বিদেশেও আলোচনায় তাসনিম জারার সাদামাটা বিয়ে

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ আগস্ট ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:৩১
বাংলাদেশের মেয়ে তাসনিম জারা’কে নিয়ে দেশের বাইরেও এখন আলোচনা। কোনো বিলাসিতা ছাড়া, মেকআপ না করে, স্বর্ণালংকার না পরে সাদামাটাভাবে বিয়ে করে তিনি এখন দেশের সীমানার বাইরে মানুষের আগ্রহে পরিণত হয়েছেন। তাই তাকে নিয়ে গুরুত্ব দিয়ে খবর প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি। এর শিরোনামে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের এক কনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছেন। রিপোর্টে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে এক কনে তার বিয়েতে নানীর একটি সুতির শাড়ি পরে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন। এ সময় তিনি প্রচলিত ধারায় যে মেকআপ করেন কনেরা তা করেন নি। পরেন নি কোনো স্বর্ণালংকার। তার স্বামীর সঙ্গে এমনই একটি ছবি তিনি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট৫ করেছেন। তারপর থেকেই তীব্র বিতর্ক চলছে। রিপোর্টে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ একটি দরিদ্র দেশ। এখানে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতায় বিপুল পরিমাণ অর্থ খরচ করে থাকেন বর ও কনে উভয় পক্ষ। কিন্তু সেই ধারার পরিবর্তন ঘটাতে চান তাসনিম জারা। তিনি গরিবদের জন্য স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার জন্য একটি দাতব্য সংস্থা পরিচালনা করেন। তাসনিম জারা বলেন, বিয়ের দিনে যে ভারী ভারী স্বর্ণালংকার পরতে হবে কনেকে এমন ধারণাকে তিনি চ্যালেঞ্জ জানাতে চেয়েছেন। তিনি ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে লিখেছেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি আমাদের মানসিকতা পাল্টাতে হবে। তার এই পোস্টটিতে শুক্রবার নাগাদ লাইক পড়েছে ৯১ হাজারেরও বেশি। শেয়ার হয়েছে কমপক্ষে ২৪ হাজার বার। তাসনিম জারা এতে আরো লিখেছেন, ত্বক উজ্বল করার লোশন ব্যবহারের দরকার নেই একজন মেয়ের। একজন কনেকে সুন্দর দেখাতে দরকার নেই স্বর্ণের মোটা চেইন, দামি শাড়ি। ওই পোস্টে তিনি বলেছেন, আত্মীয়-স্বজন সহ বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে তিনি এ দৃষ্টিভঙ্গির বিরোধিতার মুখোমুখি হয়েছেন। এমনকি তারা তাসনিমের সঙ্গে ছবিও তুলতে রাজি হন নি। তিনি বলেন, আমাদের সমাজে প্রচলিত রীতিতে কনেকে একটি একক ইমেজে দেখানো হয়। তা হলো ভারি মেকাপ, ভারি পোশাক, স্বর্ণালংকারে তার দেহ জড়ানো। এই ধারণাটিতে আমি বিরক্তি বোধ করি। কনেকে এভাবে সাজানোতে কোনো নারীর আর্থিক বিষয়কে প্রকাশ করতে পারে না। একটি পরিবারে একজন নারীর ভূমিকা কি হবে তার প্রকাশ ঘটায় না। এএফপি লিখেছে, তার এ পোস্ট নিয়ে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ বাংলাদেশে ব্যাপক বিতর্ক হচ্ছে। এখানে মেয়ের বিয়েতে বা ছেলের বিয়েতে প্রচুর অর্থ খরচ করে সংশ্লিষ্ট পরিবারগুলো। তা করতে গিয়ে অনেক পরিবার বছরের পর বছর ঋণগ্রস্ত থাকে। তাসনিম জারার পোস্টের জবাবে একজন মন্তব্য করেছেন, যারা মেকাপ বা স্বর্ণালংকারে অর্থ খরচ করতে চান তাদের সমালোচনা করার কোনো অধিকার নেই জারার। কিন্তু ফেসবুকে তার পোস্টে যত মন্তব্য বা কমেন্ট এসেছে তার বেশির ভাগই তাকে সমর্থন জানিয়েছে। একজন লিখেছেন, তাসনিম জারার এ উদ্যোগ অত্যন্ত চমৎকার।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

MUHAMMAD ABU SAYEED

২০১৭-০৮-১৮ ০৬:৩০:২২

Really a great start.

SHAHID SHAIKH

২০১৭-০৮-১৪ ০৩:০৬:৩৭

SHUVO KAAJER SHUCHONA.ONEEK ONEEK DHONNOBAAD

Advocate mohammed id

২০১৭-০৮-১২ ১১:০০:১৬

Congratulations

Forkan

২০১৭-০৮-১২ ০৪:১৯:৫৪

Dear Sister, I am praying to Almighty Allah for your good health to continue the same and Allah will give u ZAZAH for this. We must follow the rules of Islam

Mahedi

২০১৭-০৮-১২ ০০:১৫:০৪

Thanks& congratulations.

মশিউর

২০১৭-০৮-১১ ২৩:০৪:০৫

শুধু লাইক দিয়ে লাভ নাই। মানসিকতা পাল্টাতে হবে।

আপনার মতামত দিন