দাঙ্গার খবর প্রচার করায় পশ্চিমবঙ্গে দুটি টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে মামলা

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ১০ জুলাই ২০১৭, সোমবার
পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করার পচষ্টা এবং অশান্তিতে প্ররোচনা   দেওয়ার অভিযোগে দু’টি সর্বভারতীয় ইংরেজি নিউজ চ্যানেলের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। তার ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে সিআইডি। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, দু’টি চ্যানেলের দু’জন সঞ্চালকের নামও। এর আগে গত বছরের ডিসেম্বরে হাওড়া জেলার ধূলাগড়ের দাঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে খবর প্রচার করার জন্যও পশ্চিমবঙ্গ সরকার জি নিউজ চ্যানেলের সম্পাদকসহ তিন সাংবাদিকের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা করেছিল। জি নিউজ চ্যানেলের সম্পাদক সুধীর চৌধুরি ফেসবুকে জানিয়েছিলেন, অস্বস্তিকর তথ্য ও বাস্তব পরিস্থিতি গোপন রাখতে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত সরকার পুলিশকে ব্যবহার করে মিডিয়ার ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। তবে গত রবিবার যে দুটি চ্যানেলের বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে তা করেছেন আলাদা আলাদা দুই ব্যক্তি।
অবশ্য গত শনিবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে সর্বভারতীয় চ্যানেলের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন। তবে তিনি পশ্চিমবঙ্গের গণমাধ্যমে বাদুড়িয়ার দাঙ্গার খবর প্রচারে সংযম দেখানোয় প্রশংসা করেছেন। শুক্রবারই তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র ডেরেক ও ব্রায়েন টুইটে বলেছিলেন,  ইন্ডিয়া টুডে, টাইমস নাউ ও রিপাবলিকের মতো সর্বভারতীয় ইংরেজি নিউজ চ্যানেলগুলি সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা ছড়াচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে  ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। এরপরই তিনটির মধ্যে দু’টি চ্যানেলের বিরুদ্ধে দু’টি পৃথক অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা করা হয়েছে হুগলির শ্রীরামপুর থানায়। রবিবারই  তদন্তের দায়িত্ব নিয়েছে সিআইডি। হিংসা ও অশান্তিতে প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগের পাশাপাশি মামলা করা হয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি আইনেও।





 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

‘সমস্যার সমাধান করার দায়িত্ব বিশ্ববিদ্যালয়ের’

লিবিয়ায় গাড়িবোমা হামলায় নিহত ৩৩

ট্রাম্পকে জিজ্ঞাসাবাদ করবেন মুয়েলার

আদালতে খালেদা জিয়া

পাথরঘাটায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩

‘বাধ্য হয়ে অনেকে একই ধরনের চরিত্রে বারবার কাজ করছেন’

ছাত্রলীগে উদ্ধার ভিসি, শিক্ষার্থীদের ফের পিটুনি

ঘুষ নেয়ার সময় ধরা পড়ে নাসির বেরিয়ে আসছে আরো নাম

আদালতে খালেদার আড়াই ঘণ্টা অপেক্ষা

বিএসএফ জওয়ান গ্রেপ্তার

শিক্ষামন্ত্রীর কর্মকাণ্ডে মন্ত্রিসভার সদস্যরাও নাখোশ

পরবর্তী প্রেসিডেন্ট হামিদ না অন্য কেউ

এর পরও অনায়াস জয়

পলাতক জঙ্গি সাড়ে ৩ হাজার

পরীক্ষার সময় ফেসবুক বন্ধ চায় মন্ত্রণালয়

সৃজনশীল পদ্ধতিতে পরিবর্তন আসছে