বসিরহাটে সাম্প্রদায়িক হিংসা দমনে সেনা নামানো হয়েছে

ভারত

কলকাতা প্রতিনিধি | ৫ জুলাই ২০১৭, বুধবার
পশ্চিমবঙ্গের বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জেলা উত্তর ২৪ পরগণার বসিরহাট মহকুমার বিস্তীর্ণ এলাকায়  তিন দিন ধরে চলা সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ থামাতে বুধবার রাতে সেনাবাহিনীকে নামানো হয়েছে। নবান্ন সুত্রে বলা হয়েছে, প্রশাসন ও পুলিশ সেনাবাহিনীকে সহায়তা করবে। সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষের তৃতীয় দিন বুধবারও বসিরহাটের নানা জায়গায় ঘরবাড়িতে আগুন লাগনো হযেছে। রাস্তা কেটে দেয়া হয়েছে। অবরোধ করা হযেছে রেল চলাচল।  গোটা বসিরহাট মহকুমাতেই পরিস্থিতি থমথমে। মঙ্গলবার রাতেই কেন্ত্রীয় সরকার চার কোম্পানি বিএসএফ পাঠিয়েছে। উপদ্রুুত এলাকায় বিএসএফ জওয়ানরা টহল দিচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে মাইকে শান্তি বজায় রাখার আহ্বান জানিয়ে প্রচার চলছে। উত্তর ২৪ পরগণার জেলা শাসক জানিয়েছেন, বাদুড়িয়াসহ কয়েকটি অঞ্চলে ৫ জন বা তার বেশি মানুষের জমায়েতে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। বসিরহাট ও সংলগ্ন এলাকায় রাতে কার্ফু জারি করা হয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যাতে আর উত্তেজনা ছড়ানো না হয় সেজন্য বসিরহাট মহকুমা ও সংলগ্ন অঞ্চলে নেট যোগাযোগ ব্যবস্থাকে মঙ্গলবার থেকেই বন্ধ করে দেয়া হযেছে। নবান্ন সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক থেকে বসিরহাট মহকুমায়  কী চলছে, সে সম্পর্কে বুধবার মুখ্যমন্ত্রীর কাছ থেকে খোঁজ নিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। বিশদ রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়েছে। সোমবার (৩জুলাই) বিকেল থেকে এই সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। সৌরভ সরকার নামে দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্র ফেসবুকে কাবাঘর নিয়ে একটি আপত্তিকর ছবি পোস্ট করে। এতে উত্তেজনা ছড়ায়। পুলিশ অবশ্য সোমবারই ওই ছাত্রকে গ্রেপ্তার করেছে। 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে ইসি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা

মধুপুরে রোহিঙ্গা সন্দেহে যুবক আটক

ম্যানচেস্টারে এবার মসজিদের বাইরে একজন ডাক্তারকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কলেরা সংক্রমণের আশঙ্কা বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার

স্বামীকে বেঁধে গৃহবধূকে ধর্ষণ, আটক ১

২৮ ‘হিন্দু’র খুনী কে!

ভেঙ্গে গেল স্পর্শিয়ার সংসার

নির্বাচিত মারকেল, ইসলামবিরোধী এএফডির উত্থান, কঠিন চ্যালেঞ্জ সামনে

মালিতে নিহত সার্জেন্ট আলতাফের বাড়িতে শোকের মাতম

বাংলাদেশী শান্তিরক্ষী নিহত হওয়ায় জাতিসংঘ মহাসচিবের শোক, নিন্দা

যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আরও তিন দেশ

‘যেভাবে ভাবি সেভাবে এখনো ক্যামেরার সামনে অভিনয় করতে পারিনি’

​ জার্মানির নির্বাচনে শেষ হাসি মার্কেলেরই

রোহিঙ্গাদের জন্য বাংলাদেশের ব্যাপক আন্তর্জাতিক সহযোগিতা প্রয়োজন: ইউএনএইচআরসি

মার্কেল?

ফের সীমান্তে রোহিঙ্গা স্রোত