১২ লাখ টন চাল কিনবে সরকার টার্গেটে পাঁচ দেশ

এক্সক্লুসিভ

দীন ইসলাম | ১৭ জুলাই ২০১৭, সোমবার
১২ লাখ টন চাল কেনার টার্গেট নিয়ে এগুচ্ছে সরকার। এরই মধ্যে সাড়ে চার লাখ টন চাল কেনার কার্যাদেশ দেয়া হয়েছে। বাকি সাড়ে সাত লাখ টন চাল কেনা হবে। এসব চাল ভিয়েতনাম, থাইল্যান্ড, কম্বোডিয়া, ভারত ও মিয়ানমার থেকে কেনা হবে। দরপত্রের মাধ্যমে চাল কিনতে সময় বেশি লাগবে এ বিবেচনায় জিটুজি ভিত্তিতে চাল কেনার উপর জোর দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুল হাসান মানবজমিনকে বলেন, ১২ লাখ টন চাল কিনবো আমরা। এর মধ্যে সাড়ে চার লাখ টন চাল এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে পর্যায়ক্রমে দেশে এসে পৌঁছাবে। সহসাই থাইল্যান্ডের সরকারি টিম বাংলাদেশ সফরে আসছে। সূত্রে জানা গেছে, থাইল্যান্ড সরকারের কাছ থেকে দুই লাখ টন চাল কিনতে চায় সরকার। এ জন্য গত ৫ই জুলাই থাইল্যান্ডের ব্যাংকক যান খাদ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বদরুল হাসান ও খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আতাউর রহমান। চাল কেনার বিষয়ে প্রাথমিক আলোচনা শুরু করে আসেন তারা। থাইল্যান্ডের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল ২৩শে জুলাই বাংলাদেশ সফরে আসছে। এ সফরের সময়েই বাংলাদেশের সরকারি প্রতিনিধি দল থাইল্যান্ডের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করে চালের দাম ও কোয়ালিটি ঠিক করবে। দাম ঠিক করার পরই দুই দেশের মধ্যে চুক্তি হবে। এদিকে কম্বোডিয়া থেকেও চাল আমদানির চিন্তা-ভাবনা রয়েছে সরকারের। এ জন্য আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল কম্বোডিয়া সফরে যাবে। ওই সফরে চাল আমদানির প্রাথমিক আলোচনা সেরে আসবে দলটি। খাদ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, থাইল্যান্ড ও কম্বোডিয়ার পাশাপাশি মিয়ানমার ও ভারত থেকেও চাল কিনতে চায় সরকার। চাল কেনার বিষয়ে ভারতের সঙ্গে আলোচনা অনেক দূর এগিয়েছে। সহসাই ভারতের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠান এমএমটিসিসহ তিনটি প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা বাংলাদেশ সফরে আসছে। ভারতীয় প্রতিনিধি দলের সঙ্গে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দলের বৈঠক হবে। চাল আমদানির বিষয়ে মিয়ানমারের সঙ্গেও কথাবার্তা হচ্ছে। তবে চাল আমদানির বিষয়ে তাদের সঙ্গে পত্রালাপ ছাড়া আর কোনো অগ্রগতি আপাতত নেই। খাদ্য অধিদপ্তরের ডিজি বলেন, আমরা চাল সংগ্রহের জন্য একটি দেশকে সোর্স হিসেবে রাখতে চাই না। এজন্য কয়েকটি দেশের সঙ্গে কথাবার্তা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি টার্গেট অনুযায়ী আমরা চাল সংগ্রহ করতে পারবো। এর আগে জি টু জি পদ্ধতিতে ভিয়েতনাম থেকে আড়াই লাখ টন চাল কেনার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এর মধ্যে দুই লাখ টন আতপ ও ৫০ হাজার টন সিদ্ধ চাল রয়েছে।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

NASIF IQBAL

২০১৭-০৭-১৬ ১২:৩৯:৪৬

thanks government of Bangladesh

আপনার মতামত দিন