চীনে শক্তিশালী ভূমিকম্পে নিহত ১৩

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৯ আগস্ট ২০১৭, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ৪:৫৫
চীনে শক্তিশালী ভূমিকম্পে কমপক্ষে ১৩ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১৭৫ জন। এর মধ্যে ২৮ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। মঙ্গলবার দক্ষিণ-পশ্চিম চীনের এক জনপ্রিয় পর্যটন স্থলে এই ভূমিকম্প আঘাত হানে।  এদিন রাতে মানুষ যখন গভীর ঘুমে তখন সিচুয়ান প্রদেশের জিউঝাইগু এলাকা প্রচ- জোরে কেঁপে ওঠে। মানুষজন হতচকিত হয়ে ঘরের বাইরে বেরিয়ে আসে। আবার অনেকে ঘরের নিচে চাপা পড়েছেন। ধসে পড়েছে অনেক স্থাপনা। বার্তা সংস্থা সিনহুয়া বলেছে, নিহতের মধ্যে ৫ জন বিদেশী পর্যটক রয়েছেন। ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেল। সেখান থেকে কমপক্ষে ২৮০০ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পযন্ত উদ্ধারকর্মীরা ধ্বংসাবশেষ পরিষ্কার করছিলেন। ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনও অনেক মানুষ আটকা পড়ে আছে বলে মনে করা হচ্ছে। ভূমিকম্পটি কতটুকু শক্তিশালী বা কতখানি বিস্তৃত ছিল তা নিয়ে অবশ্য মতভেদ আছে। ‘ইউএস জিওলজিক্যাল সার্ভে’ জানায়, ৬.৫ মাত্রার ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল ইয়োংলে থেকে ৩৫ কিলোমিটার (২২ মাইল) পশ্চিম-দক্ষিণ পশ্চিমে। কিন্তু ‘চায়না আর্থকোয়েক নেটওয়ার্ক্স সেন্টার’-এর ভাষ্যমতে, এটি ৭.০ মাত্রার ভূমিকম্প বলে জানায় সিনহুয়া। ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল থেকে ৩০০ কিলোমিটর (১৮৬ মাইল) দূরবর্তী প্রাদেশিক রাজধানী চেংদুর বাসিন্দারা রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তারাও ভূকম্পন অনুভব করেছেন। ‘চায়না আর্থকোয়েক অ্যাডমিনিস্ট্রেশন’ চতুর্থ মাত্রা জরুরী অবস্থা জারি করেছে। প্রতিষ্ঠানটির জরুরী অবস্থার চারটি মাত্রার মধ্যে এটিই সর্বোচ্চ। সিসিটিভি জানিয়েছে, প্রায় ৪০০ দমকল গাড়ি ও ১১০০ জনেরও বেশি দমকল কর্মীদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। তারা ৫৫টি প্রাণস্পন্দন শনাক্তকারী যন্ত্র, ৩০টি উদ্ধারকারী কুকুর ও ২০টি জেনারেটর ব্যবহার করছেন।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন