আল-আকসা বন্ধ করলো ইসরাইল, তীব্র নিন্দা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৬ জুলাই ২০১৭, রবিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩৬
গোলাগুলির পর আল-আকসা মসজিদ বন্ধ করে দিয়েছে ইসরাইলি পুলিশ। মুসলিম ও ইহুদি উভয় সম্প্রদায়ের জন্য পবিত্র স্থান বিবেচিত হারাম আল শরিফ/টেম্পল মাউন্ট প্রাঙ্গণে শুক্রবার গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।  এতে দুই ইসরাইলি পুলিশ নিহত হয়। পরে নিরাপত্তা কর্মীদের গুলিতে নিহত হয় তিন হামলাকারী। আল-আকসা মসজিদে শুক্রবারের জুম্মার নামাজও বাতিল করে দেয়া হয়। পরে তা বন্ধ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় পুলিশ। শনিবারও বন্ধ রাখা হয় আল আকসা। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন ফিলিস্তিনি ধর্মীয় ও রাজনৈতিক নেতারা।  এছাড়া শুক্রবারের ঘটনার পর জেরুজালেমের শীর্ষ মুসলিম আলেম শেখ মোহাম্মদ আহমেদ হুসেইনকে সাময়িকভাবে আটক করা হয়। এ খবর দিয়েছে আল জাজিরা। মসজিদ বন্ধ করার নিন্দা জানিয়েছিলেন শেখ মোহাম্মদ আহমেদ হুসেইন। এরপর মসজিদের কাছে উন্মুক্ত স্থানে নামাজের ইমামতি করেন তিনি। নামাজের পর তাকে আটক করা হয়। তার ছেলে ওমর জানায়, ‘ইসরাইলি পুলিশ আমার পিতাকে সহিংসভাবে আটক করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে গেছে।’ পরবর্তীতে হুসেইনকে ২৮০০ ডলার জামানতে মুক্তি দেয়া হয়।
মসজিদ বন্ধ রাখার নিন্দা জানিয়ে ফিলিস্তিনি নেতারা বলেন, এটা ধর্মীয় স্বাধীনতার লংঘন। ফিলিস্তিনি অথোরিটির ধর্মমন্ত্রী শেখ ইউছুফ ইদিস বলেন, ‘আল আকসা মসজিদ বন্ধ রাখা কোন অজুহাত হতে পারে না। আমরা এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা জানাই।’ তিনি আরো বলেন, প্রার্থনার স্বাধীনতা এমন একটি অধিকার যার নিশ্চয়তা দেয় আইন। এই অধিকারের যে কোনো লঙ্ঘন প্রত্যাখ্যান করছি।
জর্ডান সরকারের মুখপাত্র মোহাম্মদ আল মোমানি মসজিদ বন্ধ প্রত্যাহার করতে ইসরাইলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। পেত্রা সংবাদ সংস্থাকে তিনি বলেন, মসজিদ বন্ধ করা ‘মুসলিমদের পবিত্র স্থানে তাদের ধর্মীয় আচার চর্চার অধিকারের ওপর হামলা’।      
খবরে বলা হয়, কয়েক দশকের মধ্যে এবারই প্রথম শুক্রবারের নামাজের সময় মসজিদ প্রাঙ্গণ বন্ধ রাখা হলো। এতে করে আল-আকসায় নিয়মিত সালাত আদায় করতে আসা আনুমানিক ১০ হাজার ফিলিস্তিনির মধ্যে ক্ষোভ বাড়তে পারে বলে শঙ্কা প্রকাশ করেন আল জাজিরার প্রতিবেদক হ্যারি ফসেট।
জেরুজালেমের ওল্ড সিটির বিভিন্নস্থানে তল্লাশি চৌকিগুলোতে অতিরিক্ত কয়েক শ’ ইসরাইলি সেনা মোতাযেন করা হয়। আল-আকসায় সালাত আদায় করতে আসা অনেক মুসলিমকে অগত্যা জেরুজালেমের রাস্তায় নামাজ পড়তে হয়।
আল-আকসা মসজিদের অপর ধর্মীয় কর্মকর্তা শেখ ওমর কেসওয়ানিও মসজিদ বন্ধ ও জুমার নামাজ বাতিলের নিন্দা জানান। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, রোববার ধীরে ধীরে ফের খুলে দেয়া হবে ওই এলাকা।


 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন