ট্রাম্প জুনিয়র কি সত্য বলছেন!

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১২ জুলাই ২০১৭, বুধবার
রাশিয়ার আইনজীবী নাতালিয়া ভেসেলনিতস্কায়ার সঙ্গে নিউ ইয়র্কে ট্রাম্প টাওয়ারে অনুষ্ঠিত বৈঠকের কথা স্বীকার করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ছেলে ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র। ওই বৈঠকে যুক্তরাষ্ট্রের গত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাদেরকে সহায়তা করতে চান নাতালিয়া। তিনি প্রস্তাব দেন এমন কিছু তথ্য দেবেন যা ডেমোক্রেট দলের প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের জন্য ক্ষতির কারণ হয়। তবে ওই বৈঠকের কথা পিতা ডনাল্ড ট্রাম্পকে জানান নি ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র। তিনি নাতালিয়ার সঙ্গে ওই বৈঠককে সময়ের অপচয় হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। ফক্স নিউজকে তিনি বলেছেন, ওই বৈঠক আসলে কিছুই ছিল না।
তার এটাকে অন্যভাবে হ্যান্ডেল করা উচিত ছিল। ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রের সঙ্গে নাতালিয়ার বৈঠক সংক্রান্ত ইমেইলের খবর প্রকাশ করে নিউ ইয়র্ক টাইমস। এরপরই ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়র তার ইমেইলগুলো প্রকাশ করেছেন। তাতে দেখা যায়, তিনি রাশিয়ার একজন আইনজীবীর সঙ্গে সাক্ষাতকে স্বাগত জানিয়েছেন। ওই আইনজীবী হলেন নাতালিয়া। তার সঙ্গে ক্রেমলিন অর্থাৎ রাশিয়ার শাসকচক্রের সম্পর্ক আছে বলে বলা হয়। বলা হয়, তার কাছে এমন কিছু জিনিস আছে তা দিয়ে হিলারি ক্লিনটনকে ঘায়েল করা যাবে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়া হস্তক্ষেপ করেছিল যে অভিযোগ আছে তার তদন্ত করছেন যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা। তদন্ত করছে এফবিআই। ওদিকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই রাশিয়ার হস্তক্ষেপের অভিযোগ এড়িয়ে যাচ্ছেন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। তিনি এমন অভিযোগ মানতে রাজি নন। ওদিকে রাশিয়াও বার বার এমন অভিযোগ অস্বীকার করেছে। ফক্স নিউজের সিন হ্যানিটি ডনাল্ড ট্রাম্প জুনিয়রের কাছে জানতে চান, গত বছর নাতালিয়ার সঙ্গে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠক সম্পর্কে তিনি কি তার পিতাকে জানিয়েছেন কিনা। জবাবে ট্রাম্প জুনিয়র বলেন, না। এটা আসলে কিছুই ছিল না। (বাবাকে) বলার মতো তেমন কিছুই ছিল না। আক্ষরিক অর্থেই এতে ২০টি মিনিট নষ্ট হয়েছিল। এটা ছিল একটি গ্লানিময়। উল্লেখ্য, নিউ ইয়র্কের ট্রাম্প টাওয়ারে ২০১৬ সালের জুনে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন ডনাল্ড ট্রাম্পের জামাই জারেড কুশনার, তার নির্বাচনী প্রচারণার তখনকার চেয়ারম্যান পল ম্যানাফোর্ট। বৈঠক আয়োজনের মধ্যস্থতাকারী ছিলেন বৃটিশ একজন প্রকাশক রব গোল্ডস্টোন। তিনি ট্রাম্প জুনিয়রকে একটি ইমেইল পাঠান। তাতে রাশিয়া থেকে বেশ কিছু ডকুমেন্টের কথা উল্লেখ করা হয়, যা হিলারি ক্লিনটনের অবমাননায় ব্যবহৃত হতে পারে। তখন ট্রাম্প জুনিয়রের পিতা ডনাল্ড ট্রাম্প রিপাবলিকানের মনোনয়ন প্রায় নিশ্চিত করে ফেলেছেন। নির্বাচনে তার মুখোমুখি হতে যাচ্ছিলেন ডেমোক্রেট দলের হিলারি ক্লিনটন। গোল্ডস্টোন একটি ইমেইলে বলেছিলেন, তাদেরকে যেসব তথ্য দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে তা অবশ্যই অত্যন্ত উচ্চ মাত্রার এবং স্পর্শকাতর। তবে সেটা রাশিয়ার পক্ষ থেকে দেয়া হবে। কারণ, রাশিয়ার সরকার ডনাল্ড ট্রাম্পকে সমর্থন দিচ্ছে। এরপরই ট্রাম্প টাওয়ারে ওই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তবে ট্রাম্প জুনিয়র ফক্স নিউজকে বলেছেন, ওই বৈঠকে আসলে ব্যবহার করার মতো কিছুই ছিল না। ২০টি মিনিট শুধু অবচয় হয়েছে। তাহলে কি সেই গোপন উচ্চ মাত্রার স্পর্শকাতর তথ্য দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছিল! তা কি ট্রাম্প জুনিয়রকে দেয়া হয়েছিল! তিনি কি এখন সত্য বলছেন! এমন নানা প্রশ্ন এখন চারদিকে। তবে ছেলে ট্রাম্প জুনিয়রকে সমর্থন করে সংক্ষিপ্ত বিবৃতি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এতে তিনি তার ছেলেকে একজন উচ্চ যোগ্যতাসম্পন্ন ব্যক্তি বলে আখ্যায়িত করেছেন। তার স্বচ্ছতার প্রশংসা করেছেন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

বিশ্ব সুন্দরীর মুকুট মানসী চিল্লার-এর

খেলার মাঠে দেয়াল ধসে দর্শক যুবকের মৃত্যু

‘বিচার বিভাগের স্বাধীনতার মৃত্যু ঘটেছে’

কুমারিত্বের দাম ৩ মিলিয়ন ডলার!

ছাত্রদল সাধারণ সম্পাদক আকরাম ৮ দিনের রিমান্ডে

১৫৪ টার্গেট গেইল-ম্যাককালামের

বাড়ি ফিরেছেন নিখোঁজ ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ রায়

শিক্ষার্থীদের মাথা ন্যাড়ার শর্তে এসএসসি’র ফরম পূরণ!

একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ

রাবি অপহৃত ছাত্রী ঢাকায় উদ্ধার

‘সমাবেশে জোর করে লোক আনা হয়েছে’

সমাবেশ মঞ্চে শেখ হাসিনা

যুদ্ধাপরাধের ২৯তম রায়ের আপেক্ষা

সিরিয়া ইস্যুতে আবারো রাশিয়ার ভেটো

ইরাক ও ইসরায়েল সুন্দরী একসঙ্গে সেলফি তুলে বিপাকে

‘বিএনপিকে দূরে রেখে নির্বাচনের ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে’