মেয়েকে বাঁচাতে অসহায় পিতার আর্তি

বাংলারজমিন

শ্রীমঙ্গল (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি | ১২ আগস্ট ২০১৭, শনিবার
মস্তিষ্কের জটিল রোগে আক্রান্ত আয়েশা। সহপাঠীদের সঙ্গে কলেজে থাকার কথা তখন জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে। সে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার মুসলিমবাগ আবাসিক এলাকার বাসিন্দা কবির মিয়ার একমাত্র কন্যা ও শ্রীমঙ্গল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রী। আয়েশার বাবা পেশায় নির্মাণ শ্রমিক হওয়ায় তার একমাত্র মেয়ের জন্য সমাজের বিত্তবানদের প্রতি সাহায্যের হাত বাড়ানোর অনুরোধ করে বলেছেন ‘আমি দিশাহারা। হে প্রিয় বাংলাদেশ তুমি কি পারবে আমার সন্তানকে বাঁচাতে’?। আয়েশা আক্তার (১৬) বিগত দেড় বছর যাবৎ ‘হাইড্রোফালাস শান্ট’ নামক মস্তিষ্কের জটিল রোগে আক্রান্ত। তার পঞ্চাশোর্ধ্ব পিতা কবির মিয়া শ্রমিকের কাজ করেন এবং চিকিৎসার ১ম পর্যায়ে ২০১৬ সালে দ্বারে দ্বারে ঘুরে প্রায় লক্ষাধিক টাকা সংগ্রহ করে এ পর্যন্ত চিকিৎসার খরচ নির্বাহ করেছেন। বিগত দেড় বছর ধরে সিলেট এম এ জি ওসমানী হাসপাতাল ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়ে তিনি আজ সর্বস্বান্ত। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিউরোলজী বিভাগের প্রধান জানিয়েছেন,তাকে বাঁচাতে হলে মস্তিষ্কের আরো একটি জটিল অপারেশন ও দীর্ঘস্থায়ী চিকিৎসা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে তার প্রায় ৪ থেকে ৫ লাখ টাকা জরুরি ভিত্তিতে প্রয়োজন। বর্তমানে সহায় সম্পদহীন, নিঃস্ব পিতার পক্ষে কন্যার অত্যাবশ্যকীয় চিকিৎসা ব্যয় চালানো পুরোপুরিভাবে অসম্ভব হয়ে পড়েছে। মেধাবী কন্যাকে বাঁচাতে তিনি সমাজের বিত্তশালীদের নিকট আর্থিক সাহায্যের আবেদন করছেন। আয়েশাকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা মো. কবির হোসেন, সঞ্চয়ী হিসাব নং- এফ ৫৬, ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড, শ্রীমঙ্গল শাখা।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন