নষ্ট হচ্ছে হেলিপ্যাড

বাংলারজমিন

চিলমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি | ১২ আগস্ট ২০১৭, শনিবার
 চিলমারী উপজেলায় অবস্থিত হেলিপ্যাডে পাথরসহ বিভিন্ন মালামাল রাখায় দিন দিন নষ্টের পথে মাঠটি। শুধু তাই নয় প্লান্ট মেশিনের ধোঁয়া আর উড়ন্ত ছাইয়ে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী। দূষিত হয়ে পড়ছে আশপাশ এলাকা। অভিযোগ করেও প্রতিকার মিলছেনা। অজ্ঞাত কারণে প্রশাসন নীরব। ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী। যেকোনো মুহূর্তে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা।
জানা গেছে, চিলমারী উপজেলার মাটিকাটা এলাকায় অবস্থিত হেলিপ্যাড মাঠে দীর্ঘদিন থেকে দু’টি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিয়মনীতিকে তোয়াক্কা না করেই স্থানীয় হেলিপ্যাড মাঠটিতে পাথর, কেরিং করার যানবাহন, বিভিন্ন মালামাল রাখায় মাঠে বিভিন্ন স্থানে দেবে যাওয়ার সাথে সাথে দেখা দিয়েছে নানান সমস্যা। শুধু তাই নয় জনবসতিপূর্ণ এই এলাকায় তাদের কার্যক্রমের জন্য আনা প্লান্ট মেশিনের মাধ্যমে বিটুমিন ও পাথর মিশ্রন চলা কালীন বিষাক্ত কালো ধোঁয়া ও উড়ন্ত ছাইয়ে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে চরম দুর্ভোগে পড়েছে বলে জানান এলাকাবাসী। এলাকাবাসীর জানান মিশ্রনের সময় ছেড়া জুতা ও টায়ার পাড়ানো হয় আর ঐ সময় বিষাক্ত কালো ধোঁয়ার এলাকায় থাকাটাই মুশকিল। শুধু তাই নয় মিশ্রণ চলাকালীন উড়ন্ত ছাইয়ের জন্য আশপাশে বসবাস করাই বিপদ হয়ে পড়েছে। এলাকার মিঠু, আব্দুর ছাত্তার, সুমন, জিয়াউর রহমানসহ অনেকে অভিযোগ করে বলেন এই ব্যাপারে বারবার প্রশাসনকে বলেও কোনো লাভ হচ্ছে না। কেন স্থানীয় প্রশাসন এই ব্যাপারে পদক্ষেপ নিচ্ছে না তাও আমরা বুঝতে পারছি না। শুধু তাই নয় দীর্ঘদিন থেকে মাঠটিতে তাদের মালামাল থাকায় মাঠের বিভিন্ন স্থানে ভাঙনসহ দেবে গেছে ফলে সরকারের এই স্থাপনাটিও নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা মুরাদ হাসান বেগ এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন তাদের সাথে কথা হয়েছে দু’চারদিনে মধ্যে তাদের কাজ শেষ হবে। পরে কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন যেহেতু এটি এলজিইডির কাজ এব্যাপারে তাদের সাথে কথা বলেন তবে বিষয়টি আমি ক্ষতিয়ে দেখব।


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন