ভারতে পুণ্যার্থীদের উপর জঙ্গি হামলায় নিহত ৭

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১১ জুলাই ২০১৭, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ৭:২৯
ভারতে অমরনাথ থেকে ফেরার পথে পুণ্যার্থীদের ওপর জঙ্গী হামলায় ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ২০ জন। সোমবার রাতে এই ঘটনা ঘটেছে অনন্তনাগের কাছে। পুলিশ জানিয়েছে ‘লস্কর-ই-তৈয়বা’র জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছে । সংবাদ মাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জম্মু ও কাশ্মীর  উপত্যকার পুলিশের আইজি মুনির খান বলেছেন, ইসমাইল নামে একজনকে শনাক্ত করা গেছে। সে পাকিস্তানী। কাশ্মীরের পরিস্থিতি নিয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের বাড়িতে এক উচ্চ পর্যাযের বৈঠকে উপত্যকার বর্তমান পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে দেখা হয়েছে। এই বৈঠকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার শীর্ষ আধিকারিকরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভালও। রবিবার রাতে মোদীর সঙ্গেও পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক করেছেন দোভাল।  সোমবার রাতের অমরনাথ পুণ্যার্থীদের ওপর জঙ্গি হামলার ঘটনায় উপত্যকার পরিবেশ থমথমে রয়েছে। তবে অমরনাথ অভিমুখে যাত্রা বন্ধ রাখা হয় নি। পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও আটোসাটো করা হয়েছে।  এর আগে ২০০০ সালে জঙ্গিদের গুলিতে মৃত্যু হয়েছিল ৩০ জন অমরনাথ তীর্থযাত্রীর। এ দিনের ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী, জম্মু-কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও হুরিয়ত নেতৃত্ব। খোদ প্রধানমন্ত্রীকে আক্রমণ করে রাহুল গান্ধী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর উচিত নিরাপত্তায় চরম গাফিলতির দায় স্বীকার করে এমন ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাতে এ ধরনের ঘটনা আর কখনও না ঘটে। জানা গেছে, নিহত পুণ্যার্থী এবং আহতদের দিল্লিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। নিহতদের সকলেই মহিলা। এর মধ্যে ৫ জন গুজরাটের বাসিন্দা, বাকী দুজন মহরাষ্ট্রের।  হামলার পরই অনন্তনাগে গিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতি। হাসপাতালে আহতদের সঙ্গে দেখা করে রাতটুকু সেখানেই কাটান। হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন তিনি। জানিয়েছেন, ধর্ম নিরপেক্ষ হিসেবে এতদিন পরিচিতি ছিল কাশ্মীরিদের। কিন্তু নিরীহ পুণ্যার্থীদের ওপর হামলায় লজ্জায় মাথা হেঁট হয়ে গিয়েছে। সমস্ত মুসলিম ও কাশ্মীরিদের কলঙ্কিত করা হয়েছে। হামলার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন