আল আকসা মসজিদ খুলে দেয়ার ঘোষণা ইসরাইলের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৭ জুলাই ২০১৭, সোমবার
দুইদিন বন্ধ রাখার পর পুনরায় উন্মুক্ত করে দেয়া হচ্ছে আল-আকসা মসজিদসহ জেরুজালেমের পবিত্র স্থান হারাম-আল-শরিফের (ইহুদিদের কাছে টেমপল মাউন্ট নামে পরিচিত)  অন্যান্য অঞ্চলও। তবে এর বিভিন্ন জায়গায় যোগ করা হয়েছে মেটাল ডিটেক্টর ও ক্যামেরাসহ নতুন নিরাপত্তা ব্যবস্থা। শুক্রবার ফিলিস্তিনি বন্দুকধারীরা জেরুজালেমের ওল্ড সিটিতে  ইসরাইলি পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের ওপর গুলি চালিয়ে হারাম-আল শরীফে পালিয়ে যায়। সেখানে তাদেরকে গুলি করে হত্যা করা হয়। ওই সংঘর্ষের পরেই বন্ধ করে দেয়া হয় আল-আকসা মসজিদ। উল্লেখ্য, হারাম আল-শরীফেই আল-আকসা মসজিদ অবস্থিত।  এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি। শুক্রবারের সংঘর্ষ নিয়ে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ বলেছে, ‘তাদেরকে (হামলাকারী) হামলা চালানোর জন্য পবিত্র স্থান থেকে ফিরে আসতেই হতো।’ পবিত্র স্থানটিতে আল-আকসা মসজিদ ও ডোম অব দ্য রক অবস্থিত। সামপ্রতিক বছরগুলোতে জেরুজালেমে ঘটা সবচেয়ে গুরুতর ঘটনা এটি। এ ঘটনার পর ইসরাইল সবাইকে অবাক করে দিয়ে আল-আকসা মসজিদ প্রাঙ্গণ বন্ধ করে দেয়। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে জর্ডানের মুসলিমরা। পুরো শনিবারজুড়ে বন্ধ ছিল মসজিদটি। পাশাপাশি বন্ধ ছিল জেরুজালেমের ওল্ড সিটির অন্যান্য কিছু অংশও। মসজিদটি স্থানীয় সময় রোববার দুপুরে খুলে দেয়ার কথা বলা হয়েছে। তবে পুরো ওল্ড সিটিই উন্মুক্ত করা হবে ধীরে ধীরে। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু  শনিবার তার প্যারিস সফরে যাওয়ার আগে নতুন নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বলেন, ‘আমি শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনা করেছি। আর টেমপল মাউন্টের প্রবেশদ্বারে মেটাল ডিটেক্টর স্থাপন করতে বলেছি। আমরা টেমপল মাউন্টের বাইরে নতুন সিকিউরিটি ক্যামেরাও লাগাবো। যাতে ওইখানে কি ঘটছে তার প্রায় পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণ আমাদের হাতে থাকে।’

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন