কক্সবাজারে প্রতারক চক্রের ৩ সদস্য আটক

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার | ১৩ আগস্ট ২০১৭, রবিবার
কক্সবাজার সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের লিংকরোড এলাকা থেকে ফেন্সিডিল এবং নগদ ১০ লাখ টাকাসহ প্রতারক চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের সদস্যরা। শনিবার ভোররাত ৪টায় পুলিশের স্টিকার লাগিয়ে একটি জীপ নিয়ে যাওয়ার সময় র‌্যাব বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে ওই ৩ প্রতারককে আটক করে। আটকরা হলো ফরিদপুর জেলার আলীপুর খাঁ গ্রামের মো. মোশারফ হোসেনের পুত্র মো. সাকির হোসেন প্রকাশ সোহেল (৩১), রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ থানার জোয়ান মোল্লা গ্রামের বিশ্বনাথ ভক্তের পুত্র হরেকৃষ্ণ ভক্ত (২৬) ও একই থানার আড়ৎ পট্টি গ্রামের মো. আলাউদ্দিনের পুত্র মো. জুয়েল রানা (৩১)। র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. রুহুল আমিন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা ঝিলংজা ইউনিয়নের লিংকরোডে একটি চেকপোস্ট স্থাপন করি। উক্ত চেকপোস্টে পুলিশের মনোগ্রাম ব্যবহার করে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে মাদকসহ বিভিন্ন অবৈধ কাজ করার দায়ে ১টি জীপ গাড়ি (ঢাকা মেট্রো ব-১১-৪৩০৯) তিনজনকে আটক করি। পরবর্তীতে ৩ ব্যক্তি এবং গাড়িটি তল্লাশি করে ২ বোতল ফেন্সিডিল, ৬টি পুলিশ লেখা স্টিকার, ৪টি পুলিশের মনোগ্রাম ও ১০ লাখ টাকা উদ্ধার করা হয়।
তিনি আরো জানান, আটকদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানায় বিভিন্ন সময় কক্সবাজার এলাকার বিভিন্ন মাদক চক্রের সহযোগিতায় উক্ত জীপ গাড়ির সামনের গ্লাসে পুলিশ স্টিকার লাগিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে ইয়াবা দেশের বিভিন্ন স্থানে সরবরাহ করে থাকে। আটককৃত আসামি এবং জব্দকৃত মালামালের বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কক্সবাজার সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সুপারমডেল থেকে মাতৃসেবায়

বোতলে ভরা চিঠি সমুদ্র ফিরিয়ে দিল ২৯ বছর পর!

কার সমালোচনা করলেন বুশ, ওবামা!

পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া রুটে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ

জুমের মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেনা বাংলাদেশের ফ্রিল্যান্সাররা

স্বাধীনতা নয়, কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে যাচ্ছে কাতালান

অস্ট্রেলিয়ার গহীন মরুতে ১৮শতাব্দীর বাংলা পুঁথি

হারভে উইন্সটেন যেভাবে হোটেলকক্ষে অভিনেত্রীকে যৌন নির্যাতন করেন

আজও সারাদিন বৃষ্টি

ভারতের ‘অ্যাক্ট ইস্ট’ পলিসির মূল স্তম্ভ হলো বাংলাদেশ

ভর্তি পরীক্ষায় ‘র‌্যাগের’ বিরুদ্ধে রাবি প্রশাসনের কঠোর অবস্থান

‘এই ধরনের কাজ করতে আমি সবসময়ই বেশ স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি’

মসজিদে গুলি ছোড়ার পর পাল্টে গেল এক মার্কিনীর জীবন

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতির মচ্ছব

দৃশ্যপট একই

আয় বৈষম্য বাড়ায় চাপে মধ্যবিত্ত