ক্ষমা চাইলে ইমরানকে মাফ করে দেবেন আয়েশা, কিন্তু...

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ৬ আগস্ট ২০১৭, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৩:১৭
অশালীন এসএমএসের জন্য ক্ষমা চাইলে ইমরান খানকে ক্ষমা করে দেবেন আয়েশা গুলেলাই। এ কথা আয়েশা নিজেই বলেছেন। গত কয়েকদিন ধরেই পাকিস্তান তেহরিকে ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান ও তার দলত্যাগী এমপি আয়েশা গুলেলাই ইস্যুতে উত্তেজনা বিরাজ করছে দেশটির রাজনীতিতে। নতুন অন্তর্বর্তী প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসী আয়েশার অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিশেষ তদন্ত কমিটি করে তদন্তের প্রস্তাব দিয়েছেন। পার্লামেন্ট তা অনুমোদন দেয়ায় এখন তদন্তের মুখোমুখি ইমরান খান। এ অবস্থায় তাকে যদি আয়েশা ক্ষমাও করে দেন তাহলেও তদন্ত বন্ধ হবে বলে মনে হয় না। কারণ, ইমরান খানের কারণে ক্ষমতাচ্যুত হয়েছেন নওয়াজ শরীফ। এখন তার প্রতিশোধ নিতে এই ইস্যুকে ব্যবহার করবে ক্ষমতাসীন পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএলএন) এটাই স্বাভাবিক। ফলে আয়েশা ক্ষমা করে দেয়ার যে প্রস্তাব করেছেন তার মধ্যেও থাকতে পারে রাজনীতির একটি বড় চাল। যদি ইমরান তার এ প্রস্তাবে ক্ষমা চান তাহলে প্রমাণ হয়ে যাবে যে, আসলেই তিনি অপরাধী। আয়েশা গুলেলাইকে তিনি অশালীন এসএমএস পাঠিয়েছিলেন। ফলে পার্লামেন্টে পাস হওয়া তদন্ত কমিটি তদন্তে গতি পাবে। শেষ পর্যন্ত তাকে কেন্দ্র করে কঠিন কোনো পরিণতি ভোগ করতে হতে পারে ইমরানকে। অনলাইন ডন লিখেছে, তাদের সাংবাদিক এ বিষয়ে আয়েশার সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করেন । তখন তিনি বলেন, যদি ইমরান খান মেনে নেন তিনি এটা করেছেন। তিনি হয়রানি করেছেন। আল্লাহর কাছে, জাতির কাছে ও নারীদের কাছে ক্ষমা চান তাহলে আমি তাকে মাফ করে দেবো। কয়েকদিন আগে তিনিই সংবাদ সম্মেলন করে পিটিআই থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন। ওই সংবাদ সম্মেলনে দলীয় চেয়ারম্যান ইমরান খানের বিরুদ্ধে তিনি দৃশ্যত যৌন হয়রানির অভিযোগ আনেন। বলেন, ইমরান খান তাকে অশালীন এসএমএস পাঠিয়েছিলেন। তিনি নারীদের সম্মান দিতে জানেন না। তার এ অভিযোগের ফলে দলীয় সদস্যদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। ক্ষমতাসীন পিএমএলএনের সঙ্গে শত্রুতা এতে বেড়ে যায় পিটিআইয়ের। পিটিআই দাবি করছে, পিএমএলএন ইমরান খানের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে ষড়যন্ত্র করছে এবং সেই ষড়যন্ত্র করছে আয়েশাকে দিয়ে। তাদের দাবি, আয়েশা পিএমএলএনে যোগ দেবেন এমন টোপ দেয়া হয়েছে। তবে তিনি এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ওদিকে নওয়াজ শরীফকে অযোগ্য ঘোষণার পর জাতীয় পরিষদের ১২০ নম্বর আসন ফাঁকা হয়ে গেছে। সেখানে উপনির্বাচন আসন্ন। সেই নির্বাচনে পিটিআই থেকে নির্বাচন করছেন ড. ইয়াসমিন রশিদ। তিনি এরই মধ্যে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে যাওয়া শুরু করেছেন। তবে তার প্রচারণায় পিএমএলএনের নেতাকর্মীরা বাধা দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। তবে এখনও পিএমএলএন এ আসনে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে নি।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন