শাহজালাল (রহ.) উরস শুরু আজ

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে | ১২ আগস্ট ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৫২
ওলিকুল শিরোমণি হজরত শাহজালাল (রহ.) বার্ষিক উরস মোবারক শুরু হচ্ছে আজ। ইতিমধ্যে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভক্ত ও আশেকানরা দলে দলে আসতে শুরু করেছেন মাজার প্রাঙ্গণে। গতকালও মাজার এলাকায় ছিল উপচে পড়া ভিড়। জুমার নামাজে অংশ নেন হাজার হাজার মুসল্লি। এদিকে- উরসকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করে রেখেছে মাজার কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি পুলিশ, র‌্যাব ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেয়া হয়েছে মাজার এলাকা।
মাজারের তিনটি ফটক দিয়েই মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি চলে ভক্তদের ভেতরে ঢুকানো হচ্ছে। সিলেট মহানগর পুলিশ জানিয়েছে, উরসে যাতে কোনো ধরনে অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে সে কারণে চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। বসানো হয়েছে আর্চওয়ে গেইটও। এবার ওলিকুল শিরোমনি হজরত শাহজালাল (রহ.) এর ৬৯৮তম বার্ষিক উরস মোবারক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ সকালে গিলাফ ছড়ানোর মধ্য দিয়ে শুরু হবে উরসের আনুষ্ঠানিকতা। আর আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে রোববার সকালে শেষ হবে উরসের আনুষ্ঠানিকতা। শুক্রবার রাতে শিরনির জন্য অর্ধশতাধিক ছাগল ও গরু জবাই করা হয়। এছাড়া, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে জিকির আজকার শুরু হয়েছে। মাজার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রথমে মাজারের খাদেমদের পক্ষ থেকে গিলাফ ছড়ানো হবে। এরপর একে একে ভক্ত ও আশেকানরা দল বেঁধে গিয়ে মাজারে গিলাফ চড়িয়ে আসবেন। উরসে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকেও গিলাফ দেয়া হয়। বিকাল পর্যন্ত গিলাফ চড়ানো পর্ব চলবে। এরপর কোরআন খতম, জিকির আজকার ও মিলাদ মাহফিল রয়েছে উরসের আনুষ্ঠানিকতায়। রোববার বাদ ফজর আখেরি মোনাজাতের পর শিরনি বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছেন মাজার সংশ্লিষ্টরা। এদিকে শুক্রবার সিলেটে দিনভর মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাত হয়েছে। এই বৃষ্টিপাতের কারণে মাজারে আসা ভক্ত ও আশেকানদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। এরপর দুরদুরান্ত থেকে ভক্ত ও আশেকানরা মাইক বাজিয়ে গাড়ি নিয়ে উরসে অংশ নিতে এসেছেন। উরসের কারণে সিলেট নগরীর হোটেলগুলোতে আসন সংকট চলছে। উরসে আসা ভক্তরা ইতিমধ্যে হোটেলগুলোতে উঠেছেন। অনেকেই হোটেল না পেয়ে দরগাহ এলাকায় খোলা আকাশের নিচে থাকছেন। হজরত শাহজালাল (রহ.)-এর উরসকে কেন্দ্র পুরো মাজার এলাকাকে নিজেদের নিরাপত্তাব্যুহের আওতায় নিয়ে আসবে পুলিশ। উরসকে কেন্দ্র করে আগামী শুক্রবার থেকেই মাজার এলাকা ঘিরে মাঠে নেমে পড়েছে পুলিশ। নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে থাকবে ছদ্মবেশী পুলিশ। ভিক্ষুক, সাধারণ মানুষ, বিভিন্ন পণ্য বিক্রেতা, চানাচুর বিক্রেতাসহ নানা ছদ্মবেশ ধারণ করে উরসে আগত জনতার সঙ্গে মিশে যাবেন পুলিশ ও গোয়েন্দা সদস্যরা। নিরাপত্তার কাজে এক হাজারেরও বেশি পুলিশ সদস্য কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার জেদান আল মুসা। উরসের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং সন্দেহজনক যেকোনো ধরনের তৎপরতা রুখে দিতে শাহজালালের মাজার এলাকায় অর্ধশতাধিক ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। বর্তমানে মাজার এলাকায় থাকা ১৮টি সিসি ক্যামেরার সঙ্গে আরো প্রায় ৩০টি ক্যামেরা বসিয়েছে প্রশাসন। পুলিশ জানায়, উরস চলাকালে মাজার এলাকায় চার স্তরের নিরাপত্তাবলয় গড়ে তোলা হবে। এই চার স্তর হচ্ছে- মাজারের মূল ফটক, ইনার কর্ডন, আউটার কর্ডন এবং মাজার এলাকার আশপাশের বিভিন্ন পয়েন্টে নিরাপত্তা ব্যবস্থা। মাজারের আশপাশের হোটেলগুলোতেও থাকবে নজরদারি। নিরাপত্তায় পুলিশের সঙ্গে র‌্যাব, আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন, স্পেশাল ব্র্যাঞ্চ (সিটি এসবি)সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও দায়িত্ব পালন করবেন। উরস চলাকালে বিশৃঙ্খলা এড়াতে নগরীর পাঁচটি সড়কে যান চলাচল নিষিদ্ধ করেছে পুলিশ প্রশাসন। এছাড়া উরস চলাকালে মাজার ও আশপাশ এলাকায় কোনো ধরনের যানবাহন পার্কিং না করতেও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। পুলিশ জানায়, উরস চলাকালে আম্বরখানা-চৌহাট্টা পয়েন্ট পর্যন্ত সড়ক, দর্শন দেউরী-ঝর্ণারপাড়, রাজার গলি-মাজারের প্রধান গেট, মিরের ময়দানস্থ হোটেল হেরিটেজ-ঝর্ণারপাড় সড়ক এবং আলিয়া মাদরাসা সড়কস্থ পূবালী ব্যাংকের গেট-মিনার গেট পর্যন্ত সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ব্রাজিল ফুটবলের প্রধান ৯০ দিন নিষিদ্ধ

ঝিকরগাছায় ছাত্রলীগ কর্মী খুন, সড়ক অবরোধ

উৎসবের আমেজে সারাদেশ

জনগণের দেয়া রায় মেনে নেবে বিএনপি: ফখরুল

কংগ্রেস সভাপতি পদে রাহুল গান্ধীর আনুষ্ঠানিক অভিষেক

দুই নারীর একজন স্বামী, অন্যজন স্ত্রী

আ’লীগের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১৫

নওগাঁয় যুবককে কুপিয়ে হত্যা

গার্মেন্টে যৌন নির্যাতনের অভিযোগ তদন্ত করছে এইচ অ্যান্ড এম

নাশকতার অভিযোগে ২০ শিবিরকর্মী আটক

বিএনপির বিজয় র‌্যালিতে যুবলীগ-ছাত্রলীগের হামলা

বিজয় উৎসব পালন করতে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় ৮ মুক্তিযোদ্ধাসহ আহত ৯

আমৃত্যু এক যোদ্ধার কথা

ছাত্রদলের পুষ্পস্তবক ছিঁড়লো ছাত্রলীগ

বঙ্গবন্ধুর গৃহবন্দি পরিবারকে যেভাবে উদ্ধার করেছিলেন কর্নেল তারা

ভারতে তিন তালাক বিরোধী খসড়া আইনে সরকারের অনুমোদন