সরাইলে স্কুলছাত্রীর ভিডিও ইন্টারনেটে

বাংলারজমিন

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি | ১৯ মে ২০১৭, শুক্রবার
সরাইলে স্কুলছাত্রীর গোসল করার ছবি গোপনে ভিডিও করে ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগে মনির মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। ওই ছাত্রীকে প্রায়ই মনির উত্ত্যক্ত করতো। বিষয়টি চরম পর্যায়ে পৌঁছালে ওই ছাত্রীর স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। নিজের বাড়ি ছেড়ে অন্যত্র গিয়ে আশ্রয় নেয়। সেখানেও মনিরের নিপীড়ন থেকে বাঁচতে পারেনি ওই ছাত্রী। মনিরের বিরুদ্ধে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করা হয়। পরে থানায় মামলা হয়েছে। বুধবার গভীর রাতে চুন্টা ইউনিয়নের করাতকান্দি গ্রাম থেকে মনিরকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ২০১৬ সালের ডিসেম্বর থেকে একই গ্রামের বাসিন্দা চুন্টা এসি একাডেমির দশম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে নিয়মিত উত্ত্যক্ত করতে থাকে। এক সময় মনির ওই ছাত্রীকে কুপ্রস্তাব দেয়। এতে রাজি না হওয়ায় মনির ছাত্রীর উপর ক্ষুব্ধ হয়ে যেখানেই দেখে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি ও ভাষা ব্যবহার করতে থাকে। মনিরের অসহনীয় যন্ত্রণায় এক সময় স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয় ওই ছাত্রী। এ অবস্থায় বসতঘরের পাশের গোসলখানায় ওই ছাত্রী গোসল করাকালে কয়েকদিন মনির সেখানে প্রবেশ করার চেষ্টা করে। ছাত্রীর বড় ভাই বাধা দেয়ায় মনিরের সঙ্গে ঝগড়াও হয়। বখাটে মনির তাদের মারধর করার চেষ্টা করে। পরে মনির স্কুলছাত্রীর পাশের ঘরের বাসিন্দা মাজেদা বেগমকে (৩০) বাগে নেয়। এক সময় ওই মহিলার ঘরের বেড়া ছিদ্র করে ছাত্রীর গোসলের আপত্তিকর স্টিল ছবি ও ভিডিও গোপনে ধারণ করে। বিষয়টি নিয়ে তাদের বাড়িতে সাবেক চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমানসহ কয়েকজন সালিশও বসায়। কোনো সিদ্ধান্ত বা বিচার কিছুই হয়নি। আরো বেপরোয়া হয়ে ওঠে বখাটে মনির। একপর্যায়ে বাধ্য হয়ে ওই ছাত্রীকে ভূঁইশ্বর গ্রামে তার মামার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। কিন্তু খবর পেয়ে সেখানেও যাওয়া শুরু করে বখাটে মনির। একদিন সেখানে গিয়ে সবার সামনে সে বলতে থাকে আমি তাকে বিয়ে করতে আইছি। বাড়ির লোকজনকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে আসে। এসব কারণে গত ফেব্রুয়ারি থেকে ছাত্রী স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। গত কয়েকদিন আগে অশ্লীল ছবিগুলো ইন্টারনেটে ছেড়ে দেয় মনির। এ ঘটনা জানার পর ছাত্রীর মা-বাবা অসুস্থ হয়ে পড়েন। ছাত্রীর পরিবার ওই গ্রামের অসহায় নিরীহ মানুষ। নিরুপায় হয়ে ছাত্রীর বড় ভাই এ বিষয়ে আইনগতভাবে প্রতিকার চেয়ে গত ১৫ই এপ্রিল নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেন। নির্বাহী কর্মকর্তা এ বিষয়ে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জকে লিখিত নির্দেশ দেন। গত বুধবার গভীর রাতে অভিযান চালিয়ে করাতকান্দি গ্রাম থেকে বখাটে মনিরকে গ্রেপ্তার করে সরাইল থানা পুলিশ। সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ রূপক কুমার সাহা বলেন, ছাত্রী বাদী হয়ে মনিরের বিরুদ্ধে তথ্য-প্রযুক্তি আইনে মামলা করেছে।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন