৫৭ ধারা একটি কালো আইন

ফেসবুক ডায়েরি

অমিতাভ রেজা চৌধুরী | ১৫ জুলাই ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৭
চলচ্চিত্র গবেষক ও লেখক অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় যে হয়রানিমূলক মামলা করা হয়েছে তা প্রত্যাহার করা হোক।
৫৭ ধারা একটি কালো আইন। এই আইন মানুষের কণ্ঠরোধ করার জন্য, মানুষকে দমন করার জন্য এবং মানুষের প্রতিবাদকে নস্যাৎ করতে প্রবর্তন করা হয়েছে। এই কালো আইনের সর্বশেষ শিকার অধ্যাপক ফাহমিদুল হক। আমরা সকলে অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার দাবি করছি।
আমরা আশা করি মামলাকারী শিক্ষকের শুভবোধের উদয় হবে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এমন হয়রানি এবং হঠকারি পদক্ষেপ থেকে নিজেদের মর্যাদাকে সুরক্ষিত করবেন।
বাংলাদেশের সকল চলচ্চিত্র নির্মাতা, চলচ্চিত্র সংগঠক, চলচ্চিত্র শিক্ষক ও গবেষক, চলচ্চিত্র সাংবাদিক, চলচ্চিত্র কর্মী সকলের কাছে আহ্বান আপনারা এই কালো আইনের (৫৭ ধারা) বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন এবং অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের সপক্ষে অবস্থান নিন। আমরা অবশ্যই অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের সঙ্গে আছি, পাশে আছি এবং লড়াইয়ের সম্মুখে আছি!।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মানবজমিনের কালকিনি প্রতিনিধি দেলোয়ার হোসেনের দাফন সম্পন্ন

ঝিনাইদহের ওসি কবিরকে প্রত্যাহার

যশোরে পৃথক দুই ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৪

হোটেলে যেতে রাজি না হওয়ায় প্রেমিকাকে কুপিয়ে জখম

যুক্তরাষ্ট্রের সরকারি কার্যক্রম বন্ধ

বগুড়ায় ট্রাকের ধাক্কায় প্রাণ গেল দুই পথচারীর

ইয়েমেনির হামলায় নিহত ৮ সৌদি সেনা

আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিচার দাবি, প্রত্যাবর্তনে কানাডাকে বিরোধিতা করার আহ্বান

চালককে গলাকেটে হত্যার পর অটো ছিনতাই

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা নীতিতে বড় পরিবর্তন এনে সামরিক শক্তি বাড়াতে চায় যুক্তরাষ্ট্র

ইংলিশ চ্যানেলে ব্রিজ নির্মাণ করে ফ্রান্সকে যুক্ত করার প্রস্তাব: বিদ্রুপের শিকার ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

উখিয়ায় রোহিঙ্গাদের ২ গ্রুপের গোলাগুলি, নিহত ১

উত্তরাঞ্চলের কয়েক জায়গায় মৃদু ভূমিকম্প

‘মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে আমার একটা দাপটের সিনেমা করার ইচ্ছা ছিল’

স্বাক্ষর করে গরহাজির এমপিদের চিফ হুইপের চিঠি

কলেজে এসকেলেটর বিলাস, ৪৫৪ কোটি টাকার প্রকল্প