ভারতীয় ‘গুপ্তচর’কে মৃত্যুদণ্ড না দিতে পাকিস্তানকে আন্তর্জাতিক আদালতের নির্দেশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৯ মে ২০১৭, শুক্রবার
পাকিস্তানে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে দ-িত ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তাকে মৃত্যুদ- না দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে জাতিসংঘের শীর্ষ আদালত। ভারতের দাখিল করা মামলার শুনানি হওয়ার আগ পর্যন্ত মৃত্যুদ- কার্যকর করা স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে। আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে ভারত যুক্তি দেখিয়েছে যে, কুলভুশন সুধির যাদবের কাছে যাওয়ার সুযোগ না দিয়ে আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। এ খবর দিয়েছে বিবিসি। খবরে বলা হয়, ২০১৬ সালের মার্চ মাসে বেলুচিস্তানে গ্রেপ্তার হন যাদব। গত মাসে তাকে দ- দেয় পাকিস্তানের একটি আদালত।
মি. যাদবের গুপ্তচর থাকার কথা অস্বীকার করেছে ভারত। ওদিকে, পাকিস্তান তাকে অপহরণ করার কথা অস্বীকার করেছে।
এই মামলায় আন্তর্জাতিক আদালতের এখতিয়ার নেই বলে পাকিস্তান যে যুক্তি দেখিয়েছে, তা প্রত্যাখ্যান করে আদালত বলেছে, তারা মামলার শুনানি শুনবেন এবং উভয় পক্ষের কাছ থেকে যুক্তি চাইবেন।
আদালতের প্রেসিডেন্ট রনি আব্রাহাম বৃহস্পতিবার বলেন, ‘এই আদালত তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেয়ার আগে মি. যাদবের মৃত্যুদ- যেন কার্যকর না করা হয় সেটা নিশ্চিত করতে পাকিস্তানকে তাদের সব রকম ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেয়াটা যথাযথ।’ তিনি আরো বলেন, ‘যাদবের জন্য কনস্যুলার অ্যাকসেস চাইবার অধিকার ভারতের আছে।’  
উল্লেখ্য, ইন্টারন্যাশনাল কোর্ট অব জাস্টিস বা আইসিজে প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৪৫ সালে। আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সঙ্গতি রেখে রাষ্ট্রগুলোর মধ্যকার দ্বন্দ্বের সমাধা করতে এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। শেষবার আন্তর্জাতিক আদালতে ভারত-পাকিস্তান গিয়েছিল ১৯৯৯ সালে। সেবার পাকিস্তান তাদের নৌবাহিনীর একটি বিমান ধসিয়ে দেয়ার প্রতিবাদ জানিয়েছিল আদালতে। ওই ঘটনায় নিহত হয়েছিল ১৬ ব্যক্তি। সেবার আদালত সিদ্ধান্ত নিয়েছিল ওই দ্বন্দ্ব নিয়ে রায় দিতে আদালত সক্ষম নয়।    


 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সাবেক প্রক্টর কারাগারে, প্রতিবাদে অবরুদ্ধ চবি

আপন জুয়েলার্সের তিন মালিকের জামিন স্থগিত

এবারে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রশ্নপত্র ফাঁস

‘বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করেনা’

লেবাননে বৃটিশ কূটনীতিককে শ্বাসরোধ করে হত্যা

বিমানে দেখা এরশাদ-ফখরুলের

হলফনামার তথ্য গ্রহণযোগ্য নয়: সুজন

ছিনতাইকারীর টানাটানিতে মায়ের কোল থেকে পড়ে শিশুর মৃত্যু

গুজরাট ও হিমাচলে বিজেপিই জিততে চলেছে

আরো ৪০ রোহিঙ্গা গ্রাম ভস্মীভূত:  এইচআরডব্লিউ

ভর্তি জালিয়াতি সন্দেহে রাবির দুই ছাত্রলীগ নেতা আটক

‘এটাও কিন্তু একটা চ্যালেঞ্জের বিষয়’

সৌদিই ব্যতিক্রম

তাদের কি বিবেক বলে কিছু নেই

ঢাকা উত্তরের উপনির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে

‘উন্নয়ন কথামালায়, মানুষ কষ্টে আছে’