পাহাড়ের আগুন এবার ছড়ালো সমতলে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৩০ জুলাই ২০১৭, রবিবার
পাহাড়ের আগুন এবার ছড়ালো সমতলে। শনিবারের পর ফের  গতকাল সকাল থেকে গোর্খা মুক্তি মোর্চার সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষে  উত্তপ্ত হয়েছে আলিপুরদুয়ার। গতকাল সকালে জয়গায় মিছিল আটকালে পুলিশকে লক্ষ করে ইটবৃষ্টি করে মোর্চা কর্মী সমর্থকরা। মিছিল থেকে পেট্রোল বোমা ছোড়া হয় বলেও অভিযোগ। রাস্তার উপরে গাড়ি উল্টে ফেলে দিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয় মোর্চা সমর্থকরা। এই ঘটনায় ইটের ঘায়ে আলিপুরদুয়ার পুলিশের ডিআইজি রাজেশ যাদবসহ বেশ কিছু পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন।
গ্রেপ্তার করা হয়েছে কয়েকজন মোর্চা সমর্থককে। কিন্তু তাতেও পরিস্থিতি বদলায়নি। পরিস্থিতি সামলাতে পুলিশ পাল্টা টিয়ার গ্যাসের শেল ফাটায়, লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। পুলিশ জানিয়েছে, যত বেলা বেড়েছে পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে।  বেলা দু’টো নাগাদ তোর্সা চা বাগানে রাস্তার ওপর টায়ার জ্বালানো হয়, মোংলাবাড়িতে একটি যাত্রীবাহী গাড়ি দাঁড় করিয়ে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়। পাথর ফেলে অবরোধ করে দেয়া হয় ভারত-ভুটান জাতীয় সড়ক।
ঘটনার পর এলাকায় কড়া পুলিশ পাহারা মোতায়েন হয়েছে। অন্যদিকে, শনিবারের পর গতকালও সুকনায় পুলিশ মোর্চার মিছিল আটকালে বিক্ষোভ করে মোর্চা সমর্থকরা। এদিন সকালে নারী মোর্চা মিছিল বের করে। পুলিশ বাধা দিলে ৫৫ নম্বর জাতীয় সড়কে পাথর ফেলে রাস্তা অবরোধ করে মোর্চা সমর্থকরা। গতকাল সকাল থেকে সুকনায় বন্ধ ডাকে মোর্চা। শনিবার সুকনায় মোর্চার সশস্ত্র মিছিল আটকালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় মোর্চাকর্মী, সমর্থকদের। টায়ার জ্বালিয়ে, গাছ ফেলে পুলিশকে লক্ষ করে ইটপাথর ছুড়ে, গাড়ি ভাঙচুর করে তারা। ওই দিনই কাঞ্চনজঙ্ঘা স্কুলে মোর্চার কেন্দ্রীয় কমিটির  বৈঠকে স্থির হয়েছে, আগামী ৮ই আগস্টের মধ্যে দার্জিলিংয়ের সংসদ সদস্য সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া কেন্দ্রকে গোর্খাল্যান্ড নিয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপের বিষয়ে না অবগত করলে পরদিন থেকে আন্দোলন জোরদার হবে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন