শে জুলাই শাহবাগে আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের টিয়ারশেলে দুই চোখে গুরুতর আঘাত পান সিদ্দিকুর রহমান। ওই দিনই তাকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে তাকে জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। তার দুই চোখে অস্ত্রোপচার শেষে চিকিৎসকরা জানান, সিদ্দিকুরের ডান চোখ সম্পূর্ণভাবে দৃষ্টিশক্তি হারিয়েছে। বাম চোখে এক দিক থেকে আলোর উপস্থিতি টের পাচ্ছেন সিদ্দিকুর রহমান। তার দৃষ্টিশক্তি ফেরার সম্ভাবনা কম। এরপর উন্নত চিকিৎসার জন্য ২৭শে জুলাই স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে সিদ্দিকুর রহমানকে চেন্নাইয়ে পাঠানো হয়। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তার চোখে অস্ত্রোপচারও হয়। তবে তাতে খুব একটা ফল মেলেনি। অপরিবর্তিত অবস্থা নিয়েই দেশে ফিরতে হয়েছে এই শিক্ষার্থীকে।



 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাজধানীতে ছাত্রদলের মিছিলে হামলা, আহত ৩

যশোরে জঙ্গি সন্দেহে বাড়ি ঘিরে রেখেছে পুলিশ

সুষমা কেন সহায়ক সরকারের কথা বলতে যাবেন: কাদের

আপস না করায় খালেদার বিরুদ্ধে ৩৯ মামলা: ফখরুল

আত্মবিশ্বাস থাকলে যে কোন কঠিন কাজ করা যায়: জয়

আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদারের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

৪ ঘণ্টায় হাজার মণ ইলিশ বিক্রি

সংবিধান বিরোধীদের নিবন্ধন বাতিলের দাবি

প্রতিবন্ধী স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা

‘রোহিঙ্গা নিধনে পরিকল্পিত নির্যাতন চালিয়েছে মিয়ানমার’

রোহিঙ্গা প্রশ্নে ভারতীয় নীতি

অবস্থান পাল্টালো টিএসসি কর্তৃপক্ষ

রাখাইনে ১৭৭০ কোটি কিয়াতের বিশাল কর্মপরিকল্পনা

কেন উত্তরাধিকার বেছে নেবেন না শি জিনপিং?

বিমানবন্দরে সোহেল তাজের স্যুটকেসের তালা ভেঙে তল্লাশি

নিজেকে পতিতার মতো মনে হচ্ছিল- আদ্রিয়েনে লাভ্যালি