তিনি হতে চেয়েছিলেন নৃত্যশিল্পী

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৭ জুলাই ২০১৭, সোমবার

ভারতীয় নারী ক্রিকেট দলে ‘শচীন টেন্ডুলকার’ নামে পরিচিত মিতালি রাজ। এ নাম এমনি এমনি হয়নি। ব্যাটিংয়ে রানের রানী তিনি। পুরুষদের ওয়ানডে ক্রিকেটে শচীনের যেমন সবচেয়ে বেশি রান মেয়েদের ওয়ানডেতেও মিতালি রাজের তেমন সবচেয়ে বেশি রান। ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে চলতি নারী বিশ্বকাপে তিনি এই রেকর্ড গড়েছেন। নারীদের ওয়ানডে ক্রিকেটে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ৬০০০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন তিনি। ১৮৩ ম্যাচে তার রান ৬০২৮। ওয়ানডেতে সবচেয়ে বেশি ফিফটি তার। কমপক্ষে ১০০ ওয়ানডে খেলেছেন এমন খেলোয়াড়দের তালিকায় একমাত্র তার ব্যাটিং গড় ৫০ এর ওপরে। অথচ এই মিতালি রাজ হতে চেয়েছিলেন একজন নৃত্যশিল্পী। ছোটবেলায় নাচ শিখতে শিখতেই একসময় ক্রিকেটের দিকে ঝুঁকে পড়েন। ওই নাচ ছেড়ে পুরোদমে শুরু করেন ক্রিকেট। তারপরই হয়ে ওঠেন বিশ্বের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার।
মিতালির বাবা দোরাই রাজ তার ক্রিকেটার হয়ে ওঠার গল্প শুনালেন। মিতালির বড় ভাই মিঠু রাজ ক্রিকেট খেলতেন। একটি একাডেমিতে নিয়মিত অনুশীলনের জন্য যেতেন তিনি। ছোট বয়সে বড় ভাইয়ের সঙ্গে ক্রিকেট খেলা দেখতে একাডেমির মাঠে নিয়মিত হাজির হতেন মিতালি। তখনো তারমধ্যে ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন জাগেনি। শিখতেন ভরতনাট্যম নাচ। বড় নৃত্যশিল্পী হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন তিনি। এক সময় তার বড় ভাই ক্রিকেট ছেড়ে দেন। এতদিনে ক্রিকেটের প্রতি আগ্রহ বাড়তে থাকে মিতালির। তার বড় ভাইয়ের এক কোচ মিতালির ক্রিকেট আগ্রহ দেখে অবাক হন। বিষয়টি তার বাবাকে জানান কোচ। তারপর ধীরে ধীরে শুরু হয় নতুন পথচলা। বিষয়টি নিয়ে মিতালির বাবা বলেন, ‘মিতু (মিতালির ডাকনাম) সকালবেলা ঘুম থেকে উঠতে চাইতো না। তবে ক্রিকেট দেখতে যাওয়ার কথা বললে জেগে উঠতো। সকালে না ঘুমানোর অভ্যাস ত্যাগ করার জন্য তাকে তার বড় ভাইয়ের সঙ্গে একাডেমির মাঠে ক্রিকেট দেখতে যেতে বলতাম। এতে সে নিয়মিত সকালে ঘুম থেকে জেগে উঠতো। তার ভাইয়ের সঙ্গে মাঠে ক্রিকেট দেখতে যেত। একদিন একাডেমির কোচ ও আমার বন্ধু জয়তী জানালো যে, মিতালির নাকি ক্রিকেটের প্রতি অনেক ঝোঁক। আমিও বিষয়টি লক্ষ্য করলাম। তখন তার নাচের অধ্যায় শেষ হয়ে গেল। এবার শুরু হলো ক্রিকেটের অধ্যায়। তারপর তো কতকিছু। আর এখন সে এই পর্যায়ে। তাকে নিয়ে আমার গর্বের শেষ নেই।’ মিতালিকে কেন ভারতের নারী ‘টেন্ডুলকার’ বলা হয় তার প্রমাণ পাওয়া যাবে কিছু পরিসংখ্যানে। নিচে তার কিছু তুলে ধরা হলো-   
একদিনের ক্রিকেটে সর্বাধিক রান
কয়েকদিন আগে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বিশ্বকাপে ওয়ানডেতে ব্যক্তিগত ৬ হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন। এর আগে নারীদের একদিনের ক্রিকেটে সর্বাধিক রান সংগ্রাহক ছিলেন ইংল্যান্ডের শার্লট এডওয়ার্ডস। তার করা ৫৯৯২ রান টপকে মিতালি আপাতত ৬০২৮ রানে দাঁড়িয়ে। আর আশপাশে তাকে ধরার মতো কেউ নেই।
একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ গড়
একদিনের ক্রিকেটে সর্বোচ্চ গড় এই বিভাগেও সকলকে টপকে গিয়েছেন ভারত অধিনায়ক মিতালি রাজ। অন্তত তিন হাজার রান করেছেন এমন ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ব্যাটিং গড়ে সবার উপরে রয়েছেন মিতালি। তার গড় ৫১.৫২। তার পরে রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার কারেন রল্টন (৪৮.১৪ গড়) ও বেলিন্ডা ক্লার্ক (৪৭.৪৯)। তবে এরা মিতালির চেয়ে অনেকটাই পিছিয়ে। এছাড়া কমপক্ষে ১০০ ওয়ানডে খেলেছেন এমন খেলোয়াড়দের তালিকায় তার রান গড় সবচেয়ে বেশি।
সবচেয়ে বেশি অর্ধশতক
দীর্ঘ ১৮ বছরের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে মিতালি মাত্র ১৬৪টি ম্যাচ খেলেছেন। তবে তার মধ্যে ৪৯টি অর্ধশত রান করেছেন তিনি। তার পেছনে রয়েছেন শার্লট এডওয়ার্ডস (৪৬টি) ও কারেন রল্টন (৩৩টি)।
দলকে জেতাতে ভূমিকা
শচীন টেন্ডুলকার নিজে ভালো খেললেও অনেক সময় তার দল হেরেছে। এই সমালোচনা সবসময় শচীনের সঙ্গী ছিল। তবে মিতালির ক্ষেত্রে ঘটনা সম্পূর্ণ বিপরীত। মিতালি বড় স্কোর মানে ভারতের জেতা। দল জিতেছে এমন ম্যাচে মিতালির ব্যাটিং গড় ৭৫.৭২। এক্ষেত্রে তার পরে রয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের স্টেফানি টেইলর (৬৬.১৩ গড়) ও অস্ট্রেলিয়ার মেগ ল্যানিং (৬৩.৪০ গড়)।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন